কাদেরকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের
প্রকাশ : ০৪ জুলাই ২০১৯, ১৫:৪১
কাদেরকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী বক্তব্য প্রত্যাহার এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও দেশবাসীর কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানদের সমন্বয়ে গঠিত মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।


ক্ষমা না চাইলে তার পদত্যাগের দাবিতে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানান।


সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের মুখপাত্র ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ.ক.ম জামাল উদ্দিন।


লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ধানমন্ডি ৩/এ তে অবস্থিত আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর দলীয় কার্যালয়ে ৩০ জুন এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেছেন, ‘যুদ্ধাপরাধী ও জামাত পরিবারের সন্তানরাও আওয়ামী লীগে যোগ দিতে পারবে, আওয়ামী লীগের সদস্য হওয়ার ক্ষেত্রে রাজনৈতিক ভূমিকা প্রাধান্য পাবে, কোন পরিবারের সন্তান সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। হউক সে জামাত কিংবা যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সন্তান। তার মতে, স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর এসে এই সকল বিষয় সামনে এনে রাজনৈতিক প্রতিবন্ধকতা হাস্যকর।


আমরা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ জনাব ওবায়দুল কাদেরের এই ধরণের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী বক্তব্য ঘৃণাভরে প্রত্যাখান করি। তার এই ধরণের ঘৃন্য বক্তব্য আমাদের জাতির মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সুস্পষ্টলঙ্ঘন। এমনকি এই বক্তব্য প্রদান করে তিনি সংবিধানের লঙ্ঘন করেছেন। রাজাকার পরিবারের পক্ষে এই বক্তব্যে দিয়ে তিনি শপথ ভঙ্গ করেছেন এবং তার বক্তব্য দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকিস্বরূপ। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ মনে করে এর ফলে সরকারে থাকার বৈধতাও তিনি হারিয়েছেন।


প্রায় দুই-তিন দশক স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার ও তাদের পরিবারের সন্তানরা কখনো সরাসরি কিংবা কখনো বিএনপির ছত্রছায়ায় থেকে আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মীদের হত্যা করেছে, নিষ্ঠুর নির্যাতন করেছে, মামলা-হামলা দিয়ে বিপর্যস্ত করেছে।


সেই নিষ্ঠুর নিপীড়নের কথা জনাব ওবায়দুল কাদের ভুলে গেলেও আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কাণ্ডারী হাজার হাজার নেতাকর্মীরা এখনো ভুলে যায়নি। সে কারণে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ আওয়ামী লীগের আজন্ম লালিত অসম্প্রাদায়িক নীতি আদর্শের সাথে একাত্ম হয়ে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে বলিয়ান হয়ে জনাব ওবায়দুল কাদেরকে এই ধরনের অর্বাচীন বক্তব্য অবিলম্বে প্রত্যাহারের আহবান জানাচ্ছে।


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জন্মলগ্ন থেকে আজ পর্যন্ত কোন নেতা এ ধরনের বক্তব্য প্রদান করেননি। আওয়ামী লীগের গত নির্বাচনের মেনিফেস্টোতেও এ ধরনের কোনো বক্তব্যের লেশমাত্র ছিল না। এ ধরনের হীন বক্তব্যে জনাব ওবায়দুল কাদেরের ব্যক্তিগত রাজনৈতিক দেউলিয়াত্বের প্রকাশ পেয়েছে এবং এরমাধ্যমে প্রমাণ হয় তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া করার এক গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন। তার এই ধরনের আদর্শচ্যুত বক্তব্যে সারাদেশের হাজার হাজার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ক্ষোভে ফুঁসে উঠছে।


যে কোনো সময়ে তিনি আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ প্রিয় নেতাকর্মীদের দ্বারা লাঞ্চিত ও অপমানিত হতে পারেন। এমতাবস্থায় বাংলাদেশের জনগণ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আশা ভরসার শেষ স্থল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার কাছে বিনীত অনুরোধ জনাব কাদের সাহেবকে আর দেরী না করে এখনই অবসর দেয়া হোক। অন্যথায় তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও জননেত্রী শেখ হাসিনা তথা সরকারের আরো বড় ধরনের কোনো ক্ষতি করে ফেলবেন যা সামাল দেয়া কোনক্রমেই সম্ভব হবে না। জনাব কাদেরের এইধরনের নোংরা বক্তব্য থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে তিনি দলের অভ্যন্তরে সাম্প্রদায়িক শক্তির অনুপ্রবেশ ঘটিয়ে শেখ হাসিনা তথা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের নেতাদের হত্যা বা নিশ্চিহ্ন করার পথ প্রশস্ত করছেন।’’


লিখিত বক্তব্য জামাল উদ্দিন বলেন, আমি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আওয়ামী লীগের হাজারো নেতাকর্মীকে ওবায়দুল কাদেরের দেয়া বক্তব্যের প্রতিবাদ জানানোর আহবান জানাচ্ছি। জাতি আশা করে তিনি আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধবিরোধী বক্তব্য প্রত্যাহার করবেন এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও দেশবাসীর কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইবেন। যদি তিনি তা না করেন, তাহলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ তার পদত্যাগের দাবিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ নেতাকর্মীদের নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে।


আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যকে অসাধু, অসংলগ্ন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী আখ্যা দিয়ে সংগঠনটির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। শনিবার শাহবাগ জাদুঘরের সামনে মানববন্ধন পালন করবেন তারা। কর্মসূচি শেষে ওবায়দুল কাদেরের কুশপুত্তলিকা দাহ করার ঘোষণাও দেন তারা।


সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের ঢাবির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আল মামুনসহ মঞ্চের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com