প্রধানমন্ত্রী আর সহ্য করতে পারছেন না : রিজভী
প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৩:৩০
প্রধানমন্ত্রী আর সহ্য করতে পারছেন না : রিজভী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও নেতাকর্মীদের চরম দমন-পীড়ন চালিয়েও দলের কিছু করতে না পেরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর সহ্য করতে পারছেন না। ক্ষত বিক্ষত হয়ে এখন আর্তনাদ করছেন।


বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ফিউচার অফ বাংলাদেশ আয়োজিত ‘গণতন্ত্রহীনতা বনাম জবাবদিহিতা’ শীর্ষক তরুণ প্রজন্মের সঙ্গে মুক্ত আলোচনায় তিনি একথা বলেন


রিজভী আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভাবছেন, খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে এতো দমন-পীড়ন করছি, নেতাকর্মীদের এতো নির্যাতন করছি, তারপরও বিএনপি এতো ঐক্যবদ্ধ। লন্ডন থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নেতৃত্ব দিচ্ছেন।


তিনি বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই। এখানে রাতের অন্ধকারে যে কোনো যুবক অদৃশ্য হয়ে যায়। গুম করা হয়। কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের তিন জনকে চোখ বেঁধে তুলে নিয়ে যায়। এ প্রসঙ্গে লন্ডনে সাংবাদিকরা প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করলে এড়িয়ে গিয়েছেন। উত্তর দেননি। বলেছেন তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনা হবে। এখানেই তো তার জ্বালা, এখানেই তো তার ভয় ও বিদ্বেষ।


তিনি বলেন, বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়ে পার্লামেন্ট গঠন করেছেন। সেই পার্লামেন্টের প্রধানমন্ত্রী হয়ে তিনি এতো অহঙ্কার করেন। একে ধমকান, তাকে ধমকান। বিরোধী পক্ষকে দেখে নেবেন বলেন। কিভাবে তারেক রহমানকে লন্ডন থেকে আনবেন এসব বলে বেড়ান।


তিনি আরো বলেন, লন্ডনকে বলা হয় পৃথিবীর সব চেয়ে প্রাচীন ও যাকে বলা হয় গণতন্ত্রের আতুড়ঘর, সেখান থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য গণমাধ্যমে বক্তব্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু আপনার দেশেই তো মানবাধিকার নেই, নাগরিক অধিকার নেই, গণতন্ত্র নেই।


খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে টালবাহানা চলছে। তিনি চাইছেন ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা হোক। কিন্তু সরকার সেটা দেবেনা।


চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম বলেন, শেখ হাসিনার সময় আছে আর মাত্র ৮ মাস। এর পর তাকে নির্বাচন দিতে হবে। গদি ছাড়তে হবে। জনগণ বুজে গেছে খালেদা জিয়াকে ছাড়া এই দেশকে বাঁচানোর আর কোনো উপায় নেই।


মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন - ফিউচার অব বাংলাদেশের আহ্বায়ক উজ্জল, সদস্য সচিব শওকত আজিজ, যুগ্ম আহবায়ক মাজেদ বিন হাসান, শাহাদাত হোসেন মিশু, রুবেল মিয়া, মেহেদী কাওসার শাহিন, সোহাগ, মাহাদী হাসান সাদবিনসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও থানার ছাত্রনেতারা।


বিবার্তা/বিপ্লব/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com