আফগানদের কাছে ধরাশায়ী টাইগাররা
প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২২:২৬
আফগানদের কাছে ধরাশায়ী টাইগাররা
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে আফগানদের কাছে ২৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করে আফগানরা। আফগানদের দেয়া ১৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৩৯ রানে অলআউট হয় স্বাগতিকরা।


ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়াটা যেন অভ্যাসে পরিণত হয়ে গেছে বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানদের। ওপেনিংয়ে লিটন দাসের সঙ্গে দেখা গেল মুশফিকুর রহীমকে। মুশফিক ব্যাটিং পর্যন্ত যেতে পারলেন না, তার আগেই ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই মুজিবুর রহমানকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ আউট হন লিটন দাস (০)।


মুশফিকও নতুন ব্যাটিং অর্ডারে মানিয়ে নিতে পারেননি। ৩ বলে ৫ রান করেই পেসার ফারিন আহমেদকে স্কুপ করতে গিয়ে বোল্ড হন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।


চাপ কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছিলেন সাকিব আল হাসান। ১৩ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১৫ রান করে তিনিও ধরেন সেই পথ। মুজিব উর রহমানের ওই ওভারেই গোল্ডেন ডাকে ফেরেন সৌম্য সরকার। এরপর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৪৪ রান করে কিছুটা চাপ কাটানোর চেষ্টা করলেও কোন লাভ হয়নি।


কারণ মাহমুদুল্লাহর আউট হওয়ার পর বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা শুধু আসা-যাওয়াই করেছেন। গত ম্যাচে জিম্বাবুয়ের সাথে দুর্দান্ত খেলা আফিফ হোসেনও আজ ব্যর্থ। এর আগে মোহাম্মদ নবীর ৫৪ বলে ৮৪ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংসে ৬ উইকেটে ১৬৪ রান তুলেছে আফগানিস্তান।


মিরপুরে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চাপে পড়েছিল আফগানিস্তান। ইনিংসের প্রথম ডেলিভারি, আফগানিস্তানের ওপেনার রহমানউল্লাহ গুরবাজ বলটা ডিফেন্সই করেছিলেন। কিন্তু মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন এমনই আনপ্লেয়বল এক ডেলিভারি দিলেন, ডিফেন্ড করেও উইকেটটা ধরে রাখতে পারলেন না আফগান ওপেনার।


সাইফউদ্দীনের আউটসুইং ডেলিভারিটি উইকেটে লেগে স্ট্যাম্প কয়েক চক্কর ঘুরতে ঘুরতে বাতাসে ভাসতে থাকে। আসলেই চোখ ধাঁধিয়ে দেয়ার মতো এক ডেলিভারি, বিস্ময়ে তাকিয়ে রইলেন সবাই।


শুরুতে উইকেট হারিয়েও অবশ্য থেমে থাকেনি আফগানিস্তান। দ্বিতীয় ওভার চলছিল তখন। সাকিবের চতুর্থ বলটি তুলে মারতে গিয়েছিলেন আরেক ওপেনার হজরতউল্লাহ জাজাই। কিন্তু বল অনেক ওপরে ওঠলেও সীমানা দড়ি পর্যন্ত যায়নি, ১ রানেই লিটন দাসের ক্যাচ হন জাজাই।


তৃতীয় ওভারে এসে আরও এক উইকেট তুলে নেন সাইফউদ্দীন। ১৩ বলে ১১ রান করে নাজিব তারাকাই লেগ সাইডের বাউন্ডারিতে হন সাব্বির রহমানের ক্যাচ।


তৃতীয় উইকেটে একটু প্রতিরোধ নাজিবুল্লাহ জাদরান আর আসগর আফগানের। তাদের ১৭ বলে ২১ রানের জুটিটি ভাঙেন সাকিব, নাজিবুল্লাহকে (৫) মিডঅফে সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানিয়ে। ৪০ রানে ৪ উইকেট হারায় আফগানিস্তান।


সেখান থেকে বড় এক জুটি মোহাম্মদ নবী আর আসগরের। ৫৩ রানেই এই জুটিটি আটকে যেতে পারতো। তাইজুল ইসলামকে তুলে মারতে গিয়ে বাউন্ডারিতে ক্যাচ হয়েছিলেন আসগর। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে ওভারস্টেপিংয়ের কারণে সেই বলটি 'নো' হয়ে যায়।


নবী-আফগানের এই জুটিটিই ঘাম ঝরিয়েছে টাইগারদের। ৬২ বলে ৭৮ রান যোগ করেন তারা। ১৭তম ওভারে আবারও সাইফউদ্দীনের হাতে বল তুলে দেন সাকিব।


আর বল হাতে নিয়েই আরেকবার ঝলক দেখান এই অলরাউন্ডার। ৩৫ বলে ৪০ রান করা আসগরকে সাব্বিরের ক্যাচ বানান দ্বিতীয় বলে, পঞ্চম বলে দুর্দান্ত এক ইনসুইংগারে বোল্ড করেন গুলবাদিন নাইবকে (০)।


তবে নবী ঠিকই হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন, ৪১ বলে। পরের সময়টায় তো আরও ভয়ংকর হয়ে উঠেন। আফগানিস্তানের বড় সংগ্রহ গড়ার কারিগর ছিলেন আসলে এই অলরাউন্ডারই। ৫৪ বলে ৮৪ রানে অপরাজিত থাকেন নবী, যে ইনিংসে ৩টি চারের সঙ্গে তিনি হাঁকিয়েছেন ৭টি ছক্কা!


বাংলাদেশের পক্ষে বল হাতে ৩৩ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন সাইফউদ্দীন।


বিবার্তা/আবদাল/জহির


>>ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com