রাকা থেকে আইএসকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেছে মার্কিন-ব্রিটিশ জোট!
প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ১২:৪৪
রাকা থেকে আইএসকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেছে মার্কিন-ব্রিটিশ জোট!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সিরিয়ার রাকা নগরীর পুনর্নিয়ন্ত্রণ নেয়ার স্বল্প সময় আগে ইসলামিক স্টেট (আইএস) গ্রুপের বিদেশি যোদ্ধারা সেখান থেকে পালিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইরত মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের এক মুখপাত্র মঙ্গলবার একথা জানান।


তবে বিবিসির এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলা হয়, বিদেশিসহ আইএসের কয়েকশ যোদ্ধা ১২ অক্টোবর একসঙ্গে গাড়ি বহরে করে রাকা ছেড়ে চলে গেছে। তাদের পালাতে সাহায্য করেছে মার্কিন-ব্রিটিশ নেতৃত্বাধীন জোট ও কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনী।


যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এসডিএফ) জানায়, সেখানে আইএসকে পরাজিত করার কয়েকদিন আগে রাকা সিভিল কাউন্সিলের কর্মকর্তা ও আইএসের সিরীয় যোদ্ধাদের মধ্যে একটি মধ্যস্থতা চুক্তির আওতায় ১৪ অক্টোবর এ নগরী থেকে তিন হাজারের বেশি বেসামরিক নাগরিককে সরিয়ে নেয়া হয়।


সামরিক জোট জানায়, এ সময় তারা অনড় ছিল যে আইএসের বিদেশি যোদ্ধাদের রাকা থেকে পালিয়ে যাওয়ার কোন সুযোগ দেয়া হবে না।


জোটের মুখপাত্র কর্নেল রাইয়ান ডিলন সাংবাদিকদের বলেন, সাড়ে ৩ হাজার বেসামরিক নাগরিক রাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার সময় আইএসের প্রায় ৩০০ বিদেশি যোদ্ধা চলে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


তিনি জানান, স্ক্রীনিংয়ের সময় আইএসের চার বিদেশি যোদ্ধাকে সনাক্ত ও গ্রেফতার করে এসডিএফ।


বিবিসির সংবাদদাতারা সোমবার প্রকাশিত ওই অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলেছেন, যুদ্ধরত কয়েকটি পক্ষের মধ্যে এক গোপন চুক্তির অধীনে হাজার হাজার আইএস জঙ্গিকে তাদের পরিবারসহ নিরাপদে অন্যত্র পালিয়ে যাবার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে। তারা এখন সিরিয়ার অন্যত্র ছড়িয়ে পড়েছে। এমনকি অনেকে তুরস্কেও চলে গেছে।


এসব জঙ্গিদের মধ্যে ছিল ফ্রান্স, তুরস্ক, আজারবাইজান, পাকিস্তান, ইয়েমেন, সৌদি আরব, চীন, তিউনিসিয়া ও মিশরের নাগরিক।


বিবিসির সাংবাদিক কুওয়েন্টিন সামারভিল বলেছেন, রাকা শহরের সিটি হাসপাতাল ভবনে আইএস যোদ্ধারা কয়েক মাস ধরে লুকিয়ে ছিল। এই হাসপাতালের সামনে থেকেই তাদের বহনকারী বাসগুলো অজানা গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।


তিনি বলেন, ওই বাসগুলোতে ছিল আইএস যোদ্ধারা, তাদের পরিবারের সদস্য এবং তাদের হাতে আটক থাকা জিম্মিরা। আমাকে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, যাওয়ার সময় আইএসের যোদ্ধাদের মোটেও পরাজিত বা হতাশ মনে হয়নি। বরং তারা উজ্জীবিত ছিল।


বিবিসির এই সংবাদদাতা আরও বলেন, এই চুক্তির প্রথম করণীয় ছিল সংবাদমাধ্যমকে কিছুই জানতে না দেয়া। আইএসের পালিয়ে যাওয়ার কোনও ছবি টিভিতে দেখা যায়নি। বিশ্বকে বলা হয়েছে, শুধু কিছু স্থানীয় যোদ্ধাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে, কোন বিদেশি ছাড়া পায়নি, কোন অস্ত্রও তারা নিয়ে যেতে পারেনি।


বেশ কয়েকদিন অনুসন্ধানের পর আইএস যোদ্ধাদের বহন করা ট্রাকগুলো বিবিসি খুঁজে পায় তাবকা শহরে। বেসামরিক ড্রাইভারদেরও পাওয়া যায়। তাদেরকে ভাড়া করেছিল এসডিএফ।


এক গাড়িচালক জানান, এই বহরে ছিল ৪৭টা বাস আর ১৩টা ট্রাক। আইএস জঙ্গিদের নিজেদের গাড়িও ছিল। পুরো বহরটা ছিল ৬ থেকে ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ। নারী ও শিশুসহ আমরা প্রায় ৪ হাজার লোককে বহন করেছি। সূত্র: এএফপি ও বিবিসি


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com