ঢাবিতে নম্বরে গড়মিল, খাতা দেখতে চাওয়ায় হুমকি!
প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:২৪
ঢাবিতে নম্বরে গড়মিল, খাতা দেখতে চাওয়ায় হুমকি!
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ফার্মেসি অনুষদের ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে পরীক্ষার খাতায় নম্বর গড়মিলের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা খাতা দেখতে চাওয়ায় তাদের হুমকি দেয়া হয়েছে- এমন অভিযোগ এনে বিভাগের চেয়ারম্যান বরাবর খাতা দেখানোর আবেদন করেছেন।


ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকোত্তর শ্রেণির ‘পিএচটি ৬০২’ ও ‘পিইচটি ৬০২’ কোর্সের দ্বিতীয় ইনকোর্স পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে। আর এ কোর্সগুলোর শিক্ষক ছিলেন বিভাগের অধ্যাপক ড. আবু সারা শামসুর রউফ।


কোর্স দুটির ইনকোর্সের ফলাফলের কপি বিবার্তার কাছে এসেছে। আর এতে দেখা যায়, দুজন শিক্ষার্থী ব্যতীত কোর্সগুলোতে অধিকাংশ শিক্ষার্থীর রেজাল্টের অবস্থা সন্তোষজনক নয়। কোর্সগুলোতে অর্পিতা রায় ও দীপঙ্কর কুমার শীল নামের দুইজন শিক্ষার্থী ভালো করেছেন। ৬০২ নং কোর্সে অর্পিতা রায় ২০ নম্বরের মধ্যে পেয়েছেন ১৫, দীপঙ্কর কুমার শীল পেয়েছেন ১৭। এ কোর্সে এই দুইজন ছাড়া অধিকাংশ শিক্ষার্থী ১০ নম্বরের নিচে পেয়েছেন।


৬০৬ নং কোর্সেও একই অবস্থা। ৬০২ এ ভালো করা দুইজন শিক্ষার্থী এ কোর্সেও ভালো করেছেন। এ কোর্সে অর্পিতা রায় ২০ এ পেয়েছেন ১৫.৫ আর দীপঙ্কার কুমার শীল পেয়েছেন ১৮ । এ কোর্সেও এ দুইজন ছাড়া অধিকাংশ শিক্ষার্থী ১০ এর নিচে পেয়েছেন।


দুটি কোর্সে ভালো করা শিক্ষার্থী অর্পিতা রায় ও দীপঙ্কার কুমার শীল অভিযুক্ত শিক্ষক অধ্যাপক ড. আবু সারা শামসুর রউফের থিসিসের শিক্ষার্থী। এ কারণে এ দুজনের রেজাল্ট নিয়ে বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রশ্ন তুলছেন।



শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী ইনকোর্স পরীক্ষার খাতা দেখার অধিকার শিক্ষার্থীদের রয়েছে। তাই তারা প্রত্যাশিত ফলাফল না পেয়ে ইনকোর্সগুলোর খাতা দেখতে চেয়েছে। কিন্তু কোর্স শিক্ষক অধ্যাপক আবু সারা শামসুর রউফ তাতে সম্মত না হয়ে উল্টো তাদের হুমকি দিয়েছেন। এ কারণে তারা নয়জন শিক্ষার্থী সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সৈয়দ সাব্বির হায়দার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।



লিখিত আবেদনের কপিটিও বিবার্তার হাতে এসেছে। আবেদনে শিক্ষার্থীরা বলেছেন, দুটি কোর্সে তাদের নম্বর আশানুরূপ হয়নি। তাদের দৃঢ় বিশ্বাস, তারা প্রাপ্ত নম্বরের চেয়ে বেশি নম্বর পাওয়ার যোগ্যতা রাখেন। দুটি কোর্সের অসামঞ্জস্যপূর্ণ নম্বরের জন্য তাদের চূড়ান্ত ফলাফল হুমকির মুখে পড়েছে।


খাতা দেখতে চাইলে কোর্স শিক্ষক তাতে অপারগতা প্রকাশ করেন এবং হুমকি প্রদর্শন করেন। শিক্ষার্থীরা চেয়ারম্যানের কাছে দুটি কোর্সের পরীক্ষার খাতা দেখানোর ব্যবস্থা ও প্রয়োজনে পুনর্মূল্যায়নের আবেদন করেছেন।


এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সৈয়দ সাব্বির হায়দার বিবার্তাকে বলেন, আবেদনপত্রটি পেয়েছি। এ ব্যাপারে একাডেমিক মিটিংয়ে বসে বিধি মোতাবেক করণীয় ঠিক করা হবে।


তবে এ বিষয়ে জানতে কোর্স শিক্ষক অধ্যাপক ড. আবু সারা শামসুর রউফকে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।


বিষয়টি জানানো হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান খতিয়ে দেখবেন বলে বিবার্তাকে জানিয়েছেন।


বিবার্তা/রাসেল/উজ্জ্বল/তাওহীদ/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com