এক বছরেও আলোর মুখ দেখেনি ভাষা ও আইসিটি দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প
প্রকাশ : ১০ মার্চ ২০১৯, ১৬:০৩
এক বছরেও আলোর মুখ দেখেনি ভাষা ও আইসিটি দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

আওয়ামী লীগ সরকার দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর শিক্ষার্থী ও বেকার যুবকদের জন্য সারা দেশে বিদেশি ভাষা প্রশিক্ষণের একটি প্রকল্প চালু করেছিল। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২০১৭ সালে ওই প্রকল্পটি বেশ সুনামের সাথে সম্পন্ন হয়।


পরবর্তীতে ২০১৮ সালে ভাষা ও আইসিটি দক্ষতা উন্নয়ন নামে আরো একটি প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করে সরকার। প্রকল্পটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দহীন প্রকল্পের তালিকায় এক নম্বরেও রাখা হয়েছিল। কিন্তু মাউশির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার পরিচালক ড. জাহাঙ্গীর হোসেনর কারণে এখনো আলোর মুখ দেখেনি ওই প্রকল্পটি।


শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বিদেশে কর্মরত শ্রমিকদের একটা বড় অংশ অদক্ষ হওয়ার কারণে ন্যায্য মজুরি থেকে বঞ্চিত হন। বিদেশে গিয়েই শ্রমিকেরা প্রথমেই যে সমস্যায় পড়েন তা হলো ভাষাগত সমস্যা। এই সমস্যা দূর করতে সরকার ২০০৮ সালে ফরেন ল্যাঙ্গুয়েজ ট্রেনিং সেন্টার (এফএলটিসি) প্রকল্পটি চালু করে।


ওই প্রকল্পের আওতায় সারা দেশে ৩০টি কেন্দ্রে ইংরেজি, আরবি, কোরীয়, ফরাসি, জাপানি প্রভৃতি ভাষা প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রকল্পটির মাধ্যমে প্রায় ৩০ হাজার প্রশিক্ষণার্থী বিভিন্ন ভাষায় প্রশিক্ষণ লাভ করে। যাদের মধ্যে সেনা, নৌ ও পুলিশ বাহিনীর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য রয়েছে। কিন্তু ২০১৭ সালে প্রকল্পটি সম্পন্ন হওয়ার পর ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে মন্ত্রণালয় থেকে ভাষা ও আইসিটি দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প নামে আরো একটি প্রকল্প চালু করার দিক নিদের্শনা দেয়া হয়।


প্রস্তাবিত ওই প্রকল্পে সারা দেশে ২৯৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ও বেকার যুবকদের বিদেশি ভাষা এবং আইটি প্রশিক্ষণের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ ২৯টি, মাদ্রসা একটি, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইরস্টিটিউট একটি, সরকারি স্কুল পাঁচটি, বেসরকারি স্কুল ৩৮টি, সরকারি কলেজ ছয়টি, বেসরকারি কলেজ ১০টি, মাদ্রসা তিনটি ও কারিগরি প্রতিষ্ঠান দুটি। ওইসব প্রতিষ্ঠানগুলোতে ৩১টি বিদেশি ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব, ২০০০টি আইসিটি ল্যাব, ৬৪টি বিদেশি ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব, ২০০টি আইসিটি কাম ল্যাংগুয়েজ ল্যাব চালু করার নিদের্শনা দেয়া হয়েছে।


কিন্তু এখনো পর্যন্ত ভাষা ও আইসিটি দক্ষতা উন্নয়ন নামের প্রস্তাবিত প্রকল্পটি ফাইল বন্দি করে রেখেছেন মাউশির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার পরিচালক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন।


এদিকে প্রকল্পটি চালু না হওয়ায় ফরেন ল্যাঙ্গুয়েজ ট্রেনিং সেন্টার (এফএলটিসি) নামের যে প্রকল্পটি সম্পন্ন হয়েছে, সেই প্রকল্পের আওতায় স্থাপিত ৩০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের যন্ত্রপাতি নষ্ট হচ্ছে। প্রকল্পটির ডিপিপির সংস্থান মোতাবেক ৩০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের জন্য ১২০টি পদ সৃষ্টির একটি প্রস্তাবও মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখায় পরে আছে দীর্ঘদিন যাবত। এ প্রস্তাবটি অনুমোদিত হলেও ভাষা প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখা যেত মর্মে প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।


এছাড়াও বিশ্ব বন্ধু কোরিয়া স্বেচ্ছাসেবী প্রোগ্রাম নামের একটি সংস্থা প্রকল্পটিতে কোরিয়া ভাষা প্রশিক্ষক সরবরাহের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এতে বাংলাদেশ সরকারের কোনো আর্থিক সংশ্রব নেই। ২০০৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত উক্ত সংস্থার ২৪ জন স্বেচ্ছাসেবক সমাপ্ত প্রকল্পে কোরিয়ান ভাষা প্রশিক্ষণের দায়িত্ব পালন করে এবং ১০ হাজারের অধিক প্রশিক্ষণার্থী কোরিয়ান ভাষা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।


সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৪ সালে অগ্নি সন্ত্রাস শুরু হওয়ার পর কোরিয়ান স্বেচ্ছাসেবকদের প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। একাদশ সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে স্থিতিশীলতা ফিরে আসায় ওই সংস্থা পুনরায় স্বেচ্ছাসেবক সরবরাহের আগ্রহ প্রকাশ করে। গত ৬ মার্চ এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি এবং এ মাসের মধ্যেই নির্ধারিত ছকে আবেদন করার কথা রয়েছে। কিন্তু প্রকল্পটি চালু না হওয়া বা প্রস্তাবিত পদ সৃষ্টি না হওয়ায় স্বেচ্ছাসেবকের মাধ্যমে কোরিয়ান ভাষা প্রশিক্ষণের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা।


তবে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মাউশির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার পরিচালক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বিবার্তাকে বলেন, এই প্রকল্পের দায়িত্ব যে কর্মকর্তা ছিলেন তিনি অন্য একটি প্রকল্প করার কারণে সেখান থেকে উনাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পরবর্তীতে বিকল্প হিসেবে একজন জুনিয়র অফিসারের কাছে এই প্রকল্পের কাজ দেয়া হয়েছে। উনি কাজ করছেন। যত দ্রুত সময়ের মধ্যে ফাইলটির কাজ শেষ করে মন্ত্রণালয়ের পাঠিয়ে দেব।


বিবার্তা/খলিল/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

বি-৮, ইউরেকা হোমস, ২/এফ/১, 

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com