একাত্তরের এই দিনে মুক্তি পায় পিরোজপুর
প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ০১:৪১
একাত্তরের এই দিনে মুক্তি পায় পিরোজপুর
পিরোজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

আজ ৮ ডিসেম্বর, পিরোজপুর মুক্তদিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে নরপিশাচ পাকহানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত হয় পিরোজপুর।


জেলার ইতিহাসে এ দিনটি বিশেষ স্মরণীয় দিন। মুক্তিযুদ্ধের সময় পিরোজপুর ছিল মুক্তিযুদ্ধের নবম সেক্টরের অধীন সুন্দরবন সাব-সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত মেজর (অব.) জিয়াউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন এলাকা।


১৯৭১ সালের ৩ মে পিরোজপুরে প্রথম পাক বাহিনী প্রবেশ করে। শহরের প্রবেশদ্বার হুলারহাট নৌ-বন্দর থেকে পাক হানাদার বাহিনী প্রবেশের পথে প্রথমেই তারা মাছিমপুর ও কৃষ্ণনগর গ্রামে শুরু করে হত্যাযজ্ঞ। তারপর ৮ টি মাস স্থানীয় শান্তিকমিটির নেতা ও রাজাকারদের সহায়তায় বিভিন্ন এলাকায় সংখ্যালঘু ও স্বাধীনতা পক্ষের লোকজনদের বাড়ি-ঘরে আগুন দেয়া হয়। হত্যা করা হয় কয়েক হাজার মুক্তিকামী মানুষকে।


পিরোজপুরকে হানাদার মুক্ত করতে সুন্দরবনের সাব-সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত মেজর (অব.) জিয়াউদ্দিনের নির্দেশে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল ৭ ডিসেম্বর রাত ১০টায় পিরোজপুরের দক্ষিণপ্রান্ত পাড়েরহাট বন্দর দিয়ে শহরে প্রবেশ করে। মুক্তিবাহিনীর এ আগমনের খবর পেয়ে পাক হায়নারা শহরের পূর্বদিকের কঁচানদী দিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে পালিয়ে যায়।


মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকবাহিনী ও তাদের দোসররা পিরোজপুর অঞ্চলে প্রায় ৩৫ হাজার মানুষকে হত্যা করে। সম্ভ্রম লুটে নেয় প্রায় ৫ হাজার মা-বোনের। পিরোজপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে মুক্ত দিবস উদ্‌যাপন পরিষদ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।


কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে সকালে শহরের স্বাধীনতা চত্ত্বর থেকে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা সহকারে ভাগীরথী চত্ত্বরে শহীদ স্মৃতিস্তম্বে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে স্বাধীনতা মঞ্চে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মুক্তিযুদ্ধের চলচিত্র প্রদর্শন।


বিবার্তা/শুভ/আমিরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com