ভাড়ার টাকা না পেয়ে দোকানির ছেলেকে হত্যা, আটক ১
প্রকাশ : ২৪ জুন ২০১৯, ১৫:৫২
ভাড়ার টাকা না পেয়ে দোকানির ছেলেকে হত্যা, আটক ১
গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

গাজীপুরের টঙ্গীতে দোকানের ভাড়া পরিশোধ না করায় এক দোকানির ছেলেকে হত্যার অভিযোগে হারুন আর রশিদ (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-১) সদস্যরা।


রবিবার দিনগত রাতে টঙ্গী পূর্ব ঘাপরিয়া মাদ্রাসা থেকে হারুনকে আটক করা হয়।


নিহত সাইফুর রহমান সাইফের (১৪) বাবা আব্দুল কাইয়ুম জানান, তিনি বেশ কিছুদিন আগে স্থানীয় হারুন আর রশিদ (৪৫) নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা অগ্রিম ও মাসিক ১৫ হাজার টাকা কিস্তিতে একটি ওয়ার্কশপ ভাড়া নেয়। মে মাসের ভাড়া পরিশোধ না করায় দোকানের মালিক হারুন টাকার জন্য তাগাদা দিলেও তা পরিশোধে ব্যর্থ হয় তিনি।


শনিবার (২২ জুন) সকাল ১০টায় সাইফকে দোকানে বসিয়ে তিনি ভাড়ার টাকার বন্দোবস্ত করতে যান। দুপুর ১২টায় দোকানের মালিক হারুন ও তার ৫ থেকে ৬ জন সহযোগী নিয়ে ভাড়া তুলতে আসেন। এসময় তারা টাকা না পেয়ে আমার ছেলেকে মারধর করে লেদ মেশিনের সঙ্গে পেঁচিয়ে শাটার বন্ধ করে দিয়ে চলে যায়।


এরপর হত্যাকারীকে খুঁজে বের করতে ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব-১। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১ এর একটি দল ঢাকা ও গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। পরে রবিবার (২৩ জুন) দিনগত রাতে টঙ্গী পূর্ব ঘাপরিয়া মাদ্রাসা থেকে হারুনকে আটক করা হয়।


র‌্যাব জানায়, ঘটনার দিন নিহতের বাবা আব্দুল কাইয়ুম সকালে সাইফকে দোকানে বসিয়ে ভাড়ার টাকার বন্দোবস্ত করতে যায়। দুপুর ১২টায় দোকানের মালিক হারুন অর রশিদ ও তার ৫ থেকে ৬ জন সহযোগী ভাড়া তুলতে আসে। এসময় তারা ভাড়ার টাকা না পেয়ে সাইফকে বেধড়ক মারধর করে শাটার বন্ধ করে দিয়ে চলে যায়। পরবর্তীতে বন্ধ দোকানের ভেতর চলন্ত লেদ মেশিনের শব্দ পেয়ে পাশের দোকান ও স্থানীয় লোকজন ভেতরে প্রবেশ করলে সাইফকে লেদ মেশিনের সঙ্গে পেঁচানো অবস্থায় দেখে। গুরুতর আহত অবস্থায় সাইফকে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সাইফ চার ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড়। ঘটনার দিন টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।


র‌্যাব-১ এর স্কোয়াড কমান্ডার (সিপিসি-১) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, রবিবার রাতে র‌্যাব-১ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে টঙ্গী পূর্ব ঘাপরিয়া মাদ্রাসা থেকে হারুনকে আটক করে। টঙ্গীর মাছিমপুর ‘নিউ মা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ’ লেদ মেশিনের ওপর ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় হারুন ও তার সঙ্গীরা। এতে লেদ মেশিনে পেঁচিয়ে সাইফের মৃত্যু হয়।


হারুন ‘মুন সান প্রোপারটিজ’ একটি ভবন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী। পাশাপাশি মাছিমপুর এলাকায় ভাড়ায় তার বেশ কয়েকটি দোকান আছে। এসব দোকানের একটিতে সাইফের বাবা দীর্ঘদিন ধরে ওয়ার্কশপ পরিচালনা করে আসাছিল। প্রতিমাসের ১০ তারিখের মধ্যে মাসের ভাড়া পরিশোধ করার কথা থাকলেও ভিকটিমের বাবা গত মে মাসের ভাড়া সময়মতো পরিশোধ করতে পারেননি। এনিয়ে একাধিকবার তাগাদা দিলেও ভিকটিমের বাবা আব্দুল কাইয়ুম ভাড়া পরিশোধে ব্যর্থ হয়।


গত ২২ জুন সকালে আসামি ও তার লোকজন সাইফকে মারধর করার সময় ভিকটিম চলন্ত লেদ মেশিনে পড়ে গেলে তারা তাকে ভেতরে রেখেই বাইরে থেকে দোকানের শাটার বন্ধ করে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।


বিবার্তা/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com