৪৯টি সন্তানের বাবা এক ফার্টিলিটি চিকিৎসক
প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৩৬
৪৯টি সন্তানের বাবা এক ফার্টিলিটি চিকিৎসক
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

নেদারল্যান্ডস এর একজন ফার্টিলিটি চিকিৎসকের ক্লিনিকে নারীদের লাইন লেগে থাকত আইভিএফ পদ্ধতিতে মা হওয়ার জন্য। অথচ ডোনারের স্পার্মের বদলে একের পর এক নারীদের শরীরে নিজের শুক্রাণু ভরে দিতেন নেদারল্যান্ডের এক চিকিৎসক। এইভাবে ৪৯ জন সন্তানের পিতা হয়েছেন তিনি।


যদিও ২০১৭ সালে ৮৯ বছর বয়সেই মৃত্যু হয় জান কারবাত নামে ওই ডাচ চিকিৎসকের৷ ২০০৯ সালে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তার ওই আইভিএফ ক্লিনিক। শুক্রবার তার ক্লিনিক থেকে আইভিএফ করিয়ে মা হওয়া ৪৯ জন নারীর সন্তানের ডিএনএ পরীক্ষা করানো হয়। পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে, ওই ৪৯ সন্তান ওই চিকিৎসকের শুক্রাণুতেই জন্ম নিয়েছে।


যদিও জানা গেছে, নিজের জীবদ্দশায় ৬০ সন্তানের বাবা হয়েছেন বলে ডিএনএ পরীক্ষাও করিয়েছিলেন জান কারবেত। সেই রিপোর্ট এতদিন আদালতের কাছেই সুরক্ষিত ছিল৷ এমনকী মৃত্যুর আগে ওই চিকিৎসক তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ স্বীকার করে গিয়েছিলেন বলেও জানানো হয়েছে।



ক্লিনিক ছিল নেদারল্যান্ডসের রটারড্যাম এলাকায়। এসব ক্লিনিকে আসতেন সন্তান নিতে সমস্যা রয়েছে এমন নারী ও দম্পতিরা।


ঘটনাটি যেভাবে বের হল


এই চিকিৎসকের ক্লিনিকে সহায়তার মাধ্যমে জন্ম নেয়া একটি শিশুর চেহারা দেখতে মারাত্মকভাবে মিলে যাচ্ছিলো ডা. কারবাতের সাথে। সেখান থেকেই সন্দেহের শুরু। ২০১৭ সালে তার সহায়তায় জন্মানো ৪৯ ব্যক্তি ও তাদের বাবা ও মায়েরা একই সন্দেহ থেকে আদালতে মামলা করেন।


যাদের বেশিরভাগেরই জন্ম ৮০ দশকে। তাদের সন্দেহ হচ্ছিলো এই চিকিৎসকের সাথে তাদের কোনো সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু ওই বছরই ৮৯ বছর বয়সে মারা যান সেই চিকিৎসক। এরপর তার বাড়ি ও অফিস থেকে বহু কাগজপত্র জব্দ করা হয়। সেই বছরই ডিএনএ পরীক্ষা সম্পন্ন করে এই ব্যাপারে আদালত জানতে পারে। কিন্তু এতদিন সবগুলো মামলার কার্যক্রম শেষ না হওয়ায় বিস্তারিত তথ্য প্রকাশের ব্যাপারে কিছু বাধা নিষেধ ছিল।


এখন আদালত তথ্য প্রকাশ করার অনুমতি দিয়েছে।


এব্যাপারে সন্তানদের প্রতিক্রিয়া


এগারো বছর ধরে নিজের বাবাকে খুঁজেছেন তার ক্লিনিকে চিকিৎসার মাধ্যমে জন্ম নেয়া একজন।অবশেষে তিনি জেনেছেন তার বাবা স্বয়ং তার মায়ের চিকিৎসক।


তিনি বলছেন, ১১ বছর ধরে খোঁজার পর এখন আমি আমার জীবনে ফিরে যেতে পারবো। একটি অনিশ্চিত অধ্যায়ের অবশেষে সমাপ্তি হল। আমি খুশি যে অবশেষে আমি আমার প্রশ্নের জবাব পেয়েছি। ডাঃ কারবাত নিজেকে দাবি করতেন, এসিস্টেড রিপ্রোডাকশন' বিষয়ক একজন পথিকৃৎ হিসেবে। তার বিরুদ্ধে সেসময় অভিযোগ ছিল তিনি শুক্রাণু দানকারীদের সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন। এখন প্রশ্ন উঠছে তার জন্ম দেয়া সন্তানের সংখ্যা হয়ত আরো বেশি হবে। সূত্র: বিবিসি


বিবার্তা/আকবর

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com