নরসিংদীতে পাসপোর্ট করতে গিয়ে ৪ রোহিঙ্গা আটক
প্রকাশ : ৩১ মে ২০১৮, ২৩:৩৬
নরসিংদীতে পাসপোর্ট করতে গিয়ে ৪ রোহিঙ্গা আটক
নরসিংদী প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

নরসিংদীতে পাসপোর্ট করতে আসা ৪ রোহিঙ্গা নারীকে আটক করেছে জেলা ডিএসবি পুলিশ। তাদের পাসপোর্ট দিতে কর্মকর্তাদের যোগসাজশ রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার তাদের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে।


পুলিশ জানায়, বুধবার বিকাল শহরের দগরিয়া এলাকায় আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে পাসপোর্ট আবেদনের প্রাক নিবন্ধন স্লিপ উদ্ধার করা হয়।


আটককৃতরা হলেন- মিয়ানমারের মন্ডুব জেলার বশরিজাদ এলাকার হামিদ উল্লাহের মেয়ে নূর বিবি (১৪), একই এলাকার মামু সুলতানের মেয়ে রাশিদা বেগম (১৬), দোলদারী জেলার চকরিয়া এলাকার ছলিম উল্লাহের মেয়ে আমিনা বেগম (২৩) এবং মন্ডু জেলার গুদুছড়া এলাকার মোহাম্মদ হোসেনের মেয়ে আনোয়ারা বেগম।


নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার কামরাব এলাকার ঠিকানা ব্যবহার করে ৪ রোহিঙ্গা নারী পাসপোর্ট করছেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে অভিযান চালায় জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা। এ সময় সন্দেহভাজন হিসেবে তাদের আটক করা হয়। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদে আসল পরিচয় বেরিয়ে আসে।


পুলিশ আরও জানায়, পাসপোর্টের আবেদন পত্রে সত্যায়ন করেন নোটারি পাবলিকের সনদপ্রাপ্ত স্থানীয় আইনজীবী রেজাউল করিম বাসেত। আবেদনপত্রে তার সত্যায়নটি অনেকটা অস্পষ্ট। এই অস্পষ্ট সত্যায়নের পরও আবেদনপত্রটি প্রাথমিকভাবে যাচাই বাছাই করেন নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক (এডি) জেবুন্নাহার বেগম। তার যাচাই বাছাইয়ের পর কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তারা ছবি ও ফিঙ্গার প্রিন্ট করে প্রাক নিবন্ধন করে থাকেন।


এ ব্যাপারে পাসপোর্ট কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক (এডি) জেবুন্নাহার বেগমের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়। পরে সরেজমিনে পাসপোর্ট কার্যালয়ে সাংবাদিকরা গেলে এডি জেবুন্নাহার বেগম দেখা করতে রাজি হননি।


তবে পাসপোর্ট কার্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, পাসপোর্ট কার্যালয়ের অফিস সহকারি সুজন হাওলাদার ও কোষাধ্যক্ষ আরিফুল হক সুমনের সহযোগিতায় রোহিঙ্গা চার নারীর প্রাথমিক আবেদনপত্রে ছবি উঠানো ও ফিঙ্গার প্রিন্ট দেয়ার অনুমোদন দেয় এডি জেবুন্নাহার বেগম।


এ ব্যাপারে সুজন হাওলাদার ও আরিফুল হক সুমনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারাও কথা বলতে রাজি হননি।


সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সৈয়দুজ্জামান জানান, যথা সম্ভব রোহিঙ্গারা দালালের মাধ্যমে পাসপোর্ট করতে এসেছিল। গোপনে খবর পেয়ে পুলিশ তাদের আটক করে। তাদের কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে পাঠানো হয়েছে।


বিবার্তা/শরীফ/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com