ইল্লত যায় না ধুলে...
প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৭, ১৮:২২
ইল্লত যায় না ধুলে...
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ইল্লত যায় না ধুইলে/খাসলত যায় না ম’লে...। এ প্রবাদের জ্বলন্ত নজির চোখের সামনে এলে প্রণাম ছাড়া আর কী-বা করবেন ছাপোষা একজন পুলিশ অফিসার।


টুইটারে ভাইরাল একটি ছবি নিয়েই চলছে এমন আলোচনা। ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে নারী-পুরুষ-শিশু মিলিয়ে এক মোটরসাইকেলে যাত্রী পাঁচজন। আগে একাধিকবার একই বিষয়ে তিনি ধরা পড়েছেন। সতর্ক, জরিমানা কোনো কিছুতেই তার খাসলত পরিবর্তন হয়নি। অগত্যা করজোড়ে ক্ষমার ভঙ্গি করেই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন পুলিশ অফিসার।


ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী ছবিটি অন্ধ্র প্রদেশের অনন্তপুরে তোলা।


মঙ্গলবার এই ছবি টুইট করেছেন আইপিএস অফিসার অভিষেক গয়াল। কর্নাটক ক্যাডারের এই অফিসার সকাল ৭টায় এই টুইটটি করেন। তার পর থেকে ১ হাজার ৯০০ বার রিটুইট হয় সারাদিনে। অভিষেক তাঁর টুইটে লিখেছেন— এর থেকে বেশি আমরা কী করতে পারি? আমাদের সামনে একটা চয়েস থাকেই... নিরাপদটাই গ্রহণ করা ভালো!


যে পুলিশ অফিসারকে ছবিতে করজোড়ে দেখা যাচ্ছে, তার নাম বি সুভাষ কুমার। তিনি অনন্তপিরের মাদাকাসিরা সার্কেলে কর্মরত। তিনি ডিউটিরত অবস্থায় এই পরিবারটিকে বাইকে আরোহনরত অবস্থায় দেখতে পান। পরিবারের প্রধান, যিনি বাইক চালাচ্ছেন, তার নাম কে হনুমন্থরায়ডু।


সুভাষ কুমারের সঙ্গে এই পরিবারটির দেখা হয় ট্রাফিক আইন সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠানের শেষে।
খবরে জানা যায়, এর আগেও অসংখ্য বার ট্রাফিক আইন ভেঙেছেন। বহু বার তাকে জরিমানা করা হয়েছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। শেষমেশ এই পাঁচজনের হেলমেটহীন বাইক রাইডের সামনে তিনি নিজেকে আর ধরে রাখতে পারেননি। করজোড়ে প্রণাম জানান সুভাষ। তার মতে, এ ছাড়া তার আর কিছুই করার ছিল না।


বিবার্তা/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com