ব্রহ্মপুত্র-ঘাঘটের স্রোতে হাবুডুবু খাচ্ছে গাইবান্ধার মানুষ
প্রকাশ : ২০ জুলাই ২০১৯, ১১:৪০
ব্রহ্মপুত্র-ঘাঘটের স্রোতে হাবুডুবু খাচ্ছে গাইবান্ধার মানুষ
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ব্রহ্মপুত্র আর ঘাঘটের প্রবল স্রোত হাবুডুবু খাচ্ছে ভাটির জেলা গাইবান্ধার মানুষ। বাঁধ ভাঙা স্রোতের তোড়ে সড়কের পর সড়ক ভেঙে রেললাইন তলিয়ে যাওয়ায় বিচ্ছিন্ন রেল যোগাযোগ।


এই বন্যায় দিশে হারা কৃষক আর মাছ চাষি। আর বন্যার পানিতে তলিয়ে আছে চর-দ্বীপচরের বাড়িঘর। প্রত্যন্ত এলাকায় বাস বলে খুব সহজে সাহায্য পৌঁছায় না বানভাসিদের হাতে।


চরবাসীরা বলেন, যোগাযোগ অবস্থা খুব ভয়াবহ, ঘর বাড়িতে পানি উঠেছে। বন্যায় অনেক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে ফসল বাড়ি সব নদীতে চলে যাচ্ছে। সরকারের কাছ থেকে এখনো কিছু আসেনি আমাদের জন্য।


আমন বীজতলা, পাট, সবজি ক্ষেত সবই ধুয়ে মুছে নিয়ে গেছে প্লাবন। হঠাৎ করে ফুলে ফেঁপে ওঠা বানের পানিতে পুকুরের মাছ ভেসে যাওয়ায় মৎস্য চাষিদের মাথায় হাত।


এমন পরিস্থিতিতে গাইবান্ধাকে বন্যাদুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি উঠলেও তা মানতে নারাজ স্থানীয় সংসদ সদস্য।


গাইবান্ধা-৫ সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, বন্যাদুর্গত এলাকা বলে ঘোষণা করার মতো কোনো অবস্থা এখনো সৃষ্টি হয়নি। তবে এটা ঠিক ১৯৮৮ সালে যে বন্যা হয়েছিল তার চেয়েও বেশি বড় বন্যা এবার হয়েছে।


গাইবান্ধা নাগরিক পরিষদের আহবায়ক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম বাবু বলেন, বিশুদ্ধ পানির সংকট থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংকটে মানুষ যে দুর্দশাগ্রস্ত হয়েছে তাতে এই এলাকা আরো আগেই বন্যাদুর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষণা দেয়া উচিত ছিল।


গেলো কয়েকদিনের বন্যায় তলিয়ে গেছে ৩০ হাজার পুকুর। টাকার অঙ্কে যার ক্ষতির পরিমাণ অন্তত ২০ কোটি টাকা। বানের পানিতে বিনষ্ট হয়েছে ১০ হাজার হেক্টর ফসলের ক্ষেত।


বিবার্তা/তাওহীদ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com