পরিশুদ্ধ নাটক করে লাভ নেই: মির্জা ফখরুল
প্রকাশ : ০৪ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:৫২
পরিশুদ্ধ নাটক করে লাভ নেই: মির্জা ফখরুল
যশোর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশের সবকিছুই এই সরকার শেষ করে দিয়ে এখন পরিশুদ্ধ হওয়ার নাটক করছে। এতে কোনো লাভ নেই। তারা যে দুর্নীতিবাজ, লুটপাটকারী, অর্থপাচারকারী তা স্বীকার করে নিয়ে এখন নিজেদের পরিশুদ্ধ করতে নাটক করছে।


তিনি বলেন, চুনোপুঁটি ধরে কোনো লাভ হবে না। দেশের মানুষ জানে, কারা আসল লুটপাটকারী, কার ইঙ্গিতে এসব অপকর্ম সংঘটিত হয়েছে।


সোমবার (৪ নভেম্বর) বিকেলে যশোর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।


তিনি আরো বলেন, সচেতনভাবেই এ সরকার দেশের ব্যাংক থেকে এক লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। আজ তারা ক্যাসিনোর মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে মালয়েশিয়া, ইংল্যান্ডে বাড়িঘর করছে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করছে।


৩০ ডিসেম্বরের ভোট ২৯ তারিখ রাতে সম্পন্ন করেছে দাবি করে তিনি বলেন, মানুষের মন থেকে এ সরকার হারিয়ে গেছে। ফলে জোরজবরদস্তি করে আর ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না। পৃথিবীর কোনো দেশে জোর করে কারো ক্ষমতায় চিরস্থায়ী হওয়ার নজির নেই। দেশের স্বাধীনতা বিপন্ন, মানুষের আজ বাক স্বাধীনতা নেই, সাংবাদিকরা লিখতে পারছে না।


যশোরে স্মরণসভার জন্যে মাঠ বরাদ্দ না দেয়ায় উষ্মা প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই সরকার বিএনপিকে ভয় পায়, ভয় পায় জননেতা তরিকুল ইসলামের অনুসারীদের। সেকারণে আজকের এই স্মরণসভাকে তারা চারদেয়ালের মধ্যে বন্দী করেছে।


তিনি বলেন, দেশনেত্রীকে সম্পূর্ণ বিনা অপরাধে প্রায় ২০ মাস কারাবন্দী করে রেখেছে সরকার। কেননা তিনি বাইরে থাকলে সরকার দেশের গণতন্ত্র, দেশের সার্বভৌমত্বকে বিকিয়ে দিতে পারতো না, তিনি বাইরে থাকলে ফেনী নদীর পানি দিতে পারতো না, তিস্তা নদীর হিস্যা আদায় হতো, আমদানিকৃত এলপিজি ভারতে রফতানি করতে পারতো না।


তিনি বলেন, এ সরকার উন্নয়নের নামে তামাশা করছে। মেগা প্রজেক্টের নামে এখন মেগা লুটপাট করা হচ্ছে। দেশ আজ ভয়াবহ দুঃশাসনের মধ্যে চলছে। তারা আমাদের বুকের উপর পাথর হয়ে চেপে বসে আছে। এই জঞ্জাল কেউ এসে সরিয়ে দেবে না; আমাদেরকেই সরাতে হবে।


তরিকুল ইসলামের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন স্মরণ করে তিনি বলেন, তরিকুল ইসলাম ও আমি এই রাজনৈতিক স্কুলের সহপাঠী ছিলাম। তিনি সারাটা জীবন এদেশের কৃষক-শ্রমিক, মেহনতি মানুষের মুক্তির স্বপ্ন দেখেছেন। তিনি ছিলেন আপাদমস্তক একজন রাজনীতিক। তার চলনে বলনে সবকিছুতেই ছিল রাজনীতির সুস্পষ্ট ভাব।


তিনি বলেন, জননেতা তরিকুল ইসলামের দেখানো পথ দিয়ে আমরা তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্র, সার্বভৌমত্বের প্রতীক দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ছিনিয়ে আনবো।


জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগমের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় বক্তব্য দেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহাজাহান, শামছুজ্জামান দুলু, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মশিউর রহমান, মেহেদী হাসান রুমী, খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মঞ্জুসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ।


বিবার্তা/তুহিন/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com