ভোলায় জলদস্যুদের গুলিতে চার জেলে গুলিবিদ্ধ, আটক চার
প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:৫৪
ভোলায় জলদস্যুদের গুলিতে চার জেলে গুলিবিদ্ধ, আটক চার
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ভোলার মেঘনা নদীতে জলদস্যুদের ছোড়া গুলিতে চার জেলে গুলিবিদ্ধ হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।


বুধবার (১৫ জানুয়ারি) ভোরে মেঘনার চর জহিরউদ্দিন এলাকায় নদীতে মাছ ধরার সময় জেলেদের অপহরণের চেষ্টা করে জলদস্যুরা। পুলিশ অভিযান চালালে জলদস্যুদের সাথে ঘন্টাব্যাপী বন্ধুকযুদ্ধ হয়। এসময় জলদস্যুদের ছোড়া গুলিতে চার জেলে গুলিবিদ্ধ হন।


গুলিতে আহত জেলেরা হলেন- চর জহিরউদ্দিন এলাকার সোনাপুর গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে জসিম উদ্দিন (৩৫), একই এলাকার মৃত মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে মো. ইউনুস (২২), মো. মোজাম্মেল হকের ছেলে বাচ্চু মিয়া (২৮) ও আব্দুল জলিলের ছেলে মো. মহসিন (৪৯)।


আটককৃত জলদস্যুরা হলো- লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরলক্ষী গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে মো. শামীম (৩০), একইগ্রামের ওয়ারেছ মিয়ার ছেলে মো. ওসমান (২৫), চর গজারিয়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে সোহেল (২৮) ও চর আবজাল গ্রামের আবুল কালামের ছেলে দিদার উদ্দিন (২৮)।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৫ জানুয়ারি) ভোরে মেঘনার চর জহিরউদ্দিন এলাকায় জলদস্যুরা ট্রলারযোগে মাছ ধরার সময় জেলেদের অপহরণ চেষ্টার খবর পায় পুলিশ। পরে দস্যুদের আটক করার জন্য একদল পুলিশ নদীতে অভিযান পরিচালনা করে।


এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জলদস্যুরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। জলদস্যুদের ছোড়া গুলিতে নদীতে মাছ ধরারত চার জেলে গুলিবিদ্ধ হয়। প্রায় ঘন্টাব্যাপী গোলাগুলির পর স্থানীয়দের সহায়তায় নদীর চারিদিক থেকে জলদস্যুবাহী একটি ট্রলার জব্দ করে পুলিশ। এসময় ওই ট্রলার থেকে চার জলদস্যুকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে বেশকিছু গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।


আটককৃতরা জানিয়েছে তারা তাদের ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র নদীতে ফেলে দিয়েছে। একই সময় জলদস্যুবাহী আরো একটি ট্রলার দ্রুত পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।


ভোলার চর জহিরউদ্দিন তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. ফিরোজ কবির জানান, সম্প্রতি ভোলার বিভিন্ন নদী থেকে জলদস্যুরা জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপন আদায় করে আসছিলো।


তিনি আরো জানান, আটককৃত জলদস্যুদের বিশাল একটি গ্রুপ রয়েছে। তারা বিভিন্ন দলে বিভক্ত করে চর জহিরউদ্দিন, আলেকজান্ডার ও রামগতি থানা এলাকার মেঘনা নদীতে দীর্ঘদিন থেকে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে আসছিলো।


বিবার্তা/জসিম/এসএ/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com