জাতির উদ্দেশে দেয়া মোদির পুরো ভাষণ
প্রকাশ : ২৪ মে ২০১৯, ১৩:০৭
জাতির উদ্দেশে দেয়া মোদির পুরো ভাষণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

৪৮ বছরের পুরনো রেকর্ডে ভাগ বসিয়ে ফের দিল্লির মসনদে বসেছেন নরেন্দ্র সিং মোদি। এর আগে ভারতে দুই দফায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার রেকর্ড ছিল দুইবার। এবার নিয়ে এটি তিনবারে গিয়ে ঠেকলো।


১৯৫১-৫২ ও ১৯৬২ সালের নির্বাচনে জওহরলাল নেহরু এবং ১৯৬৯ ও ১৯৭১ সালের নির্বাচনে ইন্দিরা গান্ধির নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস এ রেকর্ড গড়েছিল।


চলতি বছরের এপ্রিলের ১১ তারিখ থেকে শুরু হয় ১৭তম লোকসভা নির্বাচন। ৭ দফায় এবারের ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ১৯ মে ৮টি অঞ্চলের ৫৯টি আসনে ভোটগ্রহণের মধ্যদিয়ে শেষ হয় নির্বাচন। ভোটগ্রহণের চারদিন পর অর্থাৎ ২৩ মে একযোগে ভোটের ফলাফল প্রকাশ করে ভারতের নির্বাচন কমিশন।


সন্ধ্যা পর্যন্ত ঘোষিত ফলাফলেই স্পষ্ট হয়ে আগের বারের চেয়ে আরো বেশি আসন নিয়ে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন বিজেপি। সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে জয়লাভের পর জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং মোদি।


মোদি যদিও আগেই সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছন, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও সব শরিক দলকে নিয়ে সরকার গঠন করবেন তিনি। অপরদিকে সরকার গঠনের চিত্র স্পষ্ট হতেই মন্ত্রিসভা নিয়ে জল্পনাও শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক শিবিরে।


জাতির উদ্দেশে দেয়া নরেন্দ্র মোদির পুরো বক্তব্য বিবার্তার পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।


ভাষণের শুরুতেই মোদি বলেন, কখনও কোনও ভুল হলে আমাকে ধরিয়ে দেবেন। দ্বিতীয়ত, দেশবাসী


আপনারা আমাকে যে বিরাট দায়িত্ব দিয়েছেন, তার জন্য আমি বলব, আমি আমার জন্য কিছুই করবো না। তৃতীয়ত, আমার সময় শুধু এবং শুধুই দেশবাসীর জন্য।


এরপর মোদি বলেন, কাজ করতে করতে ভুল হতে পারে, কিন্তু খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে কোনও কাজ করব না। আমি দেশবাসীকে আজ অবশ্যই বলব, এটা আমার প্রতিজ্ঞা বা প্রতিশ্রুতি মনে করুন। আপনারা আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন, আগামী দিনে আমি খারাপ উদ্দেশ্যে, খারাপ মনোভাব নিয়ে কোনও কাজ করব না। আমি আজ বলতে চাই, আপনারা আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন, তা পালন করব।


• দেশের জনসাধারণ আমাদের উপর আস্থা রেখেছন, তাই আমাদের দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল।


• আপনাদের আশা-আকাঙ্খার গুরুত্ব আমি বুঝি।


• আপনারা এই ভিখারির ঝুলি তো ভর্তি করে দিয়েছেন, কিন্তু আপনাদের আশা-আকাঙ্খার সঙ্গে আমি সব সময় থাকব।


• তাই এই সময় দেশবাসীকে আমি একটা কথা বলতে চাই।


• দেশ আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে।


• গণতন্ত্র, সংবিধানের মর্যাদা আমরা রক্ষা করব।


• সামনের দিকে তাকিয়ে চলতে হবে আমাদের।


• আমাদের গরিবদের সামান্য সামান্য চাহিদা পূরণ করতে হবে।


• ২০১৯ থেকে ২০১৪, এই সময়টা স্বাধীনতা সংগ্রামে শহিদদের সম্মান জানানোর উপযুক্ত সময়।


• গাঁধীজির ১৫০ আর স্বাধীনতার ৭৫ বছর, ২০২২ সালই সম্মান জানানোর উপযুক্ত সময়।


• একবার মনে করুন, এটাই উপযুক্ত সময় মহাত্মা গাঁধীকে সম্মান জানানোর উপযুক্ত সময়।


• এই দুই পক্ষের হাতই শক্ত করতে হবে।


• এই দেশে এখন দু’টো জাতি, গরিবি থেকে যাঁরা মুক্তি পেতে চান, এবং গরিবি থেকে মুক্তি দিতে চান।


