গায়েবি মামলার অভিযোগে রিট মামলায় বিভক্ত আদেশ
প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ২২:০৫
গায়েবি মামলার অভিযোগে রিট মামলায় বিভক্ত আদেশ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে গায়েবি মামলা করেছে, এমন অভিযোগ করে বিএনপিপন্থী তিন আইনজীবীর রিট আবেদনের ওপর বিভক্ত আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।


বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী রিটটি আমলে নিয়ে গায়েবি মামলা করার অভিযোগটি তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে পুলিশ মহাপরিদর্শককে (আইজিপি) প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে ঢাকা মহানগর এলাকায় আবেদনকারীসহ ও অন্য নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা করার অভিযোগ তদারকি ও অনুসন্ধানে পদক্ষেপ নিতে আইজিপিকে নির্দেশ দেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী।


অপর বিচারপতি আশরাফুল কামাল এ রিট আবেদনটি সংবিধানবহির্ভূত আখ্যায়িত করে তা সরাসরি খারিজ করেছেন। আদেশে তিনি বলেন, রিট আবেদনকারীদের বিষয়টি ফৌজদারি মামলাসংশ্লিষ্ট। এ ব্যাপারে প্রতিকারের জন্য ফৌজদারি আদালতে প্রতিকার চাইতে পারেন। সংবিধানসম্মত আবেদন না হওয়ায় শুরুতে রিট মামলা খারিজ করা হলো।


মঙ্গলবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই বিভক্ত আদেশ দেন। আইনজীবীরা বলছেন, বিভক্ত আদেশ হওয়ায় নিয়ম অনুসারে এখন বিষয়টি প্রধান বিচারপতির কাছে যাবে। প্রধান বিচারপতি একটি বেঞ্চ (তৃতীয় বেঞ্চ) গঠন করে দেবেন, ওই বেঞ্চে বিষয়টির শুনানি ও নিষ্পত্তি হবে।


জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী আবেদনকারীদের এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে কথিত উদ্দেশ্যমূলক ‘গায়েবি’ ফৌজদারি মামলা করা কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী। একই সঙ্গে এ ধরনের ‘গায়েবি’ মামলা দায়েরের সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা-ও রুলে জানতে চেয়েছেন বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি।


জ্যেষ্ঠ বিচারপতির ঘোষিত আদেশে বলা হয়, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আইন অনুসারে মুক্তভাবে তদন্তকাজ পরিচালনা করতে পারবেন। এর সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে বেঞ্চের অপর বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল আদেশ দেন।


গত ২৩ সেপ্টেম্বর বিএনপির তিন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, নিতাই রায় চৌধুরী ও সানাউল্লাহ মিঞা ওই রিটটি করেন। তাঁদের মধ্যে খন্দকার মাহবুব ও নিতাই রায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এবং সানাউল্লাহ মিঞা বিএনপির আইন সম্পাদক। গতকাল সোমবার ও আজ রিটের ওপর শুনানি নিয়ে আদেশ দেওয়া হয়।


এর আগে মধ্যাহ্নবিরতির পর আদালত পক্ষগুলোর বক্তব্য শোনেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ ও একরামুল হক। অন্যদিকে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন ও নিতাই রায় চৌধুরী।


বিবার্তা/রোকন/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com