সরকারে শেখ হাসিনা যতদিন বাংলাদেশ নিরাপদ ততদিন: খাদ্যমন্ত্রী
প্রকাশ : ০৬ জুলাই ২০১৯, ২১:৫৩
সরকারে শেখ হাসিনা যতদিন বাংলাদেশ নিরাপদ ততদিন: খাদ্যমন্ত্রী
নওগাঁ প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীন দেশ দিয়ে গেছেন। বাংলাদেশ স্বাধীন না হলে বাঙালিরা সচিব, ডিসি এসপিসহ প্রশাসনের কোনো বড় কর্মকর্তা হতে পারতেন না। এসব পদ পাকিস্তানীরাই দখল করে থাকতো আর আমাদের উপর অত্যাচার নির্যাতন চালাতো। বর্তমানে তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যতদিন সরকারের দায়িত্বে থাকবেন ততদিন বাংলাদেশ নিরাপদে থাকবে।


শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় নওগাঁয় জেলা লোকাল গভর্নমেন্ট অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।


সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশিদ। অনুষ্ঠানে বিশষে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদ্য নওগাঁর বিদায়ী ও ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান এবং পুলিশ সুপার মোঃ ইকবাল হোসেন পিপিএম।


অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশিদুল হক এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক গোলাম মোঃ শাহনেওয়াজ বক্তব্য রাখেন।


খাদ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে এ ধরনের আয়োজন প্রথম উল্লেখ করে বলেছেন কোনো কাজের মুল্যায়ন করা না হলে কাজের স্পৃহা হারিয়ে যাবে। এই পুরস্কারের মাধ্যমে সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং জনপ্রতিনিধিদের জনসেবা নিশ্চিত করতে আরো উৎসাহিত করবে। তিনি কৃষকদের ধানের নায্যমুল্য নিশ্চিত করতে সরকারের খাদ্য শষ্য সংগ্রহ অভিযানে সকল অনিয়ম দুরীভুত করে কর্মকর্তাকর্মচারীদের সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করার আহবান জানান। এক্ষেত্রে রাজনৈতিক হামলা থেকে কৃষকদের বাঁচাতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। অবশ্য তিনি জোর দিয়ে বলেছেন চলতি মৌসুমে খাদ্য শষ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম হয়নি এমনকি কোনো রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ পরিলক্ষিত হয়নি। কৃষকরা যাতে তাদের উৎপাদিত ফসলের নায্যমুল্য থেকে বঞ্চিত না হন বিশেষ করে কৃষকদের উৎপাদিত ধানের নায্যমুল্য নিশ্চিত করে তাদের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করা যায় সে জন্য দেশের অধিক ধান উৎপাদিত এলাকায় ৫ হাজার মেট্রিকটন ক্ষমতাসম্পন্ন প্যাডী সাইলো নির্মাণে সরকারের আগ্রহের কথা উল্লেখ করেন।


অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার অবকাঠামোর সাথে সম্পৃক্ত উপজেলা পর্যায়ে ৯ ক্যটাগরিতে এবং জেলা পর্যায়ে ১১ ক্যটাগরিতে শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা, কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি এবং প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।


জেলা পর্যায়ে মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মুশফিকুর রহমান, প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে মান্দা উপজেলার ভাঁরশো ইউনিয়ন পরিষদ, মহাদেবপুর উপজেলার রাইগাঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর আলম, রানীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মোসাঃ সাহারা বেগম, সাপাহার উপজেলার সাপাহার ইউনিয়ন পরিষদের পুরুষ সদস্য শ্রী জগন্নাথ দেবনাথ, নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুর পুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সদর উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের হিসাব সহকারী রওনক বিনতে জামান, আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়ন ডিজিট্যাল সেন্টার-এর নারী উদ্যোক্তা আরজিন বানু, বদলগাছি উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের পুরুষ উদ্যোক্তা মোঃ দুলাল হোসেন, রানীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়নের দফাদার গোলাপ চাঁন দাস এবং পোরশা উপজেলার গাঙ্গুরিয়া ইউনিয়নের মহল্লাদার রুবি ওড়াও স্ব স্ব ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছেন।


বিবার্তা/বেলাল/জাহিদ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com