পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত কুয়াকাটা
প্রকাশ : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:১৯
পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত কুয়াকাটা
কলাপাড়া প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বসন্তের উথাল-পাথাল উদাসী হাওয়ায় পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকত এখন হাজারো পর্যটকের পদচারনায় মুখরিত। ভালবাসা দিবসে ফাল্গুনের রঙে যেন আরো মধুর করে তুলেছিল প্রকৃতির এই নৈসর্গিক সৌন্দর‌্য।


শান্ত সমুদ্র, রোদেলা বেলাভূমি, ইকোপার্ক, ইলিশ পার্ক, শ্রীমঙ্গল ও সীমা বৌদ্ধ বিহার, ফাতরারবন, লেবুর চর, গঙ্গামতির, কাউয়ার চর, শুটকি আর রাখাইন পল্লীতে দেশী-বিদেশী নানা বয়সী পর্যটকদের ক্লান্তিহীন ঘোরাঘুরি।


সমুদ্র তরঙ্গে নেঁচে গেয়ে উল্লাস করছেন কেউ কেউ। সমুদ্রস্নানের সেই মুহুর্ত সেলফিতে ধারণ করে ফেসবুকে আপলোড করছেন অনেকে। কেউবা স্পিডবোট যোগে ঘুরে আসছেন সমুদ্রের অনেক দূর পর‌্যন্ত।


শীতের হিমেল পরশ লেগে থাকা ফাগুনের প্রথম দিনে, প্রকৃতির ছোঁয়ায় দুঃখ-বেদনা, ক্লান্তি-শ্রান্তি ভুলে পর্যটকরদের আনন্দ-উম্মাদনায় পুরো সৈকত জুড়ে বিরাজ করছে এক উৎসব মুখর পরিবেশ।


পর্যটক ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় ট্যুরিষ্ট পুলিশের পাশাপাশি মহিপুর থানা পুলিশ ও নৌ-পুলিশ বিভিন্ন পয়েন্টে টহল রয়েছে।


স্থানীয় পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যাসায়ীদের কাছ থেকে জানা যায়, সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত, সমুদ্রের ঢেউ আর লাল কাকড়ার অবাধ বিচরণের জন্য সাগরকন্যা কুয়াকাটা দিনদিন হয়ে উঠেছে পর্যকদের প্রিয়ে একটি স্থান। রয়েছে উপজাতি রাখাইন সম্প্রদায়ের জীবনাচার ও সংস্কৃতির সেতুবন্ধন, সুন্দরবনের একাংশ ফাতরার বনের দৃশ্য উপভোগের সুযোগ।


সারা বছরই পর্যকদের আনাগোনা থাকলে বছরের এই সময়ে এখানে জমে ওঠে ভ্রমণপিয়াসীদের আনন্দ। আর এভাবেই দুরদুরান্ত থেকে ছুটে আসা পর্যটকদের আগমনে রাখাইন মার্কেট, ঝিনুকের দোকান, খাবারঘর, চটপটির দোকানসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেনাকাটার ধুম পরে গেছে।


কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরীফ বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হওয়ায়, সার্বিক দিক দিয়ে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের নিরপত্তা ব্যবস্থা ভাল থাকায় প্রতিদিনই পর্যটকদের উপস্থিতি বাড়ছে।


শিকদার রিসোর্ট এন্ড ভিলার জেনারেল ম্যানেজার জয়নাল আবেদীন চোকদার বলেন, যে পরিমান পর্যটকের উপস্থিতি কুয়াকাটায় বাড়ছে সে তুলনায় এখানে হোটেল-মোটেলে সংখ্যা কম। তাছাড়া রাতের বেলা সৈকতে আলোর ব্যবস্থা নেই। বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান তিনি।


কুয়াকাটা টুরিস্ট পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম জানান, পর্যটকদের নিরাপত্তার স্বার্থে বিভিন্ন পয়েন্টে তাদের ট্যুরিস্ট পুলিশের টহল অব্যাহত রয়েছে।


বিবার্তা/উত্তম/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com