তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৪
প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৮, ০৮:৫৪
তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৪
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

দেশে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তিন জেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযু্দ্ধে তিন মাদক ব্যবসায়ী ও এক ডাকাত নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ঝিনাইদহ ও ময়মনসিংহে তিন মাদক ব্যবসায়ী ও গাইবান্ধায় এক ডাকাত নিহত হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।


ঝিনাইদহ:


ঝিনাইদহের পৌর এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে র‌্যাবের ‌‌‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছে। এ সময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র-গুলি, ফেনসডিলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। রবিবার ভোররাত ৩টার দিকে ঝিনাইদহ-মাগুরা মহাসড়কের পাশে পবহাটি জামতলা মোড় নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।


নিহত মাদক ব্যবসায়ীরা হলো-জেলা সদরের বাঘা যতিন সড়কের রহিম বক্সের ছেলে সাজ্জাতুল ইসলাম ডিএম (৩৫) ও একই উপজেলার উদয়পুর গ্রামের রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩৪)।তারা তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী।


ঝিনাইদহ র‌্যাবের সহকারী পুলিশ সুপার গোলাম মোর্শেদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৩টার দিকে র‌্যাব ঝিনাইদহ পৌর এলাকার পবহাটি এলাকায় চেকপোস্ট বসায়। এ সময় একটি মোটরসাইকেলের আরোহীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে দু-পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। এতে মোটরসাইকেল আরোহী দু’জন গুলিবিদ্ধ হয়। তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কিছুক্ষণ পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। মৃতদেহ দুটি ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।



পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় র‌্যাবের এএসআই তরিকুল ইসলাম ও ল্যান্স নায়েক আবু সাইদ আহত হয়েছেন।


গাইবান্ধা:


গাইবান্ধায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শামসুল মিয়া (৩৮) নামে এক ডাকাত সদস্য নিহত হয়েছে। এ সময় পুলিশের ছয় সদস্য আহত হন। গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়কের সাকোয়া ব্রিজ এলাকায় শনিবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।


শামসুল আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য ও একাধিক মামলার আসামি। তার বাড়ি পলাশবাড়ী উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের সাকোয়া গ্রামে।


গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান শাহারিয়ার বলেন, সদর ও সাদুল্যাপুর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে শনিবার দুপুরে ঢোলভাঙ্গা বাজার এলাকা থেকে শামসুলকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে নিয়ে তার দেয়া তথ্য মতে অস্ত্র উদ্ধার ও তার অন্য সঙ্গীদের ধরতে রাতে অভিযানে যায় পুলিশ। এ সময় শামসুলকে ছিনিয়ে নিতে তার সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গুলিবিদ্ধ হন শামসুল হক। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


তিনি আরো বলেন, তার বিরুদ্ধে সদর, সাদুল্যাপুর ও পলাশবাড়ী থানাসহ বিভিন্ন থানায় হত্যা ও ডাকাতির ১১টি মামলা রয়েছে।


ময়মনসিংহ:


ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ফারুক মিয়া (৩০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার আঠারবাড়ী তেলওয়ারী গণ্ডি মোড় এলাকায় এ ঘ্টনা ঘটে।


জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) পরিমল দাস বলেন, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে ১০০টি ইয়াবা, সাতটি গুলির খোসা, একটি রামদা, একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। ফারুকের বিরুদ্ধে আটটি মাদকসহ প্রায় ১১টি মামলা আছে।


এসআই পরিমল জানান, রাত সোয়া ২টায় এলাকায় মাদক ভাগাভাগির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালায় ঈশ্বরগঞ্জ থানা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপসহ এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। পুলিশের দল আত্মরক্ষার জন্য পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির একপর্যায়ে আসামিরা পালিয়ে যায়। এলাকা তল্লাশি করে মাদক ব্যবসায়ী ফারুক মিয়াকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


বিবার্তা/শান্ত/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com