দেশে কোনো গুম হচ্ছে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৮, ১৪:৩৬
দেশে কোনো গুম হচ্ছে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, দেশে কোনো গুম হচ্ছে না। যেগুলোকে আপনারা গুম বলছেন, সেগুলো আসলে গুম না। আমরা কিন্তু তাদের ধরে সামনে আনছি। আর বিচারবহির্ভূত কোনো হত্যা আমরা করি না।


তিনি বলেন, কেউ প্রেমে ব্যর্থ হয়ে গুম হয়ে যান, কেউ ব্যবসায় ব্যর্থ হয়ে গুম হয়ে যান। আবার দুইজনের মন মিল হয়ে গেলে এক হয়ে যান। এসব লোকজনকে আমরা কোথায় পাবো? তারপরও আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমাদের জানা মতে বেশিরভাগ গুমই এরকম।


ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে মঙ্গলবার মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।


রাজধানীর হলি আর্টিজান ও শোলাকিয়া হামলার কথা স্মরণে করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশে যখন একের পর এক হামলা হচ্ছিল তখন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সকল বাহিনীর সদস্যরা এক হয়ে তা প্রতিহত করেন। নিরাপত্তা বাহিনীর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন দেশবাসী। সবাই সাহয্য করেছেন। এ সময় দেশের সব মানুষ এক হয়ে গিয়েছিল।


বাংলাদেশের মানুষজন অত্যন্ত ভাল উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষ দাবি আদায়ের আন্দোলনে সফল। তারা আবারো প্রমাণ করেছে তারা হত্যা চান না, তারা জঙ্গিদের আশ্রয় দেন না, যারা সমাজকে নষ্ট করতে চায় তাদেরকে আশ্রয় দেন না।


হলি আর্টিজান হামলার পর বন্ধুদেশগুলো আস্থা হারিয়েছিলে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সেই আস্থা ফিরিয়ে এসেছি। বাংলাদেশের অনেক এলাকায় এখন বিদেশিরা কাজ করছে।


আইন-শৃঙ্খল বাহিনীকে অনেক শক্তিশালী করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রায় ৬০ লাখ আনসার সদস্যকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। যে কোনো হামলা মোকাবেলা করার জন্য তারা প্রস্তুত রয়েছে।


বন্দুকযুদ্ধে নিহত টেকনাফের কাউন্সিলর একরামুলের যে কথোপকথন প্রকাশ হয়েছে সে প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সেটা আমাদের তদন্তে আছে। আমি যতটুকু জানি আপনারাও ততটুকু জানেন। তদন্ত হচ্ছে যেই এটার সঙ্গে জড়িত আছে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা আমরা নেবো। আমাদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা এইটুকু যে অন্যায় করবে তার বিচার হবে। সবার জন্য আইন সমান।


মাদক নির্মূলে কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না দাবি করে মন্ত্রী বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মাদক সম্পূর্ণ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত এই যুদ্ধ চলবে। পুলিশ এমনকি সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। আমরা এমন কিছু করতে চাই না যাতে নিরীহ ব্যক্তি আক্রান্ত হয়।


তিনি বলেন, পাঁচটি গোয়েন্দা সংস্থাকে তাগাদা দিয়ে মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা করিয়েছি। যাদের নাম কমন পড়ছে তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। বিচারে নির্দোষ হলে ছেড়ে দিচ্ছি।


সাংবাদিক দম্পতি সাগর–রুনি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন আলোর মুখ দেখবে কী না ? এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আদালত র‍্যাবকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন। র‍্যাব বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। পৃথিবীজুড়ে অনেক তদন্ত আছে, যেগুলো বছরের পর বছর ধরে চলে।


রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে তিনি বলেছেন, আন্তর্জাতিক জঙ্গিদের সহজ টার্গেট হবে এই রোহিঙ্গারা, এটা আমি সবসময় বলে আসছি। আমি জাতিসংঘে বলে এসেছি। সেখানে আমি বলে এসেছি যে টেরোরিস্টদের সহজ আস্তানা হতে পারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প, আপনারা ব্যবস্থা নিন। এরা আমাদের নজরদারিতে আছে, আমরা আমাদের ক্যাপাসিটি অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।


তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে যে পাঁচ দফা দাবি দিয়েছিলেন সেগুলোর আলোকে তাদের যদি পুনর্বাসন না করা যায় তাহলে হয়তো তারা ফেরত যাবে না। তাদের দুর্বিষহ জীবনে যদি গ্যারান্টি না থাকে তাহলে তারা কীভাবে যাবে? মিয়ানমারের শীর্ষ নেতারা সবসময় বলে যাচ্ছেন তারা রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত নেয়ার কোনো চিহ্ন আমরা দেখলাম না।


মন্ত্রী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর, বিভ্রান্ত বা উদ্দেশ্যমূলকভাবে যেসব খবর বা মেসেজ আদান-প্রদান করা হয়ে এগুলো শনাক্ত করতে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। খুব শিগগই তাদের শনাক্ত করা হবে। সামাজিক নিরাপত্তা বৃদ্ধির জন্য এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।


অনুষ্ঠানের শুরুতে মন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ের সফলতার বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন। এ সময় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শুক্কুর আলী শুভ ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


বিবার্তা/খলিল/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com