কাদের মানুষের অবস্থা জানেন না: ফখরুল
প্রকাশ : ১০ জুলাই ২০১৮, ১৯:২৭
কাদের মানুষের অবস্থা জানেন না: ফখরুল
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘গতকাল (সোমবার) ওবায়দুল কাদের সাহেবের একটি মন্তব্যে আমি অবাক হয়েছি। তিনি মানুষের অবস্থা জানেন না। কীভাবে রাজনীতি করেন বুঝতে পারছি না। রাজনীতি সচেতন মানুষ কী করে এসব কথা বলেন?’


জাতীয় প্রেসক্লাবে ৯০'র ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের আয়োজনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের সাজা বাতিলের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশে এসব কথা বলেন ফখরুল।


আগের দিন সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, খালেদা জিয়ার জন্য মানুষ কাঁদে না। মানুষ এখন নির্বাচন নিয়ে ভাবছে।


এর জবাবে মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘উপলব্ধি যার আছে তার বাংলাদেশের রাজনীতি সম্পর্কে জ্ঞান নেই। খালেদা জিয়ার জন্য ঘরে ঘরে মানুষ রোজা রাখে, মহিলারা কান্নাকাটি করে। বেগম জিয়াকে একদিন জনগণ বের করে আনবে। কারাগার ভেঙেই বের করে আনবে।’


‘রাজনীতিকে খালেদা মুক্ত করতে হবে’ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর এমন বক্তব্যেরও প্রতিক্রিয়া জানান ফখরুল। বলেন, ‘সরকার মাইনাস ওয়ান ফর্মুলা বাস্তবায়নে সূদুরপ্রসারী নীল নকশা নিয়ে এগুচ্ছে। খালেদা জিয়াকেই শুধু না, তিনি যার সঙ্গে রাজনীতি করেন তাহলে তাকেও রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে দিতে হবে।’


ফখরুল বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী সব সময় একটা কথা বলেন, তা হলো রাজনীতি থেকে খালেদা মুক্ত করতে হবে। খালেদা জিয়ার নামে চারটি মামলা আর শেখ হাসিনার নামে ছিল ১৫টি মামলা। ... খালেদা জিয়ার অপরাধ একটাই, সেটা হলো তিনি গণতন্ত্রের কথা বলেন। মানুষের অধিকারের কথা বলেন।’


বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা বলেছেন, আমরা যুদ্ধাপরাধীদের পতাকা দিয়েছি। তো আপনারা কাকে পতাকা দিয়েছেন? আপনারা তো সবচেয়ে বেহায়া, বেইমানকে (এরশাদ) পতাকা দিয়েছেন। এটা তো আরও লজ্জার।’


সরকারকে পুরোপুরি জনবিচ্ছিন্ন মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা এমন জায়গায় চলে গেছেন যেখান থেকে আর ফিরে আসতে পারবেন না। আপনারা চাইলেও আর জনগণের কাছে ফিরতে পারবেন না। আপনাদের তো এখন আত্মহত্যা করা উচিত।’


সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদই নির্বাচন কমিশন চালাচ্ছেন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের না আছে যোগ্যতা, না আছে শক্তি। একজন সচিব হেলালউদ্দিন আহমেদ। তিনি কমিশনে অফিস করেন নির্দিষ্ট সময়। তারপর একটি নির্দিষ্ট দলের নির্দিষ্ট অফিসে যান, যার প্রধান এইচ টি ইমাম।’


ফখরুল দাবি করেন, 'নির্বাচনের আগে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে হবে। তবে সংসদ ভেঙে দিতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে, নির্বাচনের আগে সেনা মোতায়েন করতে হবে।’


সাম্প্রতিক কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমার মনে হলো আমরা কি আইয়ুব খানের দিকে ফিরে গেলাম? কোটা নিয়ে আন্দোলনকারীরা প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। একজনকে তো খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না।’


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগতদের অবস্থান এবং চলাচলে নিষেধাজ্ঞা নিয়েও কথা বলেন বিএনপি নেতা। বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আজ ৬০ বছর পেছনে ফিরে গেছে। যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তচিন্তার বিদ্যাপীঠ সে বিদ্যাপীঠ আজকে মুক্তচিন্তা স্তব্ধ করে দিয়েছে। এর চেয়ে বেদনার কিছু হতে পারে না।’


‘আজকে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করা যায় না। আদালত কুক্ষিগত করেছেন। প্রশাসন করায়ত্ব করেছেন। মানুষ এসবের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে।’


বিবার্তা/হাসান/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com