নতুন এমপিদের মুখ বন্ধ রাখার নির্দেশ মোদির
প্রকাশ : ২৬ মে ২০১৯, ১২:২৭
নতুন এমপিদের মুখ বন্ধ রাখার নির্দেশ মোদির
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

সংবাদমাধ্যমের সাথে কোনো কথা নয়। এমনকি ঘরোয়া আড্ডা বা ‘অফ দ্য রেকর্ড’ কথাবার্তাও নয়। প্রথম দিনেই বিজেপি তথা এনডিএ জোটের নতুন এমপিদের মুখে কুলুপ আঁটার নির্দেশ দিলেন প্রদানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।


গত পাঁচ বছরে সাক্ষী মহারাজ থেকে এবার ভোট প্রচারে প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুর- বিতর্কিত মন্তব্য করে বারবার বিজেপিকে বিপাকে ফেলেছেন। নাথুরাম গডসেকে দেশভক্ত বলে ফেলায় মোদিকে বলতে হয়েছে, তিনি কখনোই প্রজ্ঞাকে ক্ষমতা করতে পারবেন না।


জাতীয় নির্বাচনে বিশাল জয় পাওয়ার পর শনিবার সন্ধ্যায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের (এনডিএ) নবনির্বাচিত লোকসভা সদস্যদের প্রথম বৈঠকে দেয়া ভাষণে তিনি এ নির্দেশ দেন। বৈঠকে ঐকমত্যের ভিত্তিতে দ্বিতীয়বারের মতো বিজেপি ও এনডিএ’র সংসদীয় নেতা নির্বাচিত হয়েছেন মোদি।


মোদি বলেন, কিছু নেতা বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য সব সময় খবরে থাকেন। তাদের সতর্ক থাকতে হবে। মিডিয়ার লোকেরাও জানে, ছয়জন এমন নমুনা রয়েছে, যাদের সামনে পৌঁছে গেলে কিছু না কিছু বলবেই।


লালকৃষ্ণ আডবাণীকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, ‘দিখাস-ছপাস’(টিভিতে দেখানো, ছবি ছাপানো)’এর লোভ থেকে বাঁচতে হবে। সংবাদমাধ্যম নানা রকম বিষয়ে বয়ানের জন্য অনুরোধ করবে। সব তথ্য যাচাই করে তবেই মন্তব্য করবেন। ‘অফ দ্য রেকর্ড’ আলাপচারিতা বলে কিছু হয় না। কার পকেটে কী যন্ত্র রয়েছে, কেউ জানে না।


মোদি বলেন, আমি অনেক নির্বাচন দেখেছি। কিন্তু এবারের নির্বাচন সব দিক থেকে আলাদা। দেশের মানুষ এবার প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ভোট দিয়েছে।


তিনি বলেন, যেভাবে গরিবদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে, একইভাবে সংখ্যালঘুদের সঙ্গেও প্রতারণা করা হয়েছে। এবার তাদের শিক্ষা, স্বাস্থের দিকে নজর দিলে ভাল হবে।


তিনি আরো বলেন, সবার সাথে থাকার জন্য আমরা কাজ করেছি, সবার বিকাশের জন্য কাজ করেছি, এখন সবার বিশ্বাস অর্জনই আমাদের মন্ত্র হবে। এতদিন আমাদের স্লোগান ছিল ‘সব কা সাথ সবকা বিকাশ। এখন এর সাথে ‘সব কা বিশ্বাস’কে জুড়তে হবে।


মোদি চলতি সপ্তাহেই দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য শপথ নিবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভারতের এবারের লোকসভা নির্বাচনে ৫৪৩ সদস্যদের লোকসভায় বিজেপি এককভাবে ৩০৩টি আসন ও জোটগতভাবে ৩৫৩টি আসন পেয়েছে।


এদিকে মোদি এদিনের ভাষণে আর একটা বড় অংশ জুড়ে ছিল, কে মন্ত্রী হবেন, কে হবেন না, তা নিয়ে জল্পনায় আগল দেয়ার চেষ্টা। নতুন সরকারে কে ক্যাবিনেট মন্ত্রী, কে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন, তা নিয়েই এখন আগের সরকারের মন্ত্রী, প্রবীণ-নবীন সাংসদদের মধ্যে আলোচনা চলছে।


মোদি একদিকে যেমন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে এমপিদের নিষেধ করেছেন, তেমনই সংবাদমাধ্যমের কথা এমপিদের বিশ্বাস করতেও মানা করেছেন।


তিনি বলেন, সরকার আর কেউ তৈরি করবেন না। যার দায়িত্ব, তিনিই তৈরি করবেন। খবরের কাগজের পাতা থেকে মন্ত্রী তৈরি হয় না। মন্ত্রিপদ যায়ও না। কেউ মন্ত্রী পদ পাইয়ে দেয়ার কথা বললে, তাকেও বিশ্বাস করতে নিষেধ করেছেন তিনি।


তবে মোদি যা-ই বলুন, বিজেপির অনেক নেতাই মন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। জেডি(ইউ), শিবসেনা, এডিএমকের মতো শরিক নেতারাও মন্ত্রী হওয়ার জন্য বিজেপির শীর্ষস্তরে দরবার শুরু করেছেন।


সূত্রের খবর, এবার মন্ত্রিসভায় অনেক নতুন মুখ থাকবে। পশ্চিমবঙ্গ, উড়িশ্যা, তেলঙ্গানার মতো রাজ্য থেকে মন্ত্রী করা হতে পারে। উড়িশ্যা থেকে জুয়াল ওরাম, সুরেশ পূজারি, অপরাজিতা ষড়ঙ্গী মন্ত্রিসভায় জায়গা পেতে পারেন। তেলঙ্গানার সেকেন্দ্রাবাদের এমপি কিষাণ রেড্ডি মন্ত্রী হতে পারেন। ঝাড়খণ্ডের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অর্জুন মুন্ডাও ক্যাবিনেটে আসতে পারেন। জেডি(ইউ) ও শিবসেনা, দুই শরিক দলই তিনটি করে মন্ত্রণালয় পেতে পারে বলে আশা করছে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা ও এনডিটিভি


বিবার্তা/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com