আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের ইজতেমা
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৪
আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের ইজতেমা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

দেশের কল্যাণ, দুনিয়া ও আখেরাতের শান্তি কামনা করে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো এবারের বিশ্ব ইজতেমা। বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয়ে ১২টা ২ মিনিটে মোনাজাত শেষ হয়।


মঙ্গলবার এ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় ধাপের ইজতেমা। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার প্রথম ধাপ শুরু হয়।


তাবলিগ জামাতের দিল্লি মারকাজের অনুসারীদের অংশগ্রহণে টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্যায় শেষে এই আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন লাখো মানুষ। মোনাজাত পরিচালনা করেন দিল্লির মাওলানা শামীম।


দ্বিতীয় পর্যায়ের ইজতেমা সোমবার শেষ হওয়ার কথা থাকলেও বিরূপ আবহাওয়ায় প্রথম দিনের কর্মসূচি বিঘ্নিত হওয়ায় আখেরি মোনাজাত এক দিন পিছিয়ে দেয়া হয়।


আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে মঙ্গলবার ভোর থেকেই দূর দূরান্ত থেকে টঙ্গীতে আতে শুরু করে মানুষ। যানবাহন না পেয়ে অনেকেই পায়ে হেঁটে ইজতেমা মাঠে পেঁছান।


ফজরের নামাজের পর উর্দুতে বয়ান করেন দিল্লির হাফেজ ইকবাল নায়ার। বাংলায় তা তরজমা করে শোনান বাংলাদেশের মাওলানা মুফতি ওসামা বিন ওয়াসিফ। সকাল ১০টার দিকে উর্দু ভাষায় হেদায়েতি বয়ান করেন দিল্লির মাওলানা শামীম। বাংলায় তা তরজমা করেন মাওলানা আশরাফ আলী।


মাওলানা শামীম পরে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন। আখেরি মোনাজাতের আগেই ইজতেমা ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। ময়দানের আশপাশের অলি-গলি, রাস্তা, পাশের বাসাবাড়ি, কল-কারখানা ছাদ, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক, টঙ্গী-ঘোড়াশাল ও কামারপাড়া সড়কে অবস্থান নিয়েও অনেকে মোনাজাতে অংশ নেন।


ভোররাত থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভোগড়া এলাকা বন্ধ করে দেয়া হয়। এছাড়া আব্দুল্লাহপুর-আশুলিয়া সড়কেও যানচলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।


মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানে ৩৬টি দেশের প্রায় ১২শ বিদেশি মেহমানও ইজতেমা ও আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ময়দানে উপস্থিত ছিলেন বলে ইজতেমা কর্তৃপক্ষ জানান।


ইজতেমাকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি কাকরাইল মসজিদের ইমাম মাওলানা জোবায়ের এবং দিল্লির মাওলানা সাদ পন্থীদের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এরপর ইজতেমার দায়িত্ব নেয় সরকার। ইজতেমা শুরুতে স্থগিত করা হয়। পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ধর্ম মন্ত্রণালয় বিবাদমান দুটি পক্ষকে নিয়ে ঢাকায় সভা করে। ওই সময় সরকারের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে দুই পক্ষ বিশ্ব ইজতেমা করতে রাজি হয়। পরে ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে মাওলানা জোবায়ের পক্ষকে ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি এবং সাদ পন্থীদের ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করে দেয়া হয়।


এদিকে ২০২০ সালে দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি প্রকৌশলী মাহফুজুর রহমান। তিনি বলেন, প্রথম ধাপের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১০, ১১ ও ১২ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় ধাপের তারিখ নির্ধারণ করা হয় ১৭, ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি।


উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা নিয়মিত অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। মানুষের দুর্ভোগ সংকট কাটাতে ২০১১ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা দুই পর্বে ভাগ করে আয়োজন করা হয়।


বিবার্তা/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com