‘তরুণদের জন্য প্রযুক্তি নির্ভর দেশ গড়তে কাজ করছে সরকার’
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১২:১৮
‘তরুণদের জন্য প্রযুক্তি নির্ভর দেশ গড়তে কাজ করছে সরকার’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশ উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে তরুণ সমাজ। সেই তরুণ প্রজন্মের ভবিষ্যত নিশ্চিতে প্রযুক্তি নির্ভর দেশ গড়তে কাজ করছে বর্তমান সরকার।


গণভবনে রবিবার সকালে মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি (এমএনপি) সেবার উদ্বোধন ‍উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।


চলতি মাসের ১ তারিখ থেকে বাংলাদেশে পরীক্ষামূলকভাবে বাণিজ্যিকভাবে বহুল প্রতীক্ষিত এমএনপি সেবা চালু করা হয়েছে। এর ফলে বাংলাদেশ এমএনপি সেবা দেয়া ৭২তম দেশ হয়েছে। এই সেবা চালু হওয়ার ফলে গ্রাহকরা তার নম্বর অপরিবর্তিত রেখেই যে কোনো কোম্পানির নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার স্বাধীনতা পাবেন। যা এর আগে নম্বর পরিবর্তনের ঝামেলার জন্য সম্ভব ছিল না।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, এদেশের মানুষের সেবা দেয়া কঠিন। আর সেই কঠিক কাজটি করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে এদেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের কাজ করে যাচ্ছে সরকার।


তিনি বলেন, তরুণ প্রজন্ম নৌকায় ভোট দিয়েছিলো বলে গত ১০ বছরে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন করা সম্ভব হয়েছে। এ কারণে আমরা চাই তরুণ প্রজন্মের একটি কর্মঘন্টা যেন নষ্ট না হয়।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, তরুণদের মনযোগ দিয়ে লেখাপড়া করতে হবে। তাদেরকে প্রযুক্তি সম্পর্কে আরো জানতে হবে। বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য যা যা করা দরকার আমরা তা করবো। আমরা বর্তমান প্রজন্ম তরুণদের জন্য উৎসর্গ করছি। কারণ তরুণরাই ভবিষ্যতে এই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।


তিনি বলেন, উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলোর সাথে প্রতিযোগিতা করে টিকে থাকতে হলে তরুণদের তথ্য-প্রযুক্তির দিকে বেশি আগ্রসর হতে হবে। আগামীতে দেশে পরিচালনার দায়িত্ব তাদের নিতে হবে।


বাংলাদেশে প্রথম মোবাইল ফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা বর্ণনা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপির এক মন্ত্রী প্রথম মোবাইল ফোনের কোম্পানি খুলেছিলেন। ওই সময় উনি আমাকে একটি ফোন উপহার দেন। মোবাইল ফোনটির আয়তন ও ব্যাটারির আকার ছিল তুলনামূলক অনেক বড়। আপনি যদি ফোন করেন তবে প্রতি মিনিট ১০ টাকা দিতে হবে। আর সেই যুগে ১০ টাকা কিন্তু কম না। একদিনের বাজার হয়ে যেতো। আবার যদি ফোন ধরেন তাহলেও ১০ টাকা। তখন আমি তাকে ফোনটি ফেরত দিয়ে বললাম ভাই ধরলেও ১০ করলেও ১০। এটা আমার পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়। এটা আমি পারবো না।


তিনি বলেন, এই ছিল আমাদের দেশের অবস্থা। আমি আশা করি, আজকে যারা মোবাইল ফোন এক টাকা, দুই টাকা, তিন টাকা করে ব্যবহার করেন, তারা নিশ্চয় এই কাহিনিটা জানেন না। তাদের জানা উচিত। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মের জানা উচিত। তরুণরা তাদের বাপদাদাদের কাছে জিজ্ঞাসা করলে জানতে পারবেন। তাদের ইতিহাসটাও জানা দরকার।


আওয়ামী লীগ সরকারের সময় ব্যাপক কর্মসংস্থান হয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, তরুণ সমাজ কিন্তু এটা বুঝতে পেরেছিল যে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় গেলে কর্মসংস্থান তৈরি হবে; পরিবর্তন হবে। আমি তরুণ সমাজের জন্য সরকারি চাকরির পাশাপাশি বেসরকারি খাতও উন্মুক্ত করে দিয়েছি। গত ১০ বছরে কর্মসংস্থান ব্যাপকহারে আমরা করে দিয়েছি- সেটা দেশের জন্য অনেক বড় সাফল্য।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৯৬’এর আগে বিএনপি সরকারের সময় কেউ মোবাইল, কম্পিউটার সেবা পায়নি। আমাদের বাংলাদেশের জন্য ওই সাবমেরিনের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সুযোগ এসেছিল, কিন্তু বিএনপি সরকার তা নাকোচ করে দেয়। তারা বলেছিল, বাংলাদেশ সাবমেরিনের সঙ্গে যুক্ত হলে নাকি সব গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যাবে।


তিনি বলেন, এখন আমরা নিজেরাই ডিজিটাল ডিভাইস তৈরি করছি। এই শিল্প আরো সম্প্রসারণ হলে তরুণদের আরো বেশি কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে। এজন্য যে ২৮টি হাইটেক পার্ক করা হচ্ছে, তা অবদান রাখবে। তরুণদের আর পরমুখাপেক্ষী হয়ে বসে থাকতে হবে না। আমরা এক অ্যাপসের মাধ্যমে নয়টি ভাষা শেখার ব্যবস্থা করছি। এই ভাষা শিখে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমেও বাংলাদেশের মানুষ আয় করতে পারবে।


তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশের উন্নয়নের জন্য এখন বিদেশের কাছে হাত পাততে হচ্ছে না। আমরা নিজেদের টাকা দিয়ে পাদ্মা সেতু নির্মাণ করছি।


অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ও প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।


এছাড়া ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৬৬টি মিনি স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি একই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) কমপ্লেক্সে একটি মাল্টিস্পোর্ট ইনডোর কমপ্লেক্স এবং ৬ জেলায় যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রও উদ্বোধন করেন।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com