নাটোরে শিশু ধর্ষণ: সেই চিকিৎসক আত্মগোপনে
প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৬:২২
নাটোরে শিশু ধর্ষণ: সেই চিকিৎসক আত্মগোপনে
নাটোর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় নয় বছরের এক শিশু ধর্ষণের অসঙ্গতিপূর্ণ মেডিকেল রিপোর্ট প্রদানকারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শিখা রাণী আত্মগোপনে রয়েছেন। এমনকি তার মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। তিনি বর্তমানে অফিস করছেন না বলেও জানা গেছে।


এমনকি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা পরিতোষ কুমার রায়ও শিশুটির ধর্ষণের কথা অস্বীকার করেছেন।


উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরীক্ষা করার পর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুটি মানসিক রোগী এবং সে ধর্ষিত হয়নি! এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিশুটির পরিবারের সদস্যরা ও স্কুলের শিক্ষকেরাও। মেয়েটির স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন, শিশুটি মানসিক রোগী নয়।


এদিকে শিশুটির পরিবার জানিয়েছে, আসামিরা মামলা উঠিয়ে নেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে তাদের হুমকি দিচ্ছে।


উপজেলার বনপাড়া পৌরশহরের পূর্ব হারোয়া এলাকার প্রতিবেশী চাঁন প্রামাণিকের ছেলে মাহবুর রহমান (১৬) ২৪ জানুয়ারি দুপুর ১২টার দিকে তার মেয়েকে সাইকেল চালানো শিখানোর কথা বলে ধর্ষণ করে। ওই দিন বিকেলেই শিশুটির বাবা বাদী হয়ে বড়াইগ্রাম থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।


শিশুটির বাবা অভিযোগ করেন, পরের দিন দুপুর দেড়টার দিকে ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শিখা রাণী শিশুটির মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করেন। অথচ মেডিকেল রিপোর্টে তারিখ দেখানো হয়েছে আগের দিন ২৪ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া দেয়া হয়েছে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন অ্যান্টিবায়োটিক ও ব্যাথানাশক ঔষধ, বুকের নিচের অংশে কালো দাগ রয়েছে এবং মানসিক অবস্থা খারাপ বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি।


বিবার্তা/শুভ/জাকিয়া


>>ধর্ষণের অভিযোগ বাবা-মার, প্রতিবেদনে অস্বীকার!


>> শিশু ধর্ষণের রিপোর্টে অসঙ্গতি, পর্যালোচনার দাবি বাবার

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com