মশা মারার ওষুধের নমুনা দু-একদিনে আসবে: মেয়র আতিক
প্রকাশ : ০২ আগস্ট ২০১৯, ২০:১১
মশা মারার ওষুধের নমুনা দু-একদিনে আসবে: মেয়র আতিক
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

মশা মারার নতুন ওষুধের নমুনা দু-এক দিনের মধ্যে বিদেশ থেকে এসে পৌঁছাবে এবং তা পরীক্ষা করে যত দ্রুত সম্ভব ক্রয় করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।


শুক্রবার (২ আগস্ট) রাজধানীর উত্তরায় ডিএনসিসি এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে এডিস মশা নিধন ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।


সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, ডিএনসিসি এখন থেকে নিজেই মশার ওষুধ ক্রয় করতে পারবে।তবে এ ক্ষেত্রে ওষুধের মান সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরগুলো নিশ্চিত করবে।


মশা নিধনে ভারতীয় বিশেষজ্ঞদের ব্যবহারের বিষয়ে মেয়র বলেন, ‘শুধু ভারত নয়, আমরা যেকোনো দেশ থেকে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ নিতে প্রস্তুত।’


মশা নির্মূলে সিটি করপোরেশনের আন্তরিকতায় কোনো কমতি নেই উল্লেখ করে তিনি জানান, এখন থেকে বছরে ৩৬৫ দিনই এডিস মশা নিয়ে কাজ করতে হবে।


এর আগে হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ওয়ার্ড ভিত্তিক বাসাবাড়ি ও প্রতিষ্ঠানে মশা নিধন ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এডিস মশা নির্মূলে কাজ করে যাওয়ার জন্য সবাইকে একযোগে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।


‘আমরা নিশ্চয়ই এডিস মশামুক্ত ঢাকা গড়তে পারি, দরকার শুধু সচেতনতা আর সামাজিক আন্দোলন।নিজ নিজ বাসাবাড়ি, অফিস-আদালত ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোতে কোথাও তিন দিনের বেশি পানি জমতে দেয়া যাবে না।যেখানেই পরিত্যক্ত বালতি, কন্টেইনার ইত্যাদি পাওয়া যাবে, সেগুলো উপুড় করে দিতে হবে,’ যোগ করেন তিনি।


আতিকুল ইসলাম আরো বলেন, এডিস মশা নির্মূলে ডিএনসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন ভবন পরিদর্শন করছে।মশার বংশবিস্তারের অনুকূল পরিবেশ পাওয়া গেলে আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।নগরবাসীকে ডেঙ্গু রোগ থেকে রেহাই দিতে এবার বাসাবাড়িতেও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে এবং মশার প্রজনন উপযোগী পরিবেশ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


ডিএনসিসি এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ডিএনসিসির ৫৪টি ওয়ার্ডে এডিস মশা নির্মূলে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি ভাগে ভাগ করে সোমবার থেকে একযোগে কাজ শুরু করবে।এ কর্মযজ্ঞে প্রচুর স্বেচ্ছাসেবী দরকার হবে।এ জন্য যুব উন্নয়ন অধিদফতরের ৬০০ যুব কাজ করবে।


মেয়র সব সাংবাদিককে বিভিন্ন এলাকার অপরিচ্ছন্নতার পূর্ণ তথ্য দিয়ে ডিএনসিসিকে সহায়তা করার জন্য অনুরোধ জানান।


যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হাই, যুব উন্নয়ন অধিদফতরের মহাপরিচালক ফারুক আহমেদ, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফছার উদ্দিন খান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


বিবার্তা/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com