পুনর্বাসনের দাবিতে উর্দুভাষীদের পদযাত্রা
প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৭, ১৬:৫৬
পুনর্বাসনের দাবিতে উর্দুভাষীদের পদযাত্রা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

পুনর্বাসনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নির্দেশনার দ্রুত বাস্তবায়ন ও পুনর্বাসন ছাড়া ক্যাম্প উচ্ছেদের চক্রান্ত বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের দাবিতে সমাবেশ ও জাতীয় সংসদ অভিমুখে পদযাত্রা কর্মসুচী পালন করেছে উর্দু স্পিকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট (ইউএসপিওয়াইআরএম)।


বুধবার সকালে রাজধানীর মিরপুরে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর জাতীয় সংসদ অভিমুখে পদযাত্রা শুরু করেন।


পদযাত্রার আগে সমাবেশে ইউএসপিওয়াইআরএম সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাসদের সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, ইউ.এসপি.ওয়াই.আর.এম সাধারণ সম্পাদক শাহিদ আলী বাবলু, নাগরিক ছাত্র ঐক্যের আহ্বায়ক নাজমুল হাসান, শ্রমিক নেতা আব্দুর রাজ্জাক, উর্দুভাষী ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি ফাহিম হোসেন রাজু, সহ-সভাপতি আরশাদ আলম নয়ন, মো. ফিরোজ, কামাল প্রমুখ।


খালেকুজ্জামান বলেন, পুনর্বাসন ছাড়া উর্দুভাষীদের ক্যাম্প উচ্ছেদ চলবে না। যদি ক্যাম্প উচ্ছেদের চক্রান্ত বন্ধ না হয় তাহলে দেশবাসীকে সাথে নিয়ে উর্দুভাষীদের মানবাধিকার রক্ষায় আমরাও রাস্তায় নামবো।


উর্দুভাষী নেতা সাদাকাত খান ফাক্কু বলেন, স্বাধীনতার পর আন্তর্জাতিক রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই জনগোষ্ঠীকে ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে আমাদের একত্রিত করে মিরপুর সেকশন-১০, ১১ এবং ১২ নাম্বার বর্তমান পল্লবী থানাধীন এলাকায় খালি জায়গার উপর ক্যাম্প স্থাপন করেন। ১৯৭২ সাল থেকে সেই জায়গার উপর স্থাপিত ক্যাম্পে আমরা এখনো বসবাস করছি।


তিনি বলেন, ১৯৯৫ সালে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ উক্ত জায়গায় ক্যাম্প গুলো রয়েছে তার সত্যতা গোপন করে ক্যম্পের জায়গাগুলোকে বহিরাগতদের মাঝে প্লট করে বরাদ্দ দেয়ার পর হতে ভুমিদস্যুরা তাদের প্লটগুলো নিজ দখলে নেয়ার জন্য জাতিয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় মস্তানদের সহযোগিতায় ক্যাম্পের লোকজনদের উপর বিভিন্ন ধরনের হামলা-মামলা, অগ্নিসংযোগ এমনকি কালশী কুর্মিটোলা গনহত্যার মত জঘন্য কর্মকাণ্ড চালাতে দ্বিধাবোধ করেনি।


সাদাকাত খান বলেন, ইতিমধ্যে সেকশন-১১, ব্লক-সি,রোড-১১, থানা পল্লবীতে অবস্থিত এম.সি.সি. এবং ফুটবল গ্রাউন্ড ক্যাম্পে তাদের ৩২টি প্লটের দখল নেয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। অন্য দিকে ঢাকা সিটি করপোরেশন ক্যাম্পবাসীর এক মাত্র জীবিকার স্থল ক্যম্পে থাকা দোকান-পাট ও ক্যাম্প গুলোকে উচ্ছেদের জোর চেষ্টা করছে ফলে ক্যাম্পবাসীদের মধ্যে ক্ষোভ ও চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।


তিনি আরো বলেন, গত ২০১৪ সালে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রনালয় এবং গনপূর্তমন্ত্রনালয় পরিদর্শনকালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মিরপুর ও মোহাম্মাদপুরস্থ ক্যাম্পবাসিদের নিরাপত্তা ও কর্মসংস্থানের দিক বিবেচনা করে তাদের ঢাকার আশেপাশে কোন সুবিধাজনক স্থানে পুনর্বাসনের যে নিদের্শনা প্রদান করেছেন, সেই নিদের্শনার এই পর্যন্ত কোনো অগ্রগতী নেই।


তিনি বলেন, অন্য দিকে জাতিয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ এবং কিছু ভূমিদস্যুরা সরকারের সিদ্ধান্ত এমনকি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আদেশকেও উপেক্ষা করে পল্লবী থানাধীন ক্যাম্পগুলোকে উচ্ছেদের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। পুনর্বাসন ছাড়া কোনোভাবেই ক্যাম্প উচ্ছেদ মেনে নেয়া যাবে না। ক্যাম্প উচ্ছেদের চেষ্টা করা হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।


সমাবেশ শেষে মো. সাদাকাত খাঁন ফাক্কুর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে হতে জাতীয় সংসদ অভিমুখে পদযাত্রা শুরু হয়ে পল্লবীর প্রধান সড়ক হয়ে মিরপুর ১০ নাম্বার গোলচত্তরে পৌঁছালে পুলিশ সেখানে বেরিকেড দেয়। পরে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আলাপ আলোচনা করে সংগঠনের ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধী দল সাথে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং জাতীয় সংসদের স্পিকার মহোদয়ের কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেন।


বিবার্তা/বিপ্লব/যুথি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com