• এই জাত-পাতের রাজনীতির কারবারীদের উচিত শিক্ষা দিয়েছে।


• সরকার আসবে যাবে, কিন্তু ভারতের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য দেশবাসী এক কঠিন পরীক্ষার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।


• বন্ধুরা, এই ভোট একবিংশ শতাব্দীর সামাজিক ও রাজনৈতিক জীবনের জন্য।


• এটাই প্রথম কোনও রাজনৈতিক দল, যারা পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকার পরও কোনও দুর্নীতির অভিযোগ নেই।


• একটাও বিরোধী দল অভিযোগ করেনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে।


• এ বারের ভোটে একটাও রাজনৈতিক দল সেকুলারিজমের পক্ষ নিয়ে ভোটে লড়েনি।


• কিন্তু এ বার ভোট দিয়ে তারা বুঝেছেন, ভোট সঠিক জায়গায় গিয়েছে।


• বন্ধুরা, এই জয় সেই সব মধ্যবিত্ত পরিবারের, যাঁরা দেশের জন্য কর দিয়েছেন, কিন্তু পাঁচ বছর আগে পর্যন্ত সম্মান পাননি।


• এটা একবিংশ শতাব্দীর ভারতবর্ষ, সেই শতাব্দীর কথা মাথায় রেখেই এগিয়ে যেতে হবে।


• গতকাল আমাকে বলেছেন অমিত শাহ, দেখিয়েছেন, সময় করে দেখব।


• আমি ভোটপ্রচারে ব্যস্ত থাকায় নির্বাচনী কাজকর্ম দেখতে পারিনি।


• কিন্তু সেই দুই থেকে আমরা দু’বার ক্ষমতায় এসে গিয়েছি।


• বিজেপির বিশেষত্ব এটাই যে, আমরা কখনও দু’জন ছিলাম, কিন্তু আদর্শ থেকে বিচ্যুত হইনি।


• ভারতীয় জনতা পার্টির এই কর্মকর্তাদের কোটি কোটি ধন্যবাদ প্রাপ্য।


• কোটি কোটি কর্মকর্তার মনে শুধু একটাই ভাবনা, ‘ভারত মাতা কি জয়’।


• ভারতীয় জনতা পার্টির কোটি কোটি কর্মকর্তাদের পরিশ্রম, গর্ব হয় যে এমন দলে আছি, যেখানে এই রকম কর্মী রয়েছেন।


• তাদের আমি আশ্বস্ত করি, সবার সঙ্গে কাঁধ মিলিয়ে আমরা কাজ করব।


• ভারতের সংবিধানের প্রতি সমর্পিত ও ঐক্যের প্রতি সমর্পিত লোকজনের এই জয়।


• যে সব বিধানসভায় প্রতিনিধিরা জয়ী হয়ে এসেছেন, তাদেরও সবাইকে আমি অভিনন্দন জানাই।


• দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্য সমস্ত বিজয়ী প্রার্থী কাজ করবেন।


• আমি বিজেপির সব কর্মকর্তাদের, এনডিএর কর্মীদের ধন্যবাদ জানাই।


• সেই কারণেই কেউ যদি জয়ী হয়ে থাকে, তাহলে জয়ী হয়েছে ভারতবর্ষ, জয়ী হয়েছে দেশবাসী।


• কিন্তু আজ আমার ভাবনা স্পষ্ট করে দিয়ছে জনতা।


• যাদের চোখ-কান বন্ধ ছিল, তাদের ভাষা বোঝা আমার পক্ষে কঠিন ছিল।


• এই ভোট কোনও প্রার্থী, কোনও নেতা লড়ছে না, দেশের আম জনতা লড়ছে।


• দেশের সামান্য নাগরিকের ভাবনাও ভারতের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।


• আমি সব সময় হস্তিনাপুরের পক্ষে দাঁড়িয়ে ছিলাম।


• নির্বাচন কমিশন, সুরক্ষা বাহিনী এবং যারা যারা ভোটের সঙ্গে যুক্ত, তাঁদের সবাইকে ধন্যবাদ।


• গণতন্ত্রের ইতিহাসে গণতন্ত্রের জন্য মৃত্যু বরণ করা, আগামী প্রজন্মকে প্রেরণা দেবে।


• গণতন্ত্রের এই উৎসবে, গণতন্ত্রের জন্য যে সব মানুষ প্রাণ দিয়েছেন, যে সব মানুষ আহত হয়েছেন, তাদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা জানাচ্ছি ।


• গণতন্ত্রের প্রতি ভারতবাসীর দায়দায়িত্ব সারা বিশ্বকে স্বীকার করতে হবে।


• এই দেশবাসীকে আমি প্রণাম করি।


• আজ এই ফকিরের ঝোলা পূর্ণ করে দিয়েছে দেশবাসী।


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com