আমরাও দায় এড়াতে পারি না
প্রকাশ : ৩০ জুলাই ২০১৭, ১৮:২৪
আমরাও দায় এড়াতে পারি না
রাকিব মাহমুদ
প্রিন্ট অ-অ+

জাতি হিসেবে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এগিয়ে চলার পথে অর্জনের ভাগটা আমাদের সবারই, কিন্তু দুর্ভোগের দায় কেবল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির।


বলছিলাম মাননীয় মেয়র মহোদয়ের কথা। আমরা ঢাকা শহরে নিয়ম ও অনিয়ম দুটোই কম-বেশি দেখে আসছি। মেয়র দায়িত্ব নেয়ার পর শহরকে নিয়মে আনার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। সবসময় যে সব সম্ভব না, সেটা তিনি নিজেও স্বীকার করেন। কারণ, সিটি কর্পোরেশনের ক্ষমতার আওতার বাইরে আছে অনেক কিছুই। তবুও নিজ জায়গা থেকে তিনি কাজ করছেন, যদিও তিনি চোরের হাত থেকে ডাস্টবিনগুলোকে রক্ষা করতে পারেননি। ডেসকো, ওয়াসা রাস্তা কেটে রেখেছে তা দ্রুত মেরামত করাতে পারেননি। এছাড়া অন্যান্য ক্ষেত্রে তাঁর লড়াইকে নাগরিক হিসেবে স্বাগত জানাই।


রাস্তা কাটা আমাদের ''ঐতিহ্য''। সেই আদিকাল থেকে চলে আসছে। ১৯৯১-৯৬, ২০০২-০৯-১৪ যে সরকারই হোক না কেন, কেউই পারেনি ওয়াসা, ডেসকোকে দমিয়ে রাখতে। তাহলে কেন শুধু আওয়ামী লীগ সরকারকে কথা শুনতে হবে?


প্রত্যেকটা ক্ষেত্রেই আমরা সরকারের উন্নয়নকে নিয়ে কটুক্তি করি। যে সমস্যার সমাধান বাংলাদেশের কোন সরকারই করতে পারেনি, বর্তমান সরকার তাও করার চেষ্টা করছে। তাতেও কিছু মানুষের গায়ে জ্বালা ধরে।


ঢাকা এসে প্রথমে মিরপুর উঠি। সেকালের মিরপুরের সাথে একালের মিরপুরের অনেক তফাৎ । ফ্লাইওভারগুলোর কাজ করার সময় একটু অসুবিধা হবেই। এই কষ্টটা মেনে নিলেই আমরা কাজ শেষ হলে সুন্দরভাবে চলাচল করতে পারব ।


একইভাবে মেট্রোরেলের কাজ চলাকালীন কষ্ট কিছুদিন হবেই।


একসাথে, এরকম একটা নিম্ন মধ্য আয়ের দেশে, এত উন্নয়নকাজ শুরু কেবল আওয়ামী লীগ সরকারের পক্ষেই সম্ভব। কতগুলা মেগা প্রজেক্ট হাতে, তা দেখলে ১৯৮০ সালে কাতার, আবুধাবি,আমিরাতের কথা মনে পড়ে। এই দেশ তিনটির শিল্প বিপ্লব,উন্নয়নের জোয়ার বাংলাদেশের মত এভাবেই শুরু হয়েছে। এই সাহস কেবল শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বেই সম্ভব ।


টিভিতে দেখি অনেকে বড় বড় লেকচার দেন। তারাও শুধু সমস্যা দেখান। এত সুশীল মিলেও সমাধান দিতে পারেন না কেনো? কারণ, কিছু মানুষ কখনোই আন্তরিকভাবে সমাধান চায় না। তারা শুধু আওয়ামী লীগ সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে চায়।


কিন্তু কেন? তারা কি আপনাদের জন্য কিছুই করেনি? এই বসবাসের অযোগ্য শহরটাকে বসবাসের যোগ্য করে তোলার চেষ্টা কি তাদের পাপ ?


আমরা তো মহামানব। আমরা আইস্ক্রিমটা খেয়ে প্যাকেট রাস্তায় ফেলি। বাদাম খেয়ে খোসা ফেলি ড্রেনে । কোল্ড ড্রিংক্স খেয়ে বোতলটা এদিক-সেদিক ফেলে দেই। ঢাকায় যতগুলো ড্রেন আছে তার ৯০% আমাদের কার্যক্রমের কারণে বন্ধ হয়ে আছে। প্রতিদিন সকালে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা পরিষ্কার করেন। তারাও ৫০% এর বেশি করে না । বাকি থাকে ৪০% ,তাও আবার আমরা সারাদিন এটা-সেটা ফেলে ভর্তি করে দিই।


আমরা নিজেরা যদি ১০০% ভাল থাকতাম তা হলে ৫০% জলাবদ্ধতা কম হতো। বাকি ৫০% এর জন্য মেয়রকে দায়ী করতে পারতাম। আমরা ভাল হলে দেখা যেত যেখানে এক হাঁটুপানি, সেখানে পানি জমতো না। যেখানে এক কোমর পানি সেখানে এক হাটু থাকতো। যদিও এটা আমাদের দেশের একার সমস্যা না। পৃথিবীর অনেক দেশেই এরকম হয়।


কিছু গলাবাজ বিপ্লবী ফেসবুকার আছেন যাদের দক্ষতা ওই স্ট্যাটাস আপডেট করা পর্যন্তই । লাইক, শেয়ার, কমেন্টে যাদের দেশপ্রম সীমাবদ্ধ।


স্কুল থেকেই আমরা প্যারাগ্রাফ লিখতে অভ্যস্ত যে "Government should take proper action." এই অভ্যাস আমাদের আর গেলো না ।


ওয়াসা, বিআরটিএ-সহ বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানই দায়ী এর জন্য । আমরাও কিন্তু এর দায়ভার এড়াতে পারব না। কারন এখানে চাকরি করে আমাদেরই পরিবার পরিজন । আমরা তাদের বাধা না দিয়ে বরং বাধ্য করি এসব করতে। আমরা আমাদের এবং আমাদের পরিবারকে সঠিকভাবে রাখতে পারলেই সমস্যাগুলো অনেকাংশেই সমাধান হতে পারে।


লেখক : সহ-সভাপতি, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ছাত্রলীগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়


বিবার্তা/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com