যশোরে চাকরি মেলায় প্রার্থীদের ঢল
প্রকাশ : ০৫ অক্টোবর ২০১৭, ১৮:৩৩
যশোরে চাকরি মেলায় প্রার্থীদের ঢল
যশোর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

যশোর শেখ হাসিনা সফটওয়ার টেকনোলজি সফটওয়্যার পার্কে দিনব্যাপী চাকরি মেলায় প্রার্থীদের ঢল নামে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ১৫ হাজারের বেশি চাকরি প্রার্থীর সমাগম ঘটে মেলায়।


বৃহস্পতিবার সকালে মেলা উদ্বোধন করে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আগামী তিন বছরে আইটি সেক্টরে প্রশিক্ষণ দিয়ে ৩ লাখ তরুণ-তরুণীকে দক্ষ করে তোলা হবে। আর ২০২১ সালের মধ্যে আইটি সেক্টরে ২০ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে। তাই আইটি সেক্টরে দক্ষতা অর্জন করতে পারলে কাউকে আর কর্মসংস্থান নিয়ে ভাবতে হবে না। শেখ হাসিনা সফটওয়ার টেকনোলজি সফটওয়্যার পার্কের একটি অডিটোরিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।


প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক আরোও বলেন, আজকের এই চাকরি মেলাকে ঘিরে যশোরসহ এই অঞ্চলে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। হাজার হাজার ছেলে মেয়ে এখানে বায়োডাটা জমা দিতে এসেছে। তরুণদের এই উৎসাহ উদ্দীপনাকে কাজে লাগাতে পারলে অসাধ্য সাধন সম্ভব। উৎসাহ-উদ্দীপনা ও ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দিতে পারলে এই তরুণরাই বিশ্ব জয় করবে।


পার্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসেনে আরা বেগমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, বেসিস সভাপতি মোস্তফা জব্বার, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, যশোর এমএম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মিজানুর রহমান ও যশোরের জেলা প্রশাসক আশরাফ উদ্দিন।


স্বাগত বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা হাইটেক পার্ক প্রকল্পের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) জাহাঙ্গীর আলম।


এদিকে যশোর শেখ হাসিনা সফটওয়ার টেকনোলজি পার্কে দিনব্যাপী চাকরি মেলায় প্রার্থীদের ঢল সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয় পুলিশকে। প্রায় ২০ হাজার চাকরিপ্রার্থীর চাপে এক পর্যায়ে পার্কের ক্যাম্পাসে কয়েকটি বাক্স দিয়ে তাতে বায়োডাটা জমা দেয়ার চাকরিপ্রার্থীদের চলে যেতে বলা হয়। হ্যান্ড মাইক নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের প্রতি এই ঘোষণা দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার।


তবে এই প্রক্রিয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন চাকরিপ্রার্থীরা। আর স্টলদাতারাও জানিয়েছেন, যেভাবে সিভি সংগ্রহ করা হয়েছে। তা কিভাবে যাচাই বাছাই হবে এবং কারা করবে তা তারা নিজেরাই বুঝতে পারছেন না।


সিভি জমা দিতে আসা কেশবপুরের জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পুলিশের বাধায় চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানে সরাসরি সিভি জমা দিতে পারিনি। বাধ্য হয়ে গেটের সামনে বক্সে জমা দিয়ে চলে এসেছি। জানি না আদৌও সিভি পৌঁছবে কিনা।


যশোরের রাশেদ খান জানান, কয়েকজন বন্ধু মিলে সিভি জমা দিতে এসেছেন। প্রচুর লোক সমাগম হওয়ায় পুলিশ স্টলে যেতে দিচ্ছে না। গেটের সামনে নির্ধারিত স্থানে সিভি জমা দিতে বলা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, তারা সিভি পৌঁছে দেবে।



শুধু জাহাঙ্গীর আলম কিংবা রাশেদ খান নয় তাদের মত কয়েক হাজার চাকরি প্রার্থী সিভি জমা দিতে এসে বিড়ম্বনার শিকার হয়েছেন। পার্ক চত্ত¡রে সকাল থেকেই মানুষের ঢল নেমেছে। পার্কের আশপাশের এলাকায় জমজমাট ফটোকপি, কম্পিউটার দোকান ও খাম, কলম বিক্রি হয়েছে।


জানতে চাইলে ডিজিকন এর ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আশরাফুজ্জামান রাসেল বলেন, চাকরি মেলায় ব্যাপক সাড়া পড়েছে। বিভিন্ন অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক প্রার্থী মেলায় এসেছে। আমাদের প্রতিষ্ঠান আরও বৃহৎ পরিসরে এখানে কাজ করতে চাই। সেক্ষেত্রে বিপুল সংখ্যক কর্মসংস্থান হবে বলে আশাবাদী।


বিবার্তা/তুহিন/কাফী


>>যশোরে চাকরি মেলার উদ্বোধন করলেন পলক


>>যশোরে চাকরি মেলায় সিভি নিচ্ছে যেসব প্রতিষ্ঠান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com