সাইবার হামলা হতেই থাকবে, প্রয়োজন সতর্কতা
প্রকাশ : ১৫ মে ২০১৭, ১৬:৪১
সাইবার হামলা হতেই থাকবে, প্রয়োজন সতর্কতা
প্রবীর সরকার
প্রিন্ট অ-অ+

র‍্যানসমওয়্যারটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ওয়ানাক্রাই’ - আক্ষরিক অর্থ অনেকটা - কাঁদতে চাই। গত ১২ মে থেকে এই র‍্যানসমওয়্যারটি পুরো বিশ্বের কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের কান্নার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ‘ওয়ানাক্রাই’ এখন বিশ্বের প্রধান সংবাদ।


১৪ মে ছিল আক্রমণের তৃতীয় দিন। ওইদিন সন্ধ্যার সর্বশেষ খবর অনুযায়ী বিশ্বের ১৫০ টি দেশ এই র‍্যানসমওয়্যারটির দ্বারা আক্রান্ত। হামলার শিকার দুই লাখেরও বেশি। যুক্তরাজ্য ও রাশিয়া সব চাইতে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ। বাদ যাচ্ছে না কোন খাত। স্বাস্থ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা, টেলিকম, ব্যবসাসহ প্রায় সব খাতের কম্পিউটার সিস্টেম আক্রান্ত।


বিশ্বজুড়ে এখন সাপ্তাহিক ছুটির রেশ। আতঙ্কের ব্যাপক প্রকাশ শুরু হবে আজ সোমবার থেকে। এদিকে খবর আসছে ‘ওয়ানাক্রাই’র দ্বিতীয় সংস্করণ তৈরি। দ্বিতীয় দফা আঘাত হানতে পারে আজ সোমবার ; আরও ভয়ঙ্কররূপে।


র‍্যানসমওয়্যার গত দু বছর ধরেই সাইবার ত্রাসের শীর্ষে। আক্রান্ত হলে কিছুই করার থাকে না। হয় পণ দিয়ে উপাত্ত বা সিস্টেম পুনরুদ্ধার অথবা সব হারিয়ে নতুন করে আবার শুরু করা। ব্যাকআপ থাকলে ভালো, না থাকলে একেবারেই নতুন করে শুরু করতে হয়।


বিষয়টা অনেকটা বাস্তব জীবনের অপহরণ ঘটনার মতো। বাস্তবের সন্ত্রাসীরা যেমন কাউকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করে, তেমনি সাইবার সন্ত্রাসীরা কোনো কম্পিউটার, সিস্টেম, নেটওয়ার্ক, সার্ভার, বা মোবাইল ডিভাইসের কর্তৃত্ব নিয়ে তা ফিরিয়ে দেয়ার জন্য অর্থ দাবি করে। এই অর্থ পরিশোধ করতে হয় ভারচুয়াল কারেন্সি বিটকয়েন দিয়ে। আবার পণ পরিশোধ করলেও অপহৃত উপাত্ত বা সিস্টেম যে ফেরত পাওয়া যাবে তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই।


‘ওয়ানাক্রাই’ হামলার প্রতিটি ক্ষেত্রের জন্য পণ চাওয়া হয়েছে ৩০০ ডলার সমপরিমাণ বিটকয়েন, যা পরবর্তীতে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৬০০ ডলার সমপরিমাণ। হামলার শিকারকে সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে পণ পরিশোধের। না হলে পণের পরিমাণ বাড়তে থাকবে। উপায় না পেয়ে অনেকেই পণ পরিশোধ করছেন। তা করে কয়জন এই বিপদ থেকে মুক্তি পেয়েছেন তা এখন জানা যায়নি।


কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে বিষয়টা ভিন্ন। বিটকয়েন আমাদের প্রচলিত মুদ্রাব্যবস্থায় স্বীকৃত নয়। চাইলেই বাংলাদেশে আক্রান্ত কেউ বিটকয়েনে পণ পরিশোধ করতে পারবেন না; অন্তত বৈধভাবে তো নয়ই। ফলে বাংলাদেশে কেউ আক্রান্ত হলে সমগ্র বিষয়টা হয়ে যেতে পারে ভীষণ জটিল।


