বিশ্বের অতি গরমের ১০ দেশ
প্রকাশ : ২২ জুন ২০১৯, ১২:৫৭
বিশ্বের অতি গরমের ১০ দেশ
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আবহাওয়ার গতিপ্রকৃতিও পরিবর্তন হচ্ছে। শীতের দেশেও অনেক সময় নাভিশ্বাস উঠায় গরম। পৃথিবীর অতি গরমের ১০টি দেশের তালিকা করেছে ‘স্কাইমেট ওয়েদার’।


এগুলো হলো:


সুদান: আফ্রিকার দেশ সুদানে বছরজুড়েই গরম থাকে। এমনকি বৃষ্টির মধ্যে সেখানে ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা উঠে। মরুর দেশ সুদানে গড় তাপমাত্রা থাকে ৫২ ডিগ্রি। একেবারে কম বৃষ্টিপাত হওয়ায় গরমে বেশি নাভিশ্বাস উঠে।


ওমান: আরবের ধনী দেশ ওমান। অতি উষ্ণ দেশ হিসেবেও এটি আছে প্রথম সারিতে। বছরের পাঁচ থেকে ছয় মাস এখানে তাপমাত্রা ৫০-৫৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকে। দেশটির বেশির ভাগ জায়গাই এয়ার-কন্ডিশনড।


ইরাক: যুদ্ধের বাইরে অন্য অনেক সমস্যা মোকাবেলা করে ইরাক। এর মধ্যে একটি বড় সমস্যা অধিক তাপমাত্রা। গরমের দিনে এখানকার তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রি থেকে শুরু করে ৫৪ ডিগ্রিতে ছাড়িয়ে যায়। উত্তরের পর্বত এলাকায় বরফ পড়লেও পুরো দেশে তাপমাত্রা থাকে অসহনীয়।



ভারত: বহু রকম আবহাওয়া প্রত্যক্ষ করা হয় ভারতে। দেশটির হিমালয় এলাকায় তাপমাত্রা মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নামে। আর রাজস্থানের মতো মরু এলাকায় তাপমাত্রা উঠে ৪৮ ডিগ্রি পর্যন্ত।


মেক্সিকো: গ্রীষ্মে মধ্য আমেরিকার দেশ মেক্সিকোতে গড় তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠে থাকে। এমন তাপমাত্রার মধ্যও মেক্সিকোর কয়েকটি সমুদ্র সৈকত পৃথিবী অন্যতম শীর্ষ পর্যটক গন্তব্য।


মালয়েশিয়া: ১৩টি রাজ্য ও তিনটি প্রজাতান্ত্রিক এলাকা নিয়ে গঠিত পূর্ব-এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া। দেশটির তাপমাত্রায় নানাবিধ পরিস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। সারাবছর এখানে তাপমাত্রা থাকে ২৫-৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। আর কোনো কোনো সময় এটা ৪০ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠে।


আলজেরিয়া: উত্তর আফ্রিকার দেশ আলজেরিয়ার আবহাওয়া বিচিত্র রকম। এখানে যেমন ভয়াবহ উষ্ণ দিন হয়, তেমনি সবচেয়ে ঠাণ্ডা রাত পাওয়া যায়। মৃদু বৃষ্টিপাতের দেশটিতে তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে উঠে। শীতকালে আলজেরিয়ায় গড় তাপমাত্রা থাকে ২৫ ডিগ্রি। আর গ্রীষ্মকালে তাপমাত্রা থাকে অনেক শুষ্ক ও আর্দ্র।


সৌদি আরব: বেশিরভাগ অঞ্চল মরুভূমি হওয়ায় সৌদি আরবের তাপমাত্রা বেশি। বছরের বিভিন্ন সময়ে দেশটির তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠে। বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় তাপমাত্রা পরিবেশকে অসহনীয় করে তোলে। দিনের বেলা গরমের মাত্রা ৫২ ডিগ্রি পর্যন্ত ওঠা সেখানে খুব স্বাভাবিক ব্যাপার।



ইথিওপিয়া: পৃথিবীর অন্যতম উষ্ণ দেশ ইথিপিওয়া। দেশটির ‘দানাকিল ডিপ্রেসন’ মরুভূমির অবস্থান সমুদ্রপৃষ্ঠের একশ‘ মিটার নিচে অবস্থিত। এখানে হরহামেশা লু হাওয়া বয়ে যায় এবং ভূমিকম্প হয়। এমনও দিন আসে, তাপমাত্রা উঠে যায় ৬৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত।


লিবিয়া: লিবিয়ায় গরমের কারণে গ্রীষ্মে চামড়া পুড়ে যাওয়াসহ বিভিন্ন ধরনের রোগব্যাধি হয়ে থাকে। লিবীয় মরুভূমির দখলে দেশটির বড় অংশ। এখানকার শুষ্ক আবহাওয়া তাপমাত্রা প্রায় ৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠে। পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি তাপমাত্রার রেকর্ডও হয়েছিল লিবিয়া। ১৯২২ সালে লিবিয়ার তাপমাত্রা উঠেছিল ৫৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সূত্র: ডয়চে ভেলে


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com