মন্ত্রীদের বেতন কমানোর ঘোষণা মাহাথিরের
প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৮, ২২:৪৭
মন্ত্রীদের বেতন কমানোর ঘোষণা মাহাথিরের
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

রাষ্ট্রীয় খরচ কমানোর লক্ষ্যে মন্ত্রীদের বেতন ১০ শতাংশ কমানোর ঘোষণা দিয়েছেন নতুন দায়িত্ব নেয়া মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।


নিজের মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকের পর বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই ঘোষণা দেন। মন্ত্রীদের বেতন কমানোর ঘোষণা দিলেও সরকারি কর্মচারিদের বেতন কমানোর বিষয়টি তাদের ওপরেই ছেড়ে দিয়েছেন ৯২ বছর বয়সী এই প্রধানমন্ত্রী।


বুধবার তিনি মন্ত্রীসভার প্রথম বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, বর্তমানে সরকারের ঋণের পরিমাণ ২৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে। যা দেশের জিডিপির ৬৫ শতাংশ। তবে সদ্য ক্ষমতাত্যাগী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক এর পরিমাণ ৫৫ শতাংশ বলে জানিয়েছিলেন।


বুধবার মাহাথির বলেন, সরকারি ঋণ কমানোর লক্ষ্যে নতুন সরকার মন্ত্রীদের বেতন কমানোর পদক্ষেপ নিয়েছে। উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মচারিদেরও বেতন কমানো হবে কিনা সে বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে মাহাথির বলেন, ১৯৮১ সালে আমি যখন প্রথম প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়েছিলাম, তখন প্রথম যে কাজটি করেছিলাম তাহলো মন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন কমিয়েছিলাম।


তিনি বলেন, আপনারা জানেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা মন্ত্রীদের চেয়েও বেশি বেতন পান। সে কারণে তারা যদি মনে করেন দেশের বর্তমান খরচ কমানোতে তারা অবদান রাখতে চান তাহলে তা করতে পারে। তবে আমরা তাদের জোর করবো না।


মালয়েশিয়ার পার্লামেন্টের ওয়েবসাইট অনুসারে দশ শতাংশ কমানোর আগে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর বেতন ২২ হাজার ৮২৭ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত, উপপ্রধানমন্ত্রীর বেতন ১৮ হাজার ১৬৮, মন্ত্রীদের বেতন ১৪ হাজার ৯০৭ ও উপমন্ত্রীর বেতন ১০ হাজার ৮৪৮ রিঙ্গিত।


আগে বারিসন ন্যাসিওনাল জোটের প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক সরকারি কর্মচারিদের বেতন ১ জুলাই থেকে বেতন বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। মাহাথিরের সরকার বলছে, তারা বিষয়টি পর্যালোচনা করছে।


তিনি বলেন, ‘এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল এখনকার বিরোধি দল। তারা নির্বাচনে জিততে পারেনি, আর এখন আমরা তাদের প্রতিশ্রুতি পূরণে বাধ্য নই। তবে আমরা বিষয়টি খুব ইতিবাচকভাবে দেখবো। যদি তাদের সামান্য কিছু বাড়তি বেতন দেয়া যায় তাহলে আমরা তা করবো।’


সরকারি ব্যয় কমানোর নীতিতে কর্মচারি কমানোরও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মাহাথির। তিনি বলেন, রাজনৈতিক নিয়োগ বন্ধ করবে তার সরকার। গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োজিত এসব নিয়োগপ্রাপ্তদের বিষয়ে পর্যালোচনা এবং এদের বেতন নিয়েও চিন্তা করা হবেও জানান তিনি।


তিনি জানান, রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রায় ১৭ হাজার চুক্তিভিত্তিক কর্মকর্তা রয়েছে আর তাদের অনেকেই স্থায়ী নিয়োগ পেয়েছে। তারা খুবই কম বেতন পান। আমরা তাদের আবারো বিভিন্নভাবে নিয়োগ দেবো। তবে প্রথমে তাদের বরখাস্ত করা হবে। তিনি নিশ্চিত করেন, স্বল্প আয়ের কর্মচারিরা এর ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে না।


বিবার্তা/সোহান

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com