মাদক এবং দুর্নীতিবাজদের বিলাসী জীবন
প্রকাশ : ২৭ মে ২০১৮, ১৫:২৪
মাদক এবং দুর্নীতিবাজদের বিলাসী জীবন
এম আই কে রাশিদুল ইসলাম রাশেদ
প্রিন্ট অ-অ+

যারা এই মাটিকে ভালোবাসে না, এই মাটিকে পবিত্র মনে করে না, এই মাটির ঘ্রাণ যাদের কাছে সুগন্ধি লাগে না, তারা এই মাটির বিপরীতে বিশ্বাসঘাতক হিসেবে অভিহিত হয় বটে। এ রকম নজির বাংলার অতীত ইতিহাসে আছে। এমনকি এই মাটিতে ফলা ফসলের দাম পাচার করে কানাডার বেগমপাড়াতে আরাম-আয়েশ অথবা পৃথিবীর অন্য কোনো রাষ্ট্রে বিলাসী জীবন যাপন করে যারা, তারাও বিশ্বাসঘাতক হিসেবে অভিহিত হয়ে থাকে বটে। কেননা এই মাটিকে না ভালোবাসার কারণে এবং বিলাসী জীবনের আশায় এখানে তারা দুর্নীতিবাজ হয়ে ওঠে। এই দুর্নীতিবাজ চরিত্রগুলো হলো প্যান্ট-শার্ট-টাই পরা ভদ্রজন।


এরকম বিলাসী জীবন উপভোগের দৃশ্য দেখে-শুনে এ রাষ্ট্রে আজ একদল তরুণ বিলাসী জীবন যাপনের চিন্তা করে এবং তা দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জন করবে বলে মনে করে। তাই আজ অশুভ চিন্তা, অশুদ্ধ চিন্তা তরুণসমাজকে আচ্ছন্ন করে ফেলেছে। দেশপ্রেমে আকৃষ্ট না হয়ে, বাঙালি জাতিসত্তায় আকৃষ্ট না হয়ে, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অনুপ্রাণিত না হয়ে স্বার্থান্ধ হয়ে উঠছে আজকের তরুণসমাজ।


এটা ঠিক যে, স্বার্থপরদের স্বার্থান্বেষণ সব মগজে ক্রিয়া করে। অথচ পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র কেউ এই তরুণসমাজকে স্বার্থপর না হওয়ার জন্য এতটুকু তালিম দেয় না। সুতরাং তরুণসমাজের মাঝে নৈতিক দায়বদ্ধতা তৈরি হয় না। যে সমাজ বা রাষ্ট্র তার তরুণদের মাঝে দেশপ্রেমের প্রতি দায়বদ্ধতা, দেশের মাটিকে ভালোবাসার প্রতি দায়বদ্ধতা তৈরি করতে পারে না, সে সমাজের বা রাষ্ট্রের তরুণরা ঐ সমাজ বা রাষ্ট্রকে নিয়ে ভাবনার অবকাশ পায় না, দেশপ্রীতি তাদের ভেতরে একটুও নাড়া দেয় না। বরং ঐসব তরুণ সাধারণ নাগরিকের প্রতি প্রীতির সাধনা না করে, বিপদগামী মস্তিষ্কজীবী হয়ে ওঠে। সাম্প্রদায়িক হতে তারা বিন্দুমাত্র সময় নেয় না। আবার অন্যদিকে এসব তরুণকে সাম্প্রদায়িক করে তুলতে স্বার্থান্বেষী মহল সজাগ থাকে সবসময়। বাংলাদেশ নামক এ রাষ্ট্রে অবশ্য স্বার্থান্বেষী একটি মহল স্বাধীনতাপরবর্তী সময় থেকে খুব করে সজাগ রয়েছে, যারা কিনা আজকে এসব তরুণদের মগজ ধোলাই করতে সচেষ্ট।


