বিজয় উল্লাসে মাতোয়ারা ফ্রান্স, শামিল প্রবাসী বাংলাদেশীরাও
প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৮, ০৩:৪৪
বিজয় উল্লাসে মাতোয়ারা ফ্রান্স, শামিল প্রবাসী বাংলাদেশীরাও
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু হয় ১৯৩০ সালে। আর রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮ ছিলো ২১তম আসর। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত আটটি দল শিরোপা জিতেছে।


১৯৯৮ সালে প্রথমবারের মতো শিরোপা ঘরে তুলেছিল ফ্রান্স। এর মধ্যে ব্রাজিল পাঁচবার, জার্মানি চারবার, ইতালি চারবার, আর্জেন্টিনা দুইবার, উরুগুয়ে দুইবার, ফ্রান্স দুইবার, ইংল্যান্ড একবার, স্পেন একবার করে শিরোপা ঘরে তুলেছে। তবে এবার ৪৪ বছর পর ফাইনালে আবার গোলের বন্যা দেখল বিশ্ব।প্রথমবার ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক ছিলেন জিনেদিন জিদান।



২০ বছর পর দেশম আবার জিতলেন বিশ্বকাপের শিরোপা। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ ফাইনালের শিরোপা জয়ের পর উৎসবের নগরীতে রূপ নিয়েছে ফ্রান্সের অলিগলি। উৎসবে শামিল হয়েছেন সেখানে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীরাও।


১৪ জুলাই ছিল ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস। এর ঠিক পরের দিনই বিশ্বকাপ জিতলো ফরাসিরা। কিলিয়ান এমবাপ্পে, অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যানের মতো তরুণ তুর্কিদের চোখ ধাঁধানো নৈপুন্যে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে নিয়েছে তারা।


সকালে যখন মস্কোর তাপমাত্রা ২৬-২৭ তখন এখানে প্রবাসী এক বাংলাদেশীবলেছিলেন ‘আজ বৃষ্টি হবে'। স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় যখন খেলা শুরু হলো তার অনেক আগে থেকেই মুখ ভার করেছিল মস্কোর আকাশ। সেই বৃষ্টি নেমেছে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান চলাকালে।



রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আর ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিনদা গ্রাবার কিতারোভিচকে সাথে নিয়ে ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো যখন মঞ্চে উঠলেন তার কিছু সময়ই পরই বৃষ্টি শুরু হলো আকাশ ভেঙ্গে। এমনই বৃষ্টি যে ছাতা দিয়েও মাথা বাচাতে পারলেন না অতিথিরা।


ফ্রান্স থেকে ফারুক আহমেদ বলেন, ‘ফ্রান্সের ফুটবল বরপুত্র জিনেদিন জিদানের দেখানো পথেই হাঁটলো তারুণ্য নির্ভর দলটি। যেন এক উৎসবের নগরীতে রূপ নিয়েছে ফ্রান্স। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে অলিগলি। আগের দিনের স্বাধীনতা দিবসের উৎসব আরবিশ্বকাপ জয়; প্রবাসীরাও শামিল হয়েছেন উৎসব আনন্দে।’



ফাইনালে উঠার পর থেকেই তৈরি ছিলো মঞ্চ, ছিলো সব কিছু সাজানো। শুধু অপেক্ষা ছিল শিরোপা হাতে পাওয়ার। জায়ান্ট স্ক্রিনে খেলা দেখেছেন লাখো মানুষ, সাক্ষী হয়েছেন নতুন ইতিহাসের। এরপর রাত-ভর আনন্দ উৎসব।


বিবার্তা/শারমিন/শাহনাজ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com