‘বালিশকাণ্ডে’ সরকারের পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট
প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১৭:২১
‘বালিশকাণ্ডে’ সরকারের পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের আবাসন প্রকল্পের দুর্নীতির তদন্ত প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে জড়িতদের বিরুদ্ধে সরকার কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে, তা দেখতে চান হাইকোর্ট। ফলে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য মামলার শুনানি ঈদের ছুটির এক সপ্তাহ পর পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে।


রবিবার (২১ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।


এদিন রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম।


২ জুলাই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে গ্রিণ সিটি আবাসন প্রকল্পে দুর্নীতি তদন্তে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দুটি কমিটির তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার পর জড়িতদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে, তা জানানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।


একই সঙ্গে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ভবনে আসবাবপত্র বিশ্বস্ততার সঙ্গে (গুড ফেইথ) কেনা ও উত্তোলনের ব্যর্থতা কেন অবৈধ হবে না-তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত।


এর আগে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বলেছিলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ভবনে আসবাবপত্র কেনায় যাদের বিশ্বস্ততা দেখানোর কথা ছিল, তারা সেখানে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন। এ ব্যর্থ হওয়াটা কেন অবৈধ বলে বিবেচনা করা হবে না, এ মর্মে আদালত রুল প্রদান করেন। এছাড়া আদালত সরকারপক্ষকে বলেছেন, দুই সপ্তাহের মধ্যে তারা কী প্রতিবেদন নিয়ে আসবেন, তা জমা দেয়ার জন্য এবং রিপোর্টের ভিত্তিতে কী ব্যবস্থা নিয়েছেন, তাও দুই সপ্তাহের মধ্যে আদালতকে জানাতে হবে।


রিটের বিবাদীরা হচ্ছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব, গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকোশলী, রাজশাহীর অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও নির্বাহী প্রকৌশলী এবং রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক।


রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের গ্রিনসিটি প্রকল্পের ১১০টি ফ্ল্যাটের জন্য অস্বাভাবিক দামে আসবাবপত্র কেনা ও ভবনে ওঠানোর ঘটনা অনুসন্ধানে নেমেছে দুদক। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে এ ঘটনা তদন্তের জন্য গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলীকে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com