রাষ্ট্রে দুর্নীতির প্রাদুর্ভাব অত্যন্ত বেশি হওয়ার কারণে রাষ্ট্র দুর্বল থেকে দুর্বলত্র হচ্ছে। এ রাষ্ট্রকে না ভালোবেসে, এ রাষ্ট্রের মাটিকে না ভালোবেসে সমস্ত শ্রেণির মানুষ আত্মকেন্দ্রিক স্বার্থান্ধ হয়ে যাচ্ছে। ফলে তরুণসমাজ আস্তে আস্তে দেশপ্রেমের চিন্তায় মনোনিবেশ না করে নিজেকে দেশপ্রেমিক হিসেবে পরিচিত করে তুলছে না। প্রচলিত একাডেমিক শিক্ষাব্যবস্থা তাদের তথাকথিত শিক্ষিত করলেও, মনস্তাত্ত্বিক শিক্ষিত হতে এই তরুণসমাজ অনেক পিছিয়ে রয়েছে। অনেকটা দারিদ্র্যের মতো করে তাদের চিন্তা। যেমন- এই তরুণসমাজ বাড়ী-গাড়ী করার মোহে মোহাচ্ছন্ন, বিলাসী জীবনযাপন উপভোগ করার মোহে মোহাচ্ছন্ন। এই মোহাচ্ছন্নতা সব ধরণের অবক্ষয় মাত্রা তৈরি করে। তাইতো নৈতিক অবক্ষয় তখনি হয়, যখন লোভের মাত্রা মাত্রাতিরিক্তভাবে বেড়ে যায়। এই রাষ্ট্রের তরুণসমাজের হয়েছেও ঠিক তাই। এক শ্রেণির অগ্রজমাত্রাতিরিক্ত দুর্নীতিগ্রস্ত হয়ে বিলাসী জীবন যাপন করছে, তাতে বর্তমানের তরুণরা উদ্বুদ্ধ হচ্ছে।


অন্যদিকে মাদকাসক্ত করে তরুণদের নষ্ট করে দিচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা। মাদকাসক্তি যেভাবে বেড়েছে, সেটা মহামারির পর্যায়ে পড়ে। মাদক উন্নত চিন্তা করতে বিপত্তি ঘটায়। যদিও অনেক সমাজবিজ্ঞানী মনে করেন, রাষ্ট্রের শাসকরা তরুণদের নষ্ট করে দেয়ার জন্যে মাদকের প্রসার ঘটায়, বিশেষ করে তরুণদের প্রগতিশীল চিন্তাকে প্রতিরোধ করার জন্যে মাদকরসে আসক্ত করানোর কাজ করে শাসকগোষ্ঠী।


যাইহোক পরিশেষে রাষ্ট্র বুঝতে পারছে যে, মাদকরসে মশগুল হয়ে তরুণসমাজ মহামারির পর্যায়ে নষ্ট, তাই রাষ্ট্র ঘোষণা করেছে- মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় মাদক ব্যবসায়ীদের কথিত ক্রসফায়ারে হত্যা করা হয়েছে। এজন্য শাসকগোষ্ঠীকে সাধুবাদ জানানো কতটুকু উচিত-অনুচিত, সে বিতর্কে না গিয়ে বলতে চাই, যদি মাদক উৎপাদন, আমদানী-রপ্তানীকারকদের সমূলে নির্মূল করতে না পারে, তাহলে এসব অভিযান গুটিকয়েক ছিচকে মাদক ব্যবসায়ী হত্যার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। অন্যদিকে মাদকের উৎপাদনে নতুন কোয়ালিশন হবে। আরো ব্যাপক হারে মাদক আমদানী বাড়ার সম্ভাবনা থাকবে। তাই সরকারের মাধ্যমে মাদকের বিরুদ্ধে যে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হয়েছে, তার পাশাপাশি মাদকের ক্ষতিকর দিকটি উল্লেখ করে তরুণদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি কার্যক্রম চালাতে হবে।


লেখক : সদস্য, বন ও পরিবেশ উপ-কমিটি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ


বিবার্তা/হুমায়ুন/মৌসুমী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com