‘উপজেলা নির্বাচনে যত প্রার্থী হবে, তত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে’
প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৩৭
‘উপজেলা নির্বাচনে যত প্রার্থী হবে, তত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনে যত প্রার্থী হবে, তত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। এ জন্য আমরা কোনো ভয় পাই না। গণতন্ত্রের জন্য সেটাই ভালো। আমরা চাই তৃণমূল বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক।


আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দ্বিতীয় দফা উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করার সময় তিনি এ কথা বলেন। এদিন দ্বিতীয় ধাপে ১২২ জনের নাম প্রকাশ করা হয়।


তিনি বলেন, এটি তালিকা প্রকাশের দ্বিতীয় ধাপ। ১৯ সদস্যের মনোনয়ন বোর্ড এই তালিকা চূড়ান্ত করেছে। তৃণমূল থেকে যেভাবে তালিকা এসেছে এবং সার্ভে রিপোর্ট করে আমরা যে ফলাফল পেয়েছি সে অনুযায়ী আমরা তালিকা চূড়ান্ত করেছি।


তিনি আরো বলেন, উপজেলা নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। কিন্তু আমাদের জিততেই হবে এমন কথা নয়। জনগণ যদি আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে ভোট দেয় তবে তারা জিতবে। আর যদি তারা বিএনপি বা কোনো স্বতন্ত্র প্রার্থীকে ভোট দেয় তাহলে তারাই নির্বাচনে বিজয়ী হবে।


বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে আগেই নালিশ পার্টি বলে অভিহিত করেছি। নালিশ আর মামলা করা ছাড়া তাদের আর কোনো উপায় নাই।



আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি তৃতীয় ধাপ ও ২৩ ফেব্রুয়ারি চতুর্থ ধাপ এবং জুন মাসে পঞ্চম ধাপের উপজেলা চেয়ারম্যানদের প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণা করা হবে।


এর আগে, শনিবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে মনোনয়ন বোর্ডের সভায় দ্বিতীয় ধাপের মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়।


দলীয় প্রতীকে স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যানের দুটি পদে দলীয়ভাবে প্রার্থী না দিয়ে উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপের প্রার্থীদের মনোনয়ন কবে দেয়া হবে- জানতে চাইলে কাদের বলেন, দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের ২২ ও ২৩ ফেব্রুয়ারির সভায় তা চূড়ান্ত করা হবে।


ইতোমধ্যে মনোনয়ন পাওয়াদের মধ্যে যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সদস্য আসার খবর নিয়ে প্রশ্ন করা হলে কাদের বলেন, “এমন অভিযোগ থাকলে খতিয়ে দেখব, প্রয়োজনে তাদের মনোনয়ন বাতিল করব।


দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে বাগেরহাট সরকারি কলেজের প্রভাষক মো. শফিউল আজম চৌধুরী কীভাবে মনোনয়ন পেলেন- সাংবাদিকদের এই প্রশ্নে তিনি বলেন, “নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, তারপরও কোনো সমস্যা থাকরে আমরা যাচাই করে দেখব।


সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, ইসহাক আলী খান পান্না প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


উল্লেখ্য, ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণের মধ্য দিয়ে পাঁচ ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শুরু হচ্ছে আগামী ১০ মার্চ। দেশের ৪৯২টি উপজেলার মধ্যে অন্তত ৪৮০টিতে এবার ভোট হচ্ছে। প্রথম ধাপে রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও রজশাহী বিভাগের ৮৭ উপজেলায় ভোট হবে।


প্রথম ধাপে মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় ১১ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ১২ ফেব্রুয়ারি, প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৬ ফেব্রুয়ারি।


মার্চ মাসেই পরবর্তী চারটি ধাপের ভোটগ্রহণ হবে। দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৪ মার্চ, চতুর্থ ধাপে ৩১ মার্চ হবে ভোট। পঞ্চম ও শেষ ধাপের ভোট হবে ১৮ জুন।


বিবার্তা/খলিল/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com