‘সব শেষ হয়ে গেল ভাই’
প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৯, ০৯:৫০
‘সব শেষ হয়ে গেল ভাই’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

‘আমাদের সব শেষ। ৪০-৫০ লাখ টাকার মালামাল সব শেষ। আমরা রাস্তার ফকির হয়ে গেলাম ভাই।’


রাজধানীর লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় বুধবার (১৪ আগস্ট) আগুন লাগে। এতে মো. মুজিবুল নামে এক ব্যবসায়ীর অন্তত ৫০ লাখ টাকার পণ্য পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকাণ্ডে বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়ে এখন চিন্তাগ্রস্ত মুজিবুল।


মুজিবুল বলেন, পোস্তায় হাজী জয়নাল নামে প্লাস্টিক কারখাটি আমার বাবা দেখাশোনা করেন। ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি বাবা নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি গেছেন। আমি বুধবার বিকেলে এক কর্মচারীসহ গ্রাম থেকে এসেছি। কারখানা বন্ধই ছিল। কিন্তু রাত ১০টার দিকে হঠাৎ কারখানার পাশে বিদ্যুতের ট্রান্সমিটারের একটি তারে আগুন ধরে যায়। এটি দেখে আমরা দ্রুত আমাদের দোকানে থাকা ফায়ার এক্সটিংগুইশার দিয়ে প্রায় ৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিভায়। এরপর শুধু ধোঁয়া ছিল। আমরা ভেবেছি, আগুন নিভে গেছে। তাই হোটেলে গেছি খেতে। কিন্তু সেখানে খেতে বসছি মাত্র, তখনই লোকজনের মুখ থেকে শুনি আবারও আগুন লাগছে। একথা শুনে দৌড়িয়ে এসে দেখি আগুন জ্বলছে।’


পোস্তা এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট আড়াই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় চারটি প্লাস্টিক কারখানা এবং জুতার কারখানা ও মালামালের ‍দুটি গোডাউন পুড়ে গেছে।



ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মোস্তফা মহসিন বলেন, রাত ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে ফায়ার সার্ভিস আগুন লাগার খবর পায়। ১০টা ৪৭ মিনিটে মাত্র ৭ মিনিটের মধ্যেই ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে থাকে। কিন্তু কী কারণে আগুন লেগেছে, তা জানা যায়নি। তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা বলেন, শেষ পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ১৫ ইউনিট কাজ করেছে। কিন্তু আগুন লাগার খবরটি একটু দেরিতেই পেয়েছি বলে মনে হয়। কারণ সাত মিনিটের ব্যবধানে আগুন এতটা ভয়াবহ হয় না। আর যদি আগুন লাগার কয়েক মিনিটের মধ্যেই খবর পেতাম তাহলে পাশেই লালবাগ স্টেশন ছিল। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তারা ছুটে এসেছে।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আগুন দুই ধাপে লেগেছে। প্রথমবার আগুন নেভানোর কিছু সময় পর একই স্থান থেকে দ্বিতীয়বার আগুন লাগে। ততক্ষণে আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। তবে খুব অল্প সময়েই ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে। তবে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিতে দেরি হয়ে গেছে।


রোকসানা নামে সেখানকার একজন বাসিন্দা বলেন, প্রথম আগুন লাগলে সেটি আমরা সবাই মিলে পানিতে নিভাই। এরপর সবাই যে যার ঘরে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পর দেখি আগুন দাউ দাউ করে জ্বলছে। কিন্তু কীভাবে আগুন লেগেছে জানি না।


বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com