কঠোর নিরাপত্তা বইমেলায়, খুশি সবাই
প্রকাশ : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৯:১০
কঠোর নিরাপত্তা বইমেলায়, খুশি সবাই
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টনীতে চলছে ‘অমর একুশে বইমেলা’। ফলে মানুষ নির্ভয়ে মেলা থেকে বই কিনে বাড়ি ফিরতে পারছেন। বিক্রেতারাও স্বস্তি নিয়ে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।


বুধবার বিকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণে চলমান বইমেলা ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে।


আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বরত সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মেলার শুরুর দিকে লোকসমাগম কম হলেও বর্তমানে নেক বেশি। তাদের নিরাপত্তা দিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এর মধ্যে রয়েছে সকল গেটে আর্চওয়ে স্থাপন, প্রত্যেক দর্শনার্থীর দেহ মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে তল্লাশি করা এবং মেলা প্রাঙ্গণ ও তার আশেপাশের এলাকায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন।


এছাড়া মেলা প্রাঙ্গণ ও তার আশপাশে স্থাপন করা হয়েছে ওয়াচ টাওয়ার। ইউনিফর্ম পরিহিত ও সাদা পোশাকে পুলিশ মেলার ভেতরে-বাইরে সারবক্ষণিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।


তারা আরো জানান, মেলায় প্রতিটি স্টলে একটি করে অগ্নি নির্বাপণ যন্ত্র রাখা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের অ্যাম্বুলেন্স ও আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য পানির গাড়ি রয়েছে। মেলা প্রাঙ্গণে ও বাইরে সার্বক্ষণিক পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা থাকছে। নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য বিকল্প জেনারেটরের ব্যবস্থা রয়েছে।


দেখা গেছে, টিএসসি হতে দোয়েল চত্বর পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাড়ি, ফ্ল্যাগযুক্ত গাড়ি ও বাংলা একাডে্মির স্টিকারযুক্ত গাড়ি ব্যতীত অন্য কোনো গাড়ি প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। টিএসসি প্রান্তে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মল চত্বরে গাড়ি পার্কিং ও দোয়েল চত্ত্বর প্রান্তে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া অন্য কোথাও গাড়ি পার্কিং করা যাচ্ছে না। বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণে প্রবেশের জন্য বাংলা একাডেমী মূল প্রবেশ গেইট ও বাংলা একাডেমী ব্যাংক গেইট দিয়ে প্রবেশ করতে হচ্ছে। বাংলা একাডেমী হতে বের হওয়ার জন্য বাংলা একাডেমীর মেলার বাহির গেইট ব্যবহার হচ্ছে।


অন্যদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলায় প্রবেশের জন্য তিনটি প্রবেশ গেইট রয়েছে। এক নাম্বার প্রবেশ গেইট সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নব নির্মিত গেইট। দুই নাম্বার প্রবেশ গেইট টিএসসি গেইটের মধ্যবর্তী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভিতরে প্রবেশ গেইট। তিন নাম্বার প্রবেশ গেইট রমনা কালিমন্দির গেইট হতে তিন নেতার মাজারের মধ্যবর্তী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভিতরের প্রবেশ গেইট। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বই মেলা হতে বের হতে তিনটি গেইট ব্যবহার করতে হবে। বাহির গেইট হিসেবে রমনা কালিমন্দির গেইট( বাংলা একাডেমীর বিপরীতে বাহির গেইট-১), মুক্ত মঞ্চের ৩০ গজ উত্তর-পূর্বে ও কালিমন্দির সংলগ্ন পুকুরের পশ্চিম প্রান্ত ব্যবহার করা হচ্ছে।


এদিকে একাধিকবার বই মেলা প্রাঙ্গণ পরিদর্শন করেছেন ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সর্বশেষ মঙ্গলবার বিকালে তারা বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্থাপিত বেশ কিছু বইয়ের স্টল পরিদর্শন করেন এবং গৃহীত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রকাশক, পাঠক ও দর্শনার্থীদের সাথে কথা বলেন।


পরে ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, এবারের বইমেলায় বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ইভটিজিং, ছিনতাই, অজ্ঞান ও মলম পার্টি প্রতিরোধে পুলিশের বিশেষ টিম কাজ করছে। দর্শনার্থীদের বিনামূল্যে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। মেলায় পুলিশ ব্লাড ব্যাংক স্থাপন করা হয়েছে। লস্ট এন্ড ফাউন্ড সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। বম্ব ডিসপোজাল টিম ও ডগ স্কোয়াড দ্বারা মেলা প্রাঙ্গণ ও তার আশপাশে সুইপিং করা হচ্ছে।


নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করায় প্রকাশক, পাঠক ও দর্শনার্থীরা নির্বিঘ্নে মেলায় চলাচল করতে পারছেন। এ ব্যাপারে বলাকা প্রকাশন নামের একটি স্টলে স্বত্বাধিকারী শরিফা বুলবুল জানান, এবারের বই মেলায় বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেওয়ায় তার্বুলখুশি। শুরুর দিকে দর্শানার্থী কিছুটা কম হলেও এখন আগের তুলনায় অনেক বেশি বইপ্রেমী মানুষ মেলায় আসছেন।


আবুল হোসেন নামের এক দর্শনার্থী জানান, তিনি প্রায় সাত বছর থেকে মেলায় আসছেন। তবে অন্যান্যবারের চেয়ে এবার মেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারী খুবই ভালো।


বিবার্তা/খলিল/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com