ডেঙ্গুতে আজও চারজনের প্রাণহানি
প্রকাশ : ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৩:০৮
ডেঙ্গুতে আজও চারজনের প্রাণহানি
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ডেঙ্গু রোগী বেড়েই চলছে ঢাকাসহ সারা দেশে। রবিবার দিবাগত রাত এবং সোমবার সকালে খুলনা, ফরিদপুর,ময়মনসিংহ ওকুষ্টিয়ায় ডেঙ্গু আক্রান্ত চাররোগী মারা গেছেন।


খুলনায় সবজি বিক্রেতার মৃত্যু


খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিজানুর রহমান (৪০) নামে এক ডেঙ্গু রোগী মারা গেছেন। সোমবার সকাল ৭টায় তিনি মারা যান। তিনি পেশায় একজন সবজি বিক্রেতা ছিলেন। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক ফিজিশিয়ান (আরপি) ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


এর আগে ১৫ আগস্ট মিজানুর রহমান খুমেকের ডেঙ্গু ওয়ার্ডে ভর্তি হন। মিজানুর রহমানের বাড়ি রূপসা উপজেলার খাজাডাঙ্গা গ্রামে।


ফরিদপুরে মসজিদের খাদেমের মৃত্যু


ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দেলোয়ার হোসেন (৩৫) নামে মসজিদের এক খাদেমের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান।


দেলোয়ার হোসেন ফরিদপুর সদর উপজেলার নর্থচ্যানেল ইউনিয়নের গোলডাঙ্গীচর এলাকার শেখ শফিউদ্দিনের ছেলে। তিনি শহরের পূর্বখাবাসপুর মসজিদের খাদেম হিসেবে কর্মরত ছিলেন।


ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক কামদা প্রসাদ সাহা বলেন, দেলোয়ার শেখ গত ১৮ আগস্ট ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে সদর হাসপাতাল থেকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুরুষ মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি হন। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।


দেলোয়ার শেখকে দিয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ছয় রোগীর মৃত্যু হলো। গত ২৪ ঘণ্টায় ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৫৭ জন ভর্তি হয়েছেন। এখন পর্যন্ত ফরিদপুরে ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছেন ৩৪৬ জন।


ময়মনসিংহে যুবকের মৃত্যু


এর আগে রবিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনোয়ার হোসেন (৪০) নামে এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. সামশুজ্জামান সেলিম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।


গত ১১ আগস্ট ওই হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন আনোয়ার হোসেন। তিনি নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার আব্দুল লতিফের ছেলে।


এছাড়া ২৯ জুলাই থেকে সোমবার পর্যন্ত ২২ দিনে রাজবাড়ীর সরকারি হাসপাতালগুলোতে মোট ২৪১ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে নতুন করে আরও ১০ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে এবং বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৬ জন রোগী। সোমবার সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।


হবিগঞ্জে এ পর্যন্ত ৭২ জন ডেঙ্গু রোগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এর মাঝে সদর আধুনিক হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ছয়জন। গত এক মাসে ১৫ জন ডেঙ্গু রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।


কুষ্টিয়া গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যু


কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার সীমান্ত সংলগ্ন বিলগাথুয়া গ্রামের বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী চালন বেগম (৩৫) ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোমবার (১৯ আগস্ট) সকালে মারা গেছেন।


স্থানীয় ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন চালন বেগমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত চালন বেগম ঢাকায় গার্মেন্টসে কর্মরত ছিলেন। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ঈদে বাড়ি আসার পর অবস্থার অবনতি হলে ১৭ আগস্ট সে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন।


কুষ্টিয়ায় এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে ৪১৪ জন। এর মধ্যে বর্তমানে কুষ্টিয়া হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৬০ জন রোগী। আর গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে শিশুসহ ১৭ জন।


কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. রওশন আরা জানান, প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হচ্ছে কুষ্টিয়ার হাসপাতালে। তবে তারা সবাই শঙ্কামুক্ত ও নিরাপদে আছেন।


বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com