তেলে-জলে মেশানোর চেষ্টা ব্যর্থ হবে : কাদের
প্রকাশ : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:৪৬
তেলে-জলে মেশানোর চেষ্টা ব্যর্থ হবে : কাদের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নামে তেলে-জলে মেশানোর প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবে।


তিনি বলেন, তাদের ঐক্য, ভাংগন প্রবই ঐক্য। এ ধরনের ঐক্য কখনো টিকে না। তেলে-জলে মেশানোর চেষ্টা ব্যর্থ হবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ফরমেশন অনুযায়ী এ ঐক্য স্থায়ী হবে না। এ ধরনের ঐক্য ভঙ্গুর জাতীয় ঐক্য।


মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বনানীতে নবনির্মিত বিআরটিএ ভবন পরিদর্শন শেষে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।


এ সময় বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমানসহ অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে সুকৌশলে যুক্তফ্রন্টকে বের করে দেয়া হয়েছে। গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন তার বাড়িতে সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. বি চৌধুরীকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে রেখেছিলেন। এমনকি তিনি বাড়িও ছিলেন না।


বিএনপির জন্য যুক্তফ্রন্ট স্বস্তিদায়ক ছিল না উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. এ কিউ এম বদরোদ্দোজা চৌধুরীকে যেভাবে বিএনপি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল তা দেশের মানুষ ভুলে যায়নি।


ড. কামাল হোসেন সম্পর্কে কাদের বলেন, তিনি আওয়ামী লীগ থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর গণফোরাম গঠন করেন। তিনি ভেবেছিলেন তার দলে হাজার হাজার লোক যোগ দেবে। কিন্তু জনগণ তার ডাকে কোন সাড়া দেয়নি। তিনি একজন গণবিচ্ছিন্ন লোক হিসেবে গণফোরাম করে কোনো রকমে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখেছেন।


সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হটানোর জন্য তারেক জিয়ার নেতৃত্ব মেনে নিতেও তার (ড. কামাল) কোন আপত্তি নেই। বিএনপির নেতা তারেক রহমান। কারণ তিনি দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তিনিই লন্ডন থেকে এ জোটের কলকাঠি নাড়বেন।


তিনি আরো বলেন, তার (ড. কামাল) লক্ষ্য ক্ষমতায় যাওয়া নয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে হটানো। আর সেজন্য তারেক রহমানের নেতৃত্ব মেনে নিতে তার আপত্তি নেই।


নির্বাচন কমিশন(ইসি)’র গতকালে সভায় নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের নোট অব ডিসেন্ট সম্পর্কে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্রপতি সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। তিনি রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে নামের তালিকা চেয়েছিলেন। সে অনুযায়ী বিএনপির মনোনীত লোক হিসেবে তিনি (মাহবুব তালুকদার) নির্বাচন কমিশনার হয়েছেন।


তিনি বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ সদস্যের ভেটো পাওয়ার রয়েছে। তারা কোন বিষয়ে ভেটো দিলে তা বাতিল হয়ে যায়। নির্বাচন কমিশনে সেভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় না। সংখ্যাধিক্যের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।


কাদের বলেন, মেজরিটি একমত হলে সিদ্ধান্ত নেয়া যায়। এটাই গণতন্ত্রের অভ্যন্তরীণ সৌন্দর্য। ভিন্নমত প্রকাশ করার অধিকার তার রয়েছে। তার নোট অব ডিসেন্ট জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোন প্রতিবন্ধকতা তৈরি করবে না।


আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জোটের সমীকরণ সম্পর্কে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় নির্বাচনের আওয়ামী লীগের জোটের সমীকরণ কোথায় দাঁড়াবে তা এখনও বলা যাবে না। আরো অপেক্ষা করতে হবে। এ বিষয়ে দলের ওয়ার্কিং কমিটিতে সিদ্ধান্ত হবে। দলের সিদ্ধান্ত ছাড়া জোটের ব্যাপারে কোন কিছু বলা যাবে না। জোটসহ সকল বিষয়ে দলে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, বিএনপি বা অন্য কোন জোট নিয়ে আমাদের কোন দুশ্চিন্তা আগেও ছিল না, এখনও নেই।


অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নেতিবাচক রাজনীতির কারণে বিএনপির রাজনীতি দিনে দিনে সংকুচিত হয়ে পড়েছে।
তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় এম এ আজিজ যখন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ছিলেন তখন ১১৮টি রাজনৈতিক দল ছিল। এখন অনেক দল রয়েছে যাদের ঠিকানা পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায় না।


বিবার্তা/রোকন/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com