ভুঁইফোড় অনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী
প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:৫২
ভুঁইফোড় অনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

নবনিযুক্ত তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, ‘দেশে অনেক ভুঁইফোঁড় অনলাইন সংবাদমাধ্যম তৈরি হয়েছে। তারা অনেক সময় ভুল সংবাদ পরিবেশন করে। এতে অনেকের চরিত্র হননের ঘটনাও ঘটে। এগুলো আপনাদের সবার সহযোগিতায় সম্মিলিতভাবে মোকাবিলা করব।’


মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।


তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি এ মন্ত্রণালয়ে নতুন এসেছি। সবার সহযোগিতা প্রয়োজন হবে। সাংবাদিকদের যেসব দাবি-দাওয়া রয়েছে, সেগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে। অবাধ তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিত করতে সব ধরনের পদক্ষেপই আমরা গ্রহণ করব।’


ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তথ্য মন্ত্রণালয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি মন্ত্রণালয়। রাষ্ট্রের চতুর্থ অঙ্গ হচ্ছে গণমাধ্যম। গণমাধ্যম সমাজের দর্পণ। সমাজের সব চিত্র দেখায় গণমাধ্যম। রাষ্ট্রের অন্যান্য স্তম্ভের সঙ্গে ও গণমাধ্যমের সমন্বয় থাকলে দেশ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবে।


তিনি বলেন, বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিকাশ ঘটেছে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে। বর্তমানে বাংলাদেশে বেসরকারি অনেক টেলিভিশন চ্যানেল রয়েছে। বেসরকারি চ্যানেলের যাত্রা শুরু হয় প্রধানমন্ত্রী যখন প্রথম দেশ পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করেন, তখন থেকে।


মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে অনলাইন মিডিয়ার যে ব্যাপক বিকাশ ঘটেছে, সেটি শেখ হাসিনার হাত ধরেই হয়েছে। বাংলাদেশে আজকে যে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম প্রচণ্ড শক্তিশালী হয়েছে, সেটিও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হয়েছে। চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন।


ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমার জীবনে অনেক চ্যালেঞ্জ ছিল। স্কুলজীবন থেকে সব সময় আমি চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছি। আজও করব। সাংবাদিকদের অনেক সমস্যা আছে। কিছু জানি, আবার কিছু জানার চেষ্টা করব।’



তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'আমাদের নির্বাচনী ইশহেতারে বলা হয়েছে ‘গ্রাম হবে শহর’। প্রধানমন্ত্রী শুধু অঙ্গীকার করেন না, তা বাস্তবায়ন করেন। আমাদের নেত্রী জাতিকে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন, বাংলাদেশ হবে ডিজিটাল। সেই স্বপ্ন তিনি অনেক আগেই বাস্তবায়ন করেছেন।'


মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশে এখন ছেঁড়া কাপড় পরা মানুষ দেখা যায় না। খালি পায়ে মেঠোপথে মানুষ চলতে দেখা যায় না। যেই দেশে মানুষের ঘনত্ব অনেক বেশি, যেই দেশে খাদ্য ঘাটতি ছিল, সেই দেশে এখন খাদ্য উদ্বৃত্ত থাকে।


এর আগে সচিবালয়ে প্রবেশ করলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ড. হাছান মাহমুদকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।


বিবার্তা/হাসান/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com