বুয়েট ভিসির পদত্যাগ চায় শিক্ষক সমিতি
প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২০:৪৬
বুয়েট ভিসির পদত্যাগ চায় শিক্ষক সমিতি
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্যর্থ হওয়ায় বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলামের পদত্যাগ দাবি করেছে শিক্ষক সমিতি।


ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের সামনে ৭ দফা দাবি উত্থাপন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে সমিতির সভাপতি একেএম মাসুদ বলেন, ‘আমরা ভিসির পদত্যাগ দাবি করছি। তিনি শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন।’


তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করি তিনি তার পদ থেকে পদত্যাগ করবেন এবং যদি তিনি পদত্যাগ না করেন তাহলে আমরা সরকারকে আহ্বান জানাবো তাকে সরিয়ে দিতে’।


তাদের অন্য দাবিগুলো হলো-আবরারের হত্যাকারীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করা, আবরার হত্যা মামলার ব্যয় বুয়েট প্রশাসনের বহন করা, বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা, হত্যাকারীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা, অবৈধভাবে দখলে থাকা হলের আসন উদ্ধার করা এবং ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।


এদিকে আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় মোট ১৬ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।এদের মধ্যে এজাহারনামীয় ১২ জন এবং এজাহারের বাহিরে ৪ জন।


গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে এজাহারনামীয় ১২ জন হলো-১। মেহেদী হাসান রাসেল, ২। মোঃ অনিক সরকার, ৩। ইফতি মোশাররফ সকাল, ৪। মোঃ মেহেদী হাসান রবিন, ৫। মোঃ মেফতাহুল ইসলাম জিওন, ৬। মুনতাসির আলম জেমি, ৭। খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, ৮। মোঃ মুজাহিদুর রহমান, ৯। মুহতাসিম ফুয়াদ, ১০। মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, ১১। মোঃ আকাশ হোসেন ও ১২। হোসেন মোহাম্মদ তোহা।


গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে এজাহার বহির্ভূত চার জন হলো


১। ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, ২। অমিত সাহা, ৩। মোঃ মিজানুর রহমান ওরফে মিজান ও ৪। শামসুল আরেফিন রাফাত।


ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও সিটিটিসি প্রধান মোঃ মনিরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার আবরার হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।


তিনি বলেন, বুয়েটের শেরেবাংলা হলে আবরার ফাহাদ রাব্বীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় এজাহার দায়ের করার পূর্বেই ৭ অক্টোবর ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের প্রত্যেকেই ৫ দিনের রিমান্ড এনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এছাড়াও ৮ অক্টোবর ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদেরও ৫ দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আজ (১০ অক্টোবর, ২০১৯) আরো ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।


মরিন বলেন, ঘটনার সাথে যারাই প্রত্যেক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত থাকুক প্রত্যেককেই আইনের আওতায় আনা হবে। মামলাটি পেশাদারিত্ব ও সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সাথে তদন্ত করা হচ্ছে। এ বিষয়ে যদি কারো কাছে কোনো তথ্য থাকে তবে আমাদের তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করবেন।


উল্লেখ্য, রবিবার (৬ অক্টোবর) মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনা সংক্রান্তে নিহতের বাবা মোঃ বরকত উল্লাহ ১৯ জনসহ অজ্ঞাতনামা কয়েক জনকে অভিযুক্ত করে চকবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ করলে একটি হত্যা মামলা রুজু হয়। পরবর্তী সময়ে চকবাজার থানায় রুজুকৃত মামলাটির তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) তে হস্তান্তর করা হয়।


বিবার্তা/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com