‘নিজেদের দেশের মানুষকে ধোঁকা দিতে আরসিবিসি মামলা করেছে’
প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯, ১৬:৪৮
‘নিজেদের দেশের মানুষকে ধোঁকা দিতে আরসিবিসি মামলা করেছে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশন (আরসিবিসি) দেশটির জনগণকে ধোঁকা দিতেই বাংলাদেশ ব্যাংকের বিরুদ্ধে ‘মানহানির’ মামলা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।


ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোয়াসু ইজুমির সঙ্গে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তিনি বলেন, আরসিবিসির কর্মকর্তাদের আচরনটা আমার আইনী আচরণ বলে মনে হয়নি। আমার মনে হয় তারা নিজেদের দেশের মানুষকে ধোঁকা দেওয়ার জন্য মামলাটা করেছে।


তিনি বলেন, ফিলিপিন্স সরকার ফিলিপাইনের সিনেট পর্যন্ত হ্যাকিংয়ের কারণে বা আচরণে বা কন্ডাক্টের জন্য আরসিবিসিকে দায়ী করেছে। সেখানে বাংলাদেশ আইনী পন্থায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করলে সেটা মানহানিকর কিছু নয়।


তিন বছর আগে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে বাংলাদেশের রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ উদ্ধারের আশায় গত ২ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলা করে বাংলাদেশ ব্যাংক।


তার জবাবে আরসিবিসি মানহানির অভিযোগ এনে গত ৬ মার্চ ফিলিপিন্সের সিভিল কোর্টে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিরুদ্ধে পাল্টা একটি মামলা করে।


নির্বাচনী ইশতেহারে প্রান্তিক পর্যায়ে নাগরিক সেবা পৌঁছে দেয়ার কথা আছে। এ জন্য উপজেলা পর্যায়ে আদালত গঠনের কোনো চিন্তা-ভাবনা আছে কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘উপজেলাতে আদালত গঠন করার কোনো চিন্তা-ভাবনা নেই। আগে উপজেলায় আদালত ছিল। আমরা যেটা করছি, অলরেডি বিদ্যমান, সেটা হচ্ছে- একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে একটা উপজেলার জন্য ডেজিগনেট করা হচ্ছে, যাতে সেই উপজেলার যে মামলাগুলো সেগুলো ওই ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে যায় এবং ত্বরিৎ মামলাগুলোর কার্যক্রম শুরু হয়।’


‘আমি মনে করি এটা দিয়েই আমরা যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছি। সেই কারণে উপজেলা পর্যায়ে একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে পাঠানোর প্রয়োজনীয়তা আছে বলে আমার মনে হয় না,’যোগ করেন আইনমন্ত্রী।


জাপানের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী বছর ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসের বিচারপতি নির্বাচিত হওয়ার জন্য একটা নির্বাচন হবে। এটা রুটিন নির্বাচন। জাপানের রাষ্ট্রদূত আমাকে জানালেন জাপান একজন বিচারপতিকে সেখানে নির্বাচনের জন্য প্রার্থী করতে চায় এবং সাউখ এশিয়ার জন্য যে সিট আছে সেটায় নির্বাচন করবেন, সেখানে বাংলাদেশে সমর্থন চান।’


আনিসুল হক বলেন, ‘আমি অন্য প্রার্থীদের বিষয়ে তার কাছে জানতে চেয়েছি, আপাতত তারা জানতে পেয়েছেন- ইন্দোনেশিয়া ও ভিয়েতনাম ক্যান্ডিডেট হতে পারে। আমরা যেহেতু আগামী নির্বাচনে কোনো প্রার্থী দিচ্ছি না সেহেতু আমি তাকে বলেছি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা করে জাপানের প্রতি আমাদের সমর্থন কনফার্ম করব।’


তিনি আরোও বলেন, ‘বাংলাদেশের দুঃসময়ে জাপানের সহযোগিতা এবং তাদের জনগণের সহমর্মিতার জন্য তাকে (রাষ্ট্রদূত) ধন্যবাদ জানিয়েছি। বিদ্যুৎ প্ল্যান্ট করার জন্য জাপান যে সহযোগিতা করছে সে জন্য তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছি। আর হলি আর্টিজানের মামলার বিষয়েও আমি তাকে আপডেট দিয়েছি।’


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com