ট্যাঙ্কারে হামলার ঘটনায় ইরান দায়ী: ট্রাম্প, জাপানের ‘না’
প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৯, ১৩:৩৮
ট্যাঙ্কারে হামলার ঘটনায় ইরান দায়ী: ট্রাম্প, জাপানের ‘না’
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ওমান উপসাগরে তেলবাহী দু’টি ট্যাঙ্কারে রহস্যজনক হামলার ঘটনায় সম্পূর্ণভাবে ইরান দায়ী।


এ হামলায় ইরান কোনোভাবে জড়িত না তেহরানের এমন দাবি প্রত্যাখান করে শুক্রবার তাদেরকে দায়ী করেছেন তিনি।


এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে তাদের মধ্যে সংঘাত বেঁধে গেলে ইরান বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ তেল সরবরাহ পথ হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দিতে পারে তেহরানের আগের এমন হুমকি উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প।


মার্কিন সামরিক বাহিনী একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করার কয়েক ঘণ্টা পর ট্রাম্প জোরালোভাবে বলেন, ওই ভিডিও ফুটেজে ট্যাঙ্কারগুলোর একটি থেকে অবিস্ফোরিত একটি মাইন ইরানের টহল নৌযানকে সরিয়ে ফেলতে দেখা যাচ্ছে। মাইনটি জাহাজের সাথে বেঁধে রাখা হয়েছিল।


ট্রাম্প ফক্স নিউজকে বলেন, ইরান এটা করেছে। আপনারা জানেন তারাই এটি করেছে কারণ আপনারা নৌযানটি দেখেছেন। আমি ধারণা করছি মাইনগুলোর একটি বিস্ফোরিত হয়নি। আর এটি তাদের সরিয়ে ফেলা জরুরি ছিল কারণ এতে ইরানের নাম থাকতে পারে। এতে প্রমাণিত হয় যে এ হামলার ঘটনায় তেহরান পরোপুরি জড়িত রয়েছে।


তিনি আরো বলেন, আপনারা দেখেছেন নৌযানটি রাতে মাইনটি খুলে নেয়ার চেষ্টা করছে এবং এ কাজে তারা সফলও হয়।


ইরান যুক্তরাষ্ট্রের এমন অভিযোগ প্রত্যাখান করেছে। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ টুইটার বার্তায় বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র কোনো প্রমাণ ছাড়াই এ হামলার ব্যাপারে তড়িঘড়ি করে তেহরানকে দায়ী করে।


এদিকে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তেনিও গুতেরেস এ হামলার ব্যাপারে নিরপেক্ষ তদন্তের আহবান জানিয়েছেন। নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদরদফতরে গুতেরেস সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনার সত্যটা জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।


ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারেমি হান্ট বলেন, তাদের দেশেরও ধারণা যে এ হামলার পেছনে ইরানের হাত রয়েছে এটা প্রায় নিশ্চিত।


লন্ডন বৃহস্পতিবারের এ হামলায় ইসলামি বিপ্লবী গার্ডকে দায়ী করেছে। এটি ইরানের সামরিক বাহিনীর একটি বৃহত্তম ও শক্তিশালী শাখা।


এদিকে হামলার শিকার দু’টি তেল ট্যাংকারের একটির মালিক জাপানের ইউতাকা কাতাদা। তিনি বলেছেন, সাগর থেকে পাতানো মাইনের মাধ্যমে নয় বরং আকাশ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের মাধ্যমে তার জাহাজে হামলা চালানো হয়েছে।


‘কোকুকা সাঙ্গিও’ কোম্পানির প্রেসিডেন্ট কাতাদা শুক্রবার টোকিওতে এক সংবাদ সম্মেলনে হামলার শিকার ট্যাংকারের হামলার স্থানের ছবি দেখিয়ে বলেন, আমরা তেল ট্যাংকারটির আকাশ দিয়ে উড়ে যাওয়া কোনো কিছুর খবর পেয়েছি।


তিনি বলেন, জাহাজের পাশে লাগিয়ে দেয়া কোনো টাইম বোমা বা মাইনের মাধ্যমে এ হামলা চালানো হয়নি। আকাশ থেকে ছুটে আসা ক্ষেপণাস্ত্র তার জাহাজে আঘাত হেনেছে। তার ফলে জাহাজের এক পাশে ফুটো হয়ে যায়।


হামলার শিকার তেল ট্যাংকারের জাপানি মালিক ছবি দেখিয়ে আরো বলেন, জাহাজের অনেক উপরের দিকে হামলা হয়েছে। কাজেই গানবোট থেকে পাতানো মাইন বা টর্পেডোর মাধ্যমে এ হামলা হতে পারে না। বিস্ফোরণ হলে জাহাজের অন্যান্য স্থানও ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কথা। সূত্র: এএফপি


বিবার্তা/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com