‘কোনো নালিশ শুনতে চাই না, নিজেদের ইমেজ বাড়াতে হবে’
প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:২৪
‘কোনো নালিশ শুনতে চাই না, নিজেদের ইমেজ বাড়াতে হবে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ছাত্রলীগ নেতাদের সর্তক করে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনো নালিশ শুনতে চাই না। নিজেদের ইমেজ বাড়াতে হবে। সংগঠনের ইমেজ (ভাবমূর্তি) বাড়বে এমনভাবে কাজ করতে হবে।


নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সংগঠনটির কয়েকজন শীর্ষনেতা শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গণভবনে গেলে তিনি এসব কথা বলেন।


বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় প্রতিনিধিদলটি প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে গিয়ে তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে। পরে প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হাসান জাহিদ তুষার একথা জানান।


দল ও সহযোগী সংগঠনগুলোর মধ্যে শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি। একে একে সব ধরব। সমাজের অসঙ্গতি এখন দূর করব। একে একে এসব ধরতে হবে। আমি করব। জানি এগুলো কঠিন কাজ। কিন্তু করব। এই কাজ করতে গিয়ে অনেক বাধা আসবে। তারপরও আমি করবই।


নাহিয়ান জয় ও লেখকের সঙ্গে ছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি তানজিল ভূঁইয়া তানভীর, রেজাউল করিম সুমন, সোহান খান, আরিফিন সিদ্দিক সুজন, আতিকুর রহমান খান, ইশাত কাসফিয়া ইরা; যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী, আরিফুজ্জামান আল ইমরান, শামস-ই-নোমান, মো. শাকিল ভূঁইয়া, মহিউদ্দিন আহম্মেদ, বেনজীর হোসেন নিশি; সাংগঠনিক সম্পাদক সাবরিনা ইতি, মামুন বিন সাত্তার ও সাজ্জাদ হোসেন।


এছাড়াও ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন; ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি মো. ইব্রাহিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মো. সাইদুর রহমান হৃদয়; ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সভাপতি মো. মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক মো. জুবায়ের আহমেদ।


ছাত্রলীগ নেতাদের সঙ্গে গণভবনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সাংগঠনিক বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও বি এম মোজাম্মেল হকও।


নানা বিতর্ক, অভিযোগ ও সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে যথাক্রমে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীকে সরিয়ে দেওয়া হয়। এই দুই পদে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে আল নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্যকে দায়িত্ব দেন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক অভিভাবক, আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


১৬ সেপ্টেম্বর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে দায়িত্ব পালন শুরু করেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। তিন দিনের মাথায় তারা গণভবনে সাংগঠনিক অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ পেলেন।


বিবার্তা/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com