বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দুয়ারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে
প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৫:৫৯
বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দুয়ারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

‘গো ডিজিটালি মেক ইয়োর লাইফ হ্যাসল ফ্রি’ স্লোগানে রাজধানীতে শুরু হয়েছে ৫ দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৯’। মেলা চলবে সোমবার পর্যন্ত।


বৃহস্পতিবার রাজধানীর নিউ এলিফ্যান্ট রোডস্থ কম্পিউটার সিটি সেন্টারে (মাল্টিপ্ল্যান) ১০ম বারের মতো আয়োজিত এই ফেয়ারের উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।


প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মোস্তাফা জব্বার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে সার্থকভাবে ব্যবহারের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এত বড় মার্কেট আর নেই। এখানে ব্যবসায়িরা শুধু ব্যবসাই করেন না। বাংলাদেশের মানুষকে কম্পিউটার পৌঁছে দিতে এবং দক্ষতা তৈরি করতে কাজ করছেন। বাংলাদেশ এখন বিশ্ব দুয়ারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। আমরা ২১ সালে ৫০ বছর পালন করব। বিশ্বকে দেখিয়ে দিব আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ।


টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত যে রূপন্তার হয়েছে তা আপনারা দেখেছেন। দেশে একটা সময় ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ছিল খুবই কম এখন তা বেড়ে ১০ কোটি। ১৬ কোটি মানুষের কাছে প্রায় ১৬ কোটি মোবাইল সিম। আমরাই ডিজিটাল শব্দ ব্যবহার করি সবার আগে।


মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের গ্রামের মানুষেরা এখন স্মার্টফোনের মাধ্যমে অ্যাপ ব্যবহার করতে শিখেছে। বাংলাদেশে ২০২১ সালের মধ্যে সব ইউনিয়নে ফাইবার অপটিক্স পৌঁছানো হবে।


তিনি আরও বলেন, ফেসবুক আমাদের সাথে বসেছে তারা খুব তাড়াতাড়ি দেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দিবে। আমি তাদের বলেছি যে কোন মূল্যে আগে আমার দেশের স্বার্থ দেখতে হবে।


অনুষ্ঠানে মেলা কমিটির আহ্বায়ক তৌফিক এ এহসানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই’র পরিচালক আবু মোতালেব, হাফেজ হারুন, মনিরুল ইসলাম জুয়েল, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক ভূঁইয়া, কম্পিউটার সিটি সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত সরকার, স্থানীয় কাউন্সিলর জসিম উদ্দিন।


সভাপতির বক্তব্যে তৌফিক এহ্সোন বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতি মানুষের জীবনের সমস্যা দূর করতে পারে। আমাদের সামনে আসছে আইওটিসহ নানা প্রযুক্তি। আমাদের তাই হার্ডওয়্যার খাতকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। আমাদের এ বিশাল আয়োজনে আমরা সব মানুষের জীবনকে যাতে সহজ প্রযুক্তিময় জীবন দিতে পারে তার ব্যবস্থা রেখেছি।


তিনি বলেন, আমাদের প্রযুক্তিপ্রেমী মানুষেরা এ রকম একটি মেলার আয়োজনের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। মেলায় তাদের জন্য নতুন পণ্য যেমন আসে তেমনি ছাড় আর উপহার পাওয়া যায়। কম্পিউটার সিটি সেন্টারে সব প্রযুক্তিপ্রেমী মানুষের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠবে। আশা করছি এবারে ১০ লাখের বেশি মানুষ মেলা পরিদর্শন করবেন।


আয়োজকরা জানান, মেলায় বাংলাদেশের শীর্ষ আইসিটি পণ্য আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা বিশ্বের মানসম্পন্ন ব্র্যান্ডের আধুনিক প্রযুক্তি প্রদর্শন করবে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকবে শিশু কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, ফ্রি গেমিং ও ইন্টারনেট ব্রাউজিং প্রভৃতি সুবিধা। মেলায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী প্রবেশাধিকার উন্মুক্ত করা হয়েছে।


সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ১ম থেকে ১০ম তলা পর্যন্ত ১ লক্ষ ৬৫ হাজার বর্গফুট এরিয়া জুড়ে এ মার্কেটের ৭৪৬টি প্রতিষ্ঠান তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিপণ্য ও কলাকৌশল এ মেলায় প্রদর্শন করবে।


প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলার সমাপনী আগামী ১৪ অক্টোবর।


এবার মেলার প্রধান স্পন্সর হিসেবে রয়েছে বিশ্বখ্যাত কয়েকটি ব্র্যান্ডের প্রযুক্তিপণ্য প্রতিষ্ঠান। প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে এসার, ডেল, এইচপি, ক্যাসপারস্কাই। গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে-আসুস, লেনোভো, এডাটা। সিলভার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ডাহুয়া ও টিপি-লিংক। স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ইসেট, টেনডা, ট্রানসেন্ড, ওয়েব লিংক। গেমিং পার্টনার হিসেবে রয়েছে গিগাবাইট।


বিবার্তা/উজ্জ্বল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com