র‍্যানসমওয়্যারের বড় ধরনের আক্রমণ ছিল অনেকটা প্রত্যাশিত। কিন্তু ওয়ানাক্রাই সেই হিসাবনিকাশের অনেক অনেক উপরে। বিশ্বজুড়ে এক সাথে এমন সাইবার হামলার এত বড় ঘটনা আগে ঘটেনি। ওয়ানাক্রাইকে নির্দ্বিধায় বলা যায় প্রথম বিশ্ব সাইবার আক্রমণ।


প্রশ্ন থাকে, এত তাড়াতাড়ি এত ব্যাপক হামলা সম্ভব হলো কি করে। এত বড় হ্যাক কি সম্ভব ?


আসলে ওয়ানাক্রাইর ক্ষেত্রে কোনো হ্যাকের প্রয়োজন হয়নি। এই র‍্যানসমওয়্যারের সাথে জড়িত সাইবার অপরাধীরা সুযোগ নিয়েছে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের একটা দুর্বলতার। মাইক্রোসফট গত ১৪ মার্চ এই দুর্বলতা বন্ধ করার জন্য একটা আপডেট ছেড়েছে ঠিকই, কিন্তু অধিকাংশ ব্যবহারকারী গতানুগতিকভাবেই আপডেটটা করেনি। অটো আপডেট থাকে বন্ধ। তার উপর পাইরেটেড সফটওয়্যারের দৌরাত্ম্য। আর সবার মতোই ওয়ান্নাক্রাই সন্ত্রাসীদেরও জানা ছিল যে, এমনটাই হবে। ওই সুযোগটাই নিয়েছে তারা।


বেহুলা-লক্ষ্মীন্দরের গল্পটা নিশ্চয়ই মনে থাকার কথা। লোহার বাসর ঘর করেও রক্ষা হলো না লক্ষ্মীন্দরের। সূচের মতো সরু ফুটো করিয়ে মনসা দেবী সাপ পাঠিয়ে লক্ষ্মীন্দরকে পাঠিয়ে দেয় যমালয়ে। ওই একটা ফুটোই প্রয়োজন ছিল। ওয়ান্নাক্রাই দস্যুদেরও তেমনি মাইক্রোসফট উইন্ডোজের ওই একটা ফুটোই প্রয়োজন ছিল।


এই সাইবার হামলার ঘটযেপ্রবাহ শেষ হতে এখন অনেক দেরি। আজ সোমবার। খবর আসতে থাকবে বিশ্বের সব প্রান্ত থেকে। ভয়াবহতার চিত্রটা এখনি পরিষ্কার বা সম্পূর্ণ না। এই মুহূর্তে বাঁচার উপায় একটাই - দ্রুত মাইক্রোসফট উইন্ডোজের আপডেট, নিরাপত্তা সফটওয়্যারের আপডেট এবং পুরো সিস্টেমের ব্যাকআপ। এই তিনটা পদক্ষেপ ভীষণ জরুরি। সাথে আরেকটি সতর্কতা - এতটুকু সন্দেহ হয় এমন কোনো ফাইল বা ইমেইল সংযুক্তি না খোলা।


ওয়ানাক্রাই কোনভাবেই শেষ সাইবার হামলা হবে না। একের পর এক আক্রমণ হতেই থাকবে। আজ না হয় কাল। না হয় পরশু। নানা নামে। নানা ফন্দিতে। সাইবার অপরাধীরা বসে নেই। থাকবেও না। আমাদের বুঝতে হবে যে সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে হেলাফেলা করার আর কোন সুযোগ নেই। সময়টা যে এখন ডিজিটাল।


লেখক : সিইও, ক্যাসপারস্কি ল্যাব, বাংলাদেশ অ্যান্ড ভূটান


বিবার্তা/উজ্জ্বল/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com