দেশে ফেরার আগে নওয়াজ শরীফ যা বললেন-
প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৮, ১৭:৫৪
দেশে ফেরার আগে নওয়াজ শরীফ যা বললেন-
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ বলেছেন, দেশে একদল লোক ‘রাষ্ট্রের উর্ধে রাষ্ট্র’ পরিচালনা করছে। তাদের হাত থেকে পাকিস্তানকে মুক্ত করতে আমি দেশে ফিরবোই।


সেন্ট্রাল লন্ডনের মে ফেয়ার এলাকায় অবস্থিত গ্রসভেনর হাউস হোটেলের বলরুমে বুধবার নিজ দলের এক সম্মেলনে বক্তৃতায় নওয়াজ শরীফ এ কথা বলেন।


তিনি বলেন, আমি আমার চোখের সামনে জেলখানার শিক দেখতে পাচ্ছি। তারপরও আমি পাকিস্তানে ফিরে যাচ্ছি। আমার দেশবাসী আমাকে তিন-তিনবার দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করে আমাকে যে গৌরব দান করেছে, আমি দেশবাসীকে তার প্রতিদান দিতে চাই।


পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে নওয়াজ শরীফ বলেন যে শুক্রবার দেশে ফিরে লাহোর বিমানবন্দরে দলের নেতা-কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে বক্তব্য দিতে পারবেন বলে তিনি আশাবাদী।


তিনি বলেন, আমি জনগণকে বলছি, বিশেষ করে নারীসমাজকে, ঘর থেকে বাঘের মতো বেরিয়ে আসুন এবং সব বাধা পায়ে দলে লাহোর বিমানবন্দরে চলে আসুন। জনগণের সমাবেশকে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না।


তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতা কেউ থালায় করে এনে দেবে না, এর জন্য চাই আত্মোৎসর্গ।


নওয়াজ শরীফ বলেন, মরিয়ম ও আমি কারাবরণ করতে আসছি। এমনকি ওরা যদি আমাদের ফাঁসিতেও ঝোলাতে চায়, তবুও আমরা ফিরবো। কারণ, আমরা জানি আত্মত্যাগ ছাড়া স্বাধীনতা আসে না। আমার স্ত্রী মৃত্যুশয্যায়, এ অবস্থায় তাকে ছেড়ে আসা সহজ কথা নয়। তবুও আমরা বাপ-বেটি দেশে আসছি এ গোলামী থেকে দেশকে মুক্ত করার কাজে ভূমিকা রাখতে।


তিনি আরো বলেন, আমরা সবসময় ''রাষ্ট্রের ভেতরে রাষ্ট্র'' কথাটা শুনে এসেছি। কিন্তু অবস্থা আজ এমন পর্যায়ে পৌঁছে যে এখন নাকি ''রাষ্ট্রের উর্ধে রাষ্ট্র''। ২৫ জুলাইর নির্বাচনে আমাদেরকে এ অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতেই হবে। ১৯৪৭ সালের পর আগামী ২৫ জুলাই হবে আরেকটি ঐতিহাসিক দিন। সেদিন আমি ও মরিয়ম জেলে বসে নির্বাচনের ফল শুনবো।


পাকিস্তানের সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণের রায় দেশের ৭০ বছরের গতিপথ পাল্টে দিতে এবং তাদের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে পারে। বস্তুত এ নির্বাচন হবে একটি গণভোট, যার মাধ্যমে প্রতিটি পাকিস্তানীকে সিদ্ধান্ত দিতে হবে যে তারা কি একটা বিপজ্জনক খেলার অংশ হয়ে থাকতে চায়, নাকি ক্বায়েদে আজম যেমন পাকিস্তান চেয়েছিলেন তেমন পাকিস্তান পেতে চায়।


নওয়াজ শরীফ বলেন, ''একটি গোষ্ঠী'' জনগণের সার্বভৌমত্বের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নয়। ওরা গত ৭০ বছর ধরে জনগণের নির্বাচিত একের পর এক প্রধানমন্ত্রীকে গায়ের জোরে ছুঁড়ে ফেলেছে। ইতিহাস দেখুন, একজন প্রধানমন্ত্রীকে ফাঁসিতে ঝোলানো হয়েছে (জেড এ ভুট্টো), আরেকজনকে গুলী করে মারা হয়েছে (বেনজির ভুট্টো) এবং আরেকজনকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে (নওয়াজ শরীফ)। তাঁদের কী অপরাধ ছিল? তারা কি রাষ্ট্রদ্রোহী ছিলেন? অথচ দেখুন আরেক সামরিক শাসক (পারভেজ মুশাররফ), যে কিনা সংবিধান লঙ্ঘন করেছিল, বিচারপতিদের জেলখানায় ভরেছিল, সে এখনো গায়ে হাওয়া লাগিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কারোই সাহস নেই তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার এবং তার অপকর্মের বিচার করার।


তিনি বলেন, দেশের প্রতিষ্ঠানগুলোকে আমি শ্রদ্ধা করি। দেশের ভবিষ্যতের জন্য যেসব বীর সেনানী জীবন দিয়েছেন, তাদের প্রতিও আমার পরম শ্রদ্ধা রয়েছে। কিন্তু তাই বলে কেউ শপথ ভঙ্গ করলে তা মেনে নেয়া যায় না।


''পর্দার অন্তরালে বসে কেউ কেউ নিজেদের মনমতো একটি সরকার বসানোর চেষ্টা করছে'' অভিযোগ করে নওয়াজ শরীফ বলেন, এ উদ্দেশ্য তারা সবখানে আমাদের নেতা-কর্মীদের হয়রানি করে চলেছে। আজ পাকিস্তানে দৃশ্যত গণতন্ত্র আছে বটে, তবে এর টুঁটি টিপে ধরা হয়েছে। মিডিয়া স্বাধীন নয়। গোটা দেশ আজ এক বৃহৎ কারাগারে পরিণত হয়েছে। তাই আজ সময় এসেছে পাকিস্তানকে একটি সভ্য দেশে রূপান্তরিত করার। আর তা করতে হলে ২৫ জুলাইর নির্বাচনে জনগণকে পিএমএল (এন)-এর পক্ষে শক্তিশালী ম্যান্ডেট দিতে হবে।


তিনি বলেন, অনেক ধৈর্য দেখিয়েছি। আর চুপ করে থাকবো না। কারা আমি ও আমার সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে সব ফাঁস করে দেবো। সূত্র : ডন অনলাইন


বিবার্তা/হুমায়ুন/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com