ব্যানারে এমপির নাম না থাকায় আ.লীগের শোক সভায় বাধা
প্রকাশ : ১৫ আগস্ট ২০১৯, ২২:২৫
ব্যানারে এমপির নাম না থাকায় আ.লীগের শোক সভায় বাধা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় আওয়ামী লীগের শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের ব্যানারে স্থানীয় সংসদ সদস্যের নাম না থাকায় সভা বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।


বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে লাখাই থানার ৭নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ মাঠে এ ঘটনা ঘটে।


স্থানীয় ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পুলিশের পূর্ব অনুমতিক্রমে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে একটি শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। কয়েক হাজার লোকের উপস্থিতিতে যথা সময়ে সভাটির কার্যক্রম শুরু হয়। কিন্তু হঠাৎ করে লাখাই থানার ওসি ইমরান সভার কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশনা দেন।



এসময় পুলিশের অনুমতি রয়েছে জানানোর পর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুল আলম মাহফুজসহ অন্যান্য নেতাদের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পরেন। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থল থেকে ত্যাগ করেন ওসি। কিন্তু কিছুক্ষণ পর ৩০ থেকে ৪০ জন পুলিশ নিয়ে ফের সভাস্থলে আসেন এবং সভা বন্ধ করার নির্দেশ দেন। এক পর্যায়ে অনুষ্ঠানের ব্যানার খুলে নেন এবং সভাস্থলের আসা লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করে দেন। তবে শোক সভার ব্যানারে স্থানীয় সংসদ সদস্যের নাম না থাকায় সভাটি বন্ধ করা হয়েছে বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে।


বিষয়টি নিশ্চিত করে লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মাহফুজুল আলম বিবার্তাকে বলেন, আজকের অনুষ্ঠানের জন্য গত ১৩ আগস্ট হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবর একটি আবেদন করা হয়। ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজকের শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের অনুমতিও দেয়া হয়।


তিনি বলেন, অনুমতি পাওয়ায় আজ যথা সময়ে শোক সভা ও দোয়া মাহফিলের কার্যক্রমও শুরু হয়। ওই সভায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে দুই থেকে তিন হাজার লোকও উপস্থিত হন। কিন্তু হঠাৎ করে লাখাই থানার ওসি শোক সভাটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন। এসময় অনুমতির কথা বলা হলেও এটা তোয়াক্কা করেননি ওসি।



তিনি আরো বলেন, এক পর্যায়ে শান্তিপূর্ণ ওই সভার মঞ্চ থেকে পুলিশ ব্যানার খুলে নেন এবং সভাটি পণ্ড করে দেন।


এ ব্যাপারে জানতে চাইলে লাখাই থানার ওসি ইমরানের সঙ্গে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।


তবে সভাটি বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে হবিগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বিবার্তাকে বলেন, ওই এলাকায় আগে একটি শোক সভা হয়েছে। পরে একই এলাকায় আরেকটি শোক সভা শুরু হয়। এসময় সেখানে বিশৃঙ্খলা হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়। এ কারণেই সভাটি বন্ধ করা হয়েছে।



এমন আশঙ্কা থাকা সত্ত্বেও কেন অনুমতি দেয়া হয়েছিল জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, ওইসব এলাকায় খুব ঘন ঘন মারামারি হয়ে থাকে। তাই সকল ধরনের বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে পুলিশ যে কোনো সময় যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে।


বিবার্তা/খলিল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com