২৩ এপ্রিল 'কেয়ামত' !
প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৩৭
২৩ এপ্রিল 'কেয়ামত' !
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আগামী ২৩ এপ্রিলই নাকি কেয়ামত হবে! ওই দিনই নাকি আকাশে দেখা যাবে সৌরজগতের দ্বাদশ গ্রহ নিবিড়ুকে। আর সেইদিনই ধ্বংস হবে আমাদের প্রিয় এ পৃথিবী !


কিন্তু সত্যিই কি এমন কিছু হবে?


প্রথমেই বলে ফেলা যাক, না। এমন কোনও ঘটনা যে ওইদিন ঘটবে না তা সকলেরই জানা। কেননা, এমন দাবি তো নতুন নয়। মাঝে-মাঝেই এমন অসম্ভব দাবির হাওয়াই সুর ভেসে আসে। যেমন, গত বছরের অক্টোবর, নভেম্বর - পর পর দু’মাসে পৃথিবী ধ্বংসের ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্বে’ বিশ্বাসীরা। ব্যাপারটা এখন এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, এখন আর লোকে ভয় তো পাচ্ছেই না, উল্টো এ নিয়ে হাসাহাসি শুরু হয়েছে। তবু বিরাম নেই ভবিষ্যদ্বাণীর।


'ওয়াশিংটন পোস্ট’-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, প্ল্যানেট এক্স তথা নিবিড়ু গ্রহের আবির্ভাবের সঙ্গেই অন্তিমকাল ঘনিয়ে আসবে পৃথিবীর - এই খবরকে নস্যাৎ করে দিয়েছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা। বলে রাখা প্রয়োজন যে, নিবিড়ু নামে সৌরজগতের কোনো অস্তিত্ব আছে - এ কথা মানতেই রাজি নয় নাসা।


কিন্তু নাসা নিবিড়ুর অস্তিত্ব মানতে না-চাইলেও তথাকথিত গ্রহটির আবির্ভাব নিয়ে বারে বারে সরব হয়েছে ‘ষড়যন্ত্র তত্ত্ব’-এর প্রবক্তারা। এই তত্ত্বের বিশ্বাসীদের ধারণা, রাষ্ট্র কিংবা কখনো-কখনো কোনো ক্ষমতাশালী গোষ্ঠী অনেক সময় বহু ঘটনাকে চেপে রাখতে চায়।


তাঁদের ধারণা, নাসা বা অন্যান্য মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইচ্ছাকৃতভাবেই নিবিড়ুর অস্তিত্বকে ‘অলীক’ বলে উড়িয়ে দিচ্ছে। নিবিড়ু মোটেই কাল্পনিক নয়। তা এই সৌরজগতেই আছে।


নিবিড়ু গ্রহ ও মায়া সভ্যতার এক বিশেষজ্ঞ জেমস ম্যাককেনির মতে, প্রায় ১০ হাজার বছর আগে পৃথিবীর বুক থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছিল সভ্যতা। কারণ, নিবিড়ু খুব কাছে চলে এসেছিল পৃথিবীর।


২৩ এপ্রিল পৃথিবীর ধ্বংসের সঙ্গে ষড়যন্ত্র তত্ত্বের বিশ্বাসীরা এবার মিলিয়ে দিয়েছেন যিশু খ্রিস্টকেও। বলা হচ্ছে, ওইদিন সূর্ষ, চাঁদ ও শুক্র এক সরলরেখায় আসবে। বাইবেলে বর্ণিত ‘র‌্যাপচার’ অর্থাৎ যিশুর প্রত্যাবর্তনকেও জড়িয়ে ফেলা হয়েছে তাদের বক্তব্যে।


পাঠকের মনে থাকতে পারে, পৃথিবী ধ্বংস হওয়া নিয়ে কম ভবিষ্যদ্বাণী হয়নি। ২০১২ সালের কথা অনেকেরই মনে থাকবে। তারও আগে কিংবা পরে, নানা সময়ে নানা কথা শোনা গিয়েছে। কিন্তু কোনোটাই সত্যি হয়নি। এবারেরটাও যে হবে না, তা এখনই হলফ করে বলে ফেলা যায়।


অবশ্য তার পর শুরু হবে অপেক্ষা, আবারও একটি তারিখের। দেখা যাক, ২৩ এপ্রিলের পরে আবার কোন দিনের কথা শোনায় ষড়যন্ত্রের তাত্ত্বিকরা। সূত্র : এবেলা


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com