তাপমাত্রা বাড়লেও দিনাজপুর কনকনে শীত
প্রকাশ : ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ১১:৪৯
তাপমাত্রা বাড়লেও দিনাজপুর কনকনে শীত
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

তাপমাত্রা বাড়লেও ঘন কুয়াশা আর কনকনে শীতে কাঁপছে উত্তরের জনপদ দিনাজপুর। এখনো হিমালয়ের পাদদেশ থেকে নেমে আসা শৈত প্রবাহ ও হিমেল হাওয়া বইছে। ফলে শীতের তীব্রতা বেশি অনুভুত হচ্ছে।


দিনাজপুর আবহাওয়া অফিস শনিবার সর্বনিন্ম তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে ৮ দশমিক ০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আদ্রতা ১০০ শতাংশ। জেঁকে বসা কনকনে শীতে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে পড়েছে শিশু ও বয়স্করা। তারা ঠাণ্ডজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। হাসপাতালে বেড়ে চলেছে শিশু ও বয়স্ক রোগী সংখ্যা।


প্রচণ্ড শীতে যবুথবু অবস্থা এ জেলার মানুষের। বিশেষ করে শ্রমজীবী মানুষের বেড়েছে দুর্দশা। ঠান্ডার কারণে বের হতে পারছেন না তারা ঘরের বাইরে। শীত ও তীব্র শৈত্য প্রবাহে নাকাল হয়ে পড়েছে হতদরিদ্র-ছিন্নমূল মানুষ। শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকেই খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছেন। ঘন কুয়াশার কারণে দিনের বেলাতেও রাস্তায় যানবাহন চালাতে হচ্ছে হেড লাইট জ্বালিয়ে। এরপরও বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা।



দিনাজপুর জেলার শীতার্ত মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসন প্রায় ৭৭ হাজার পিস শীতবস্ত্র ও কম্বল এবং ৩ হাজার শুকনো খাবারের প্যাকেট বিতরণ করেছে। দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম।


প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণভাণ্ডার ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতর হতে প্রাপ্ত ও গত অর্থ বছরের জেরসহ ৭৯ হাজার ৪৭০ পিস শীতবস্ত্র ও কম্বল পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে এ পর্যন্ত জেলার ১৩ উপজেলায় শীতার্ত মানুষের মাঝে ৭৬ হাজার ৮২০ পিস কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া বিতরণ করা হয়েছে ৩ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার।


তিনি বলেন, বর্তমানে জেলায় ২ হাজার ৬৫০ পিস কম্বল এবং ১ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার মজুদ রয়েছে।


বিবার্তা/শাহী